রায়পুরে ২২ বছরেও এমপিওভুক্ত হয়নি একটি কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীদের মানবেতর জীবন

রায়পুরে ২২ বছরেও এমপিওভুক্ত হয়নি একটি কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীদের মানবেতর জীবন

দীর্ঘ ২২ বছর ধরে সুনামের সঙ্গে একটি অজপাড়া গায়ে গ্রামীণ পরিবেশে নারী শিক্ষার আলো ছড়াচ্ছে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার একমাত্র মহিলা কলেজ রহিমা হক চেতনা বিকাশ মহিলা কলেজটি। দীর্ঘ ২২ বছরেও প্রতিষ্ঠানটি এমপিওভুক্ত না হওয়ায় মানবেতর জীবনযাপন করছেন শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ ২৫ জন কর্মচারী।

জানা যায়, প্রয়াত দেশবরেণ্য কৃষক নেতা ফজলুল হক খোন্দকারের সার্বিক চেষ্টায় কলেজটির যাত্রা শুরু হয় ১৯৯৯ সালে। বিগত আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ২০০০ সালে সরকারি অনুমতিপত্র পাওয়ার পর তৎকালীন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এবং নরসিংদী-৫ রায়পুরা আসনের সংসদ সদস্য এমপিওভুক্ত করেছিলেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকারের শেষ সময় হওয়ায় এবং পরবর্তীতে জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর অদৃশ্য কারণে কলেজটি এমপিওভুক্তির তালিকা থেকে বাদ পড়ে। রায়পুরার ২৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার মধ্যে একমাত্র মহিলা কলেজ হিসেবে গড়ে উঠেছে এটি। যেখানে ৭ লক্ষাধিক লোকের বসবাস। নারী শিক্ষা বিস্তারের লক্ষ্যে বর্তমানে কলেজে পাঁচ শতাধিক ছাত্রী পড়াশোনা করেন। কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীরা বিনা বেতনে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় ছিলেন এই বুঝি তাদের এমপিওভুক্ত করা হবে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় সর্বশেষ এমপিওতেও যখন তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি তখন তাদের মধ্যে হতাশা দেখা দিয়েছে।

শিক্ষার্থীদের পাঠদান অব্যাহত রাখতে অনেক শিক্ষক তার শিক্ষিত গৃহবধূকে দিয়ে হলেও শিক্ষক সংকট দূর করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। কিন্তু এভাবে কতদিন চলবে এ কলেজের পাঠদান এমন প্রশ্ন অভিভাবক ও সচেতন মহলের। বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকারের সময়েও অত্র কলেজটি নরসিংদী-৫, রায়পুরার এমপি, সাবেক ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু একাধিকবার ডিও লেটার দেওয়ার পরও অজ্ঞাত কারণে এমপিওভুক্তির তালিকায় প্রতিষ্ঠানটির নাম আসছে না। ফলে এলাকার আপামর জনগণ, শিক্ষার্থীসহ শিক্ষক-কর্মচারীদের রোষানলে পড়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ডক্টর মো. শফিউল আজম কাঞ্চন বলেন, কলেজটি এমপিওভুক্ত হলে এ বৃহৎ উপজেলায় নারী শিক্ষা বিস্তারে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। তাই কলেজটি রক্ষা করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে