বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

মৌসুমে প্রথম দেখা হচ্ছে আবাহনী-মোহামেডানের

ক্রীড়া প্রতিবেদক
  ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০০:০০

মৌসুমের প্রথম টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপ শেষ হয়েছে আগেই। এরই মধ্যে প্রিমিয়ার ফুটবল লিগেরও ৭টি রাউন্ড শেষ। কিন্তু এখন পর্যন্ত আবাহনী-মোহামেডান সমর্থকদের দেখা হয়নি দুই ঐতিহ্যবাহীর লড়াই। তবে অবশেষে আজ মঙ্গলবার মৌসুমে প্রথমবার দেখা হতে যাচ্ছে দুই চীরপ্রতিদ্বন্দ্বী ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের।

গত মৌসুমে ফেডারেশনকাপের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল আবাহনী-মোহামেডান। নির্ধারিত সময়ে ম্যাচ ৪-৪ গোলে ড্র থাকাতে টাইব্রেকারে নির্ধারিত হয় ভাগ্য। যেখানে ৪-২ গোলে আবাহনীকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মোহামেডান।

ফেডারেশন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে আজ 'বি' গ্রম্নপের দু'টি ম্যাচ হবে। দুপুর ৩টায় গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে আবাহনী-মোহামেডান। যেটি গ্রম্নপ চ্যাম্পিয়ন হবারও লড়াই। একই সময়ে মুন্সিগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লে.মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম আবাহনী খেলবে ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে।

ঢাকা ডার্বি, দুই ঐতিহ্যবাহীর লড়াই, দুই চীরপ্রতিদ্বন্দ্বীর মর্যাদার লড়াই, যে নামেই ডাকা হোক না কেন, যুগ যুগ ধরে দেশের ফুটবল দর্শকদের অন্যরকম এক আবেগ আর অনুভূতি আছে এই দুই ক্লাবকে ঘিরে। দুই ক্লাবের সমর্থকের সংখ্যা কম নয়। একটা সময় আবাহনী-মোহামেডান দেশের অন্যতম শক্তিধর দু'টি ক্লাব ছিল। তবে এক সময়ে দুই ক্লাবের লড়াই নিয়ে মাঠে ও গ্যালারিতে যে উত্তাপ ছিল ততটা এখন আর দেখা যায় না। গত কয়েক মৌসুম ধরে ঘরোয়া ফুটবলে রাজত্বটা বসুন্ধরা কিংসেরই। তারপরও দেশের ফুটবল দর্শকরা অপেক্ষাতে থাকেন কবে তাদের প্রিয় দুই দল মুখোমুখি হবে। কবে হবে আরেকটা 'ঢাকা ডার্বি'। এবারের মৌসুমে আবাহনী-মোহামেডানও বেশ আশা দেখাচ্ছে সমর্থকদের। বিশেষ করে চলতি মৌসুমে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের পারফরম্যান্স চোখে পড়ার মতো। মৌসুম সূচক স্বাধীনতা কাপে অল্পের জন্য শিরোপাটা ছুঁয়ে দেখা হয়নি মোহামেডানের। ফাইনালে বসুন্ধরা কিংসের কাছে ২-১ গোলে হেরে রানার্স আপ হয় সাদা-কালোরা। স্বাধীনতা কাপে আবাহনী-মোহামেডান ছিল ভিন্ন গ্রম্নপে। দুই দলই খেলেছে টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনাল ও সেমিফাইনাল। তবে সেখানেও দেখা হয়নি। মোহামেডান স্বাধীনতাকাপের ফাইনালে খেললেও সেমিফাইনালে বসুন্ধরা কিংসের কাছে ৪-০ গোলে হেরে বিদায় নেয় ঢাকা আবাহনী। আবাহনী জিততে পারলে মৌসুমের প্রথম সাক্ষাৎটা সেখানেই হয়ে যেতে পারত। লিগেও মোহামেডান খেলছে দুর্দান্ত। এখন পর্যন্ত ৭ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট সংগ্রহ করে তারা আছে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে। লিগে শক্তিধর বসুন্ধরা কিংসকে হারিয়ে দিয়ে নিজেদের শক্তির জানান দিয়েছে আলফাজ আহমেদের শিষ্যরা (মোহামেডান)। ৭ ম্যাচের ৪টিতে জয় ও দু'টিতে ড্র করে এখন পর্যন্ত অপরাজিত সাদা-কালোরা। অন্যদিকে ঢাকা আবাহনী ১৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগের পয়েন্ট টেবিলে তৃতীয় স্থানে আছে। যেই বসুন্ধরাকে হারিয়ে দিয়েছে মোহামেডান, তাদের কাছেই আবাহনী হেরে যায় ২-০ গোলে। ৭ ম্যাচে আবাহনীও জিতেছে ৪টিতে। তবে তাদের একটি ড্র আর দু'টি হারও আছে। মৌসুম সূচক স্বাধীনতা কাপ ও লিগের সার্বিক পারফরম্যান্স হিসেব করলে আবাহনী কিছুটা পিছিয়েই আছে মোহামেডান থেকে। তবে কাগজে কলমে মোহামেডান থেকে এগিয়ে থাকবে তারা। এবার দেখে নেওয়া যাক ফেডারেশন কাপে দুই দলের পারফরম্যান্স কেমন ছিল। এই টুর্নামেন্টে আবাহনীর গ্রম্নপটাকে বলা হচ্ছে ডেথ গ্রম্নপ। অন্য দুই গ্রম্নপে ৩টি করে দল থাকলেও 'বি' গ্রম্নপে দল চারটি। তাই অন্যগ্রম্নপ থেকে এই গ্রম্নপের দলগুলোকে একটি করে ম্যাচও বেশি খেলতে হচ্ছে। শুধু তাই নয় এই গ্রম্নপ থেকে কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লেখানোটাও ছিল কঠিন। সেই পথটা অবশ্য সাফল্যের সঙ্গেই পার হয়েছে আবাহনী-মোহামেডান। ৬ পয়েন্ট নিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে তারা। গ্রম্নপের অন্য দুই দল চট্টগ্রাম আবাহনী ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন পয়েন্ট শূন্য। আজ তাই আবাহনী-মোহামেডানের লড়াইটা একদিকে যেমন ঐতিহ্যের অন্যদিকে গ্রম্নপ চ্যাম্পিয়ন হবারও। দুই দলই নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করে সেরাটা দিতে প্রস্তুত আজকের ম্যাচে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে