সড়কে পাঁচ জেলায় নিহত ৮ জন

সড়কে পাঁচ জেলায় নিহত ৮ জন

পাঁচ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ৮ জনের মৃতু্য হয়েছে। এর মধ্যে পাবনায় তিন ও নাটোরে দুইজন প্রাণ হারিয়েছেন। তাছাড়া একজন করে মারা গেছেন ঝিনাইদহের শৈলকুপা, খুলনার ডুমুরিয়া, মেহেরপুরের গাংনীতে। শনিবার সন্ধ্যা থেকে রোববার বিকাল পর্যন্ত এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আমাদের পাবনা প্রতিনিধি জানান, পাবনা সদর ও আটঘরিয়া উপজেলায় আলাদা সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে দুজন ব্যবসায়ী ও একজন কিশোর। শনিবার সন্ধ্যা ও মধ্যরাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে

নিহতরা হলেন পাবনা পৌর সদরের কৃষ্ণপুর মহলস্নার ইয়াকুব আলীর ছেলে ইকবাল হোসেন খান (৫৫), বেড়া উপজেলার নাটিয়াবাড়ি গ্রামের মোহম্মদ শেখের ছেলে মজিদ শেখ (৫০) এবং আটঘরিয়া উপজেলার মাঝপাড়া ইউনিয়নের পাড়ামোহন গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে হৃদয় হোসেন (১৭)।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত ১২টার দিকে শহরের বাসা থেকে দুই ব্যবসায়ী বন্ধু ইয়াকুব ও মজিদ মোটর সাইকেল নিয়ে বের হন। তারা পাবনা-পাকশী সড়কের নাজিরপুর স্কুলের সামনে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে একটি দ্রতগতির ট্রাক তাদের চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই ইকবাল মারা যান। হাসপাতালে নেওয়ার পর মজিদ শেখকেও মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। তারা দুই বন্ধু একসঙ্গে ব্যবসা করতেন এবং শহরের কৃষ্ণপুর মহলস্নায় বসবাস করতেন।

এ ঘটনায় পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় মরদেহ দাফনের জন্য স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয় বলে জানান ওসি।

এদিকে, আটঘরিয়া উপজেলার পাড়ামোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে অটোরিকশা ও মোটর সাইকেলের সংঘর্ষে নিহত হয় হৃদয় হোসেন। শনিবার রাত ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

অন্যদিকে ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানান, ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার আসাননগর নামক স্থানে বাস চাপায় আইয়ুব শেখ (৫০) নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। রোববার সকালে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়কের শৈলকুপা উপজেলার ওই স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আইয়ুব শেখ দুধসর গ্রামের মৃত হানিফ শেখের ছেলে।

নিহতের ছেলে রাসেল শেখ জানান, রোববার সকালে ভাটই বাজার থেকে বাইসাইকেলযোগে বাড়ি ফিরছিল। পথে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে একটি বাস তাকে চাপা দেয়। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

ঝিনাইদহের আরাপপুর হাইওয়ে থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার পর ঘাতক যানটি পালিয়ে গেছে। মরদেহ হাসপাতালে রাখা হয়েছে। পরিবার থেকে অভিযোগ না থাকলে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

নাটোর ও বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি জানান, নাটোরের বড়াইগ্রাম ও সিংড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজনের মৃতু্য হয়েছে। রোববার বড়াইগ্রাম উপজেলার নটাবাড়িয়া উত্তরপাড়া এলাকায় রাস্তা পার হওয়ার সময় মোটর সাইকেলের ধাক্কায় মাজেদা বেওয়া নামে এক বৃদ্ধার মৃতু্য হয়। অপরদিকে নাটোরের সিংড়ায় ট্রাকের সঙ্গে মোটর সাইকের সংঘর্ষে অজ্ঞাত মোটর সাইকেল চালকের মৃতু্য হয়।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। অপরদিকে সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুর এ আলম সিদ্দিকি জানান, সিংড়া উপজেলার ১২ নম্বর রামানন্দ খাজুরা ইউনিয়নের নাটোর বগুড়া মহাসড়কের আরজদর্গা নামক স্থানে বগুড়াগামী একটি ট্রাকের সঙ্গে সিংড়াগামী একটি মোটর সাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটর সাইকেল চালক ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি জানান, খুলনার ডুমুরিয়ায় ট্রাক-পরিবহণের মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্রাকচালক শাহিনুর রহমান (৫৫) নিহত হয়েছেন। তিনি যশোর জেলার কেশবপুরের হাড়িয়াঘোপ গ্রামের হায়দার মোড়লের ছেলে। শনিবার বিকালে খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কে কাঞ্চনপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গাংনী (মেহেরপুর) প্রতিনিধি জানান, মেহেরপুরের গাংনীর গোপালনগর গ্রামের বটতলায় রাস্তা পার হতে গিয়ে মোটর সাইকেল চাপায় সফেদা খাতুন (৫৫) নামে এক নারীর মৃতু্য হয়েছে। রোববার দুপুরে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃতু্য ঘটে। সফেদা খাতুন গোপালনগর গ্রামের আব্দুর রহমানের স্ত্রী।

গাংনী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, এ ব্যাপারে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। যদি কেউ কোনো অভিযোগ করেন তাহলে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে