প্রধানমন্ত্রীর করোনা প্রণোদনা পেলেন ২৬২২ জন খামারি

প্রধানমন্ত্রীর করোনা প্রণোদনা পেলেন ২৬২২ জন খামারি

নওগাঁর সাপাহার উপজেলায় ২ হাজার ৬২২ জন খামারি প্রধানমন্ত্রীর করোনা প্রণোদনার নগদ টাকা পেয়েছেন। চলমান করোনা সংকটে খামারিরা প্রণোদনার নগদ টাকা হাতে পেয়ে শুকরিয়া আদায় করেছেন। করোনাকালে সারাদেশে ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন গবাদিপশু খামারিদের দুর্দশার দিক চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রী তাদের প্রণোদনা দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

সাপাহার উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আশীষ কুমার দেবনাথ তার কর্মীদের দ্বারা সারা উপজেলার খামারিদের তালিকা তৈরি করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দপ্তরে পাঠান। ফলে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে খামারিদের নামে বরাদ্দ আসে প্রণোদনার টাকা।

উলেস্নখ্য যে গত ১৭ ফেব্রম্নয়ারি রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় হতে কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত খামারিদের আর্থিক প্রণোদনা দেয়ার কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

জানা যায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৪ লাখ ৮৫ হাজার ৪৭৬ জন খামারিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে মোট ৫৬৮ কোটি ৮৬ লাখ ৪১ হাজার ২৫০ টাকা নগদ প্রণোদনা দিয়েছেন।

এরই ধারাবাহিতায় সাপাহারে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে প্রাণিসম্পদ খাতে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় ২হাজার ৬২২ জন খামারির মাঝে সর্বনিম্ন ৩৩৭৫ টাকা থেকে ২২,৫০০ টাকা হিসাবে মোট ৩ কোটি ১৩ লক্ষ ৪৪ হাজার ৮৯৫ টাকা সাপাহার উপজেলার খামারিরা পেয়েছেন।

সাপাহার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান হোসেন মন্ডল বলেন, 'বর্তমান সরকার জনবান্ধব সরকার। দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে সবসময় কাজ করে থাকেন। এই মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত খামারিরা যে করোনা প্রণোদনা পেলেন এর জন্য আমি সাপাহার উপজেলাবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।'

সাপাহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কল্যাণ চৌধুরী বলেন, দেশ উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের মানুষের ভাগ্য বদলাতে এবং দেশকে এগিয়ে নিতে প্রধানমন্ত্রীর নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। এর সবচেয়ে বড় প্রমাণ হচ্ছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে এই করোনা প্রণোদনা প্রদান করা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে