বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১

ভাঙ্গায় বিশ্ব রোড মোড় গোল চত্বরে ভ্রমণ পিপাসুদের ভিড়

ভাঙ্গা( ফরিদপুর) প্রতিনিধি:
  ১৯ জুন ২০২৪, ১৩:০৩
ছবি-যায়যায়দিন

ফরিদপুরে ভাঙ্গায় ঈদুল আযহার দিন থেকেই বিশ্ব রোড মোড় গোল চত্বরে ভ্রমণ পিপাসুদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই দৃষ্টিনন্দন মোড়টি দেখতে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ ভিড় জমাচ্ছে। পরিবার-পরিজন নিয়ে সবাই ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে জড়ো হচ্ছেন এখানে।

বিশ্বরোড মোড়ের চারটি লুপ রোড এবং তার দুপাশের ফুলের বাগান মোহিত করছে সবাইকে। সন্ধ্যা হতে না হতেই বিশাল আলোর ঝলকানি নিয়ে ফ্লাডলাইট জ্বলছে। বিভিন্ন গাছের পাতার ফাঁকে ফ্ল্যাড লাইটের আলোয় জোৎস্না রাতের আবহ তৈরি হচ্ছে। চমৎকার নৈসর্গিক এ পরিবেশে অনেকেই এসে আলোড়িত হন। বিশ্বরোড ফ্লাইওভারের নিচে এর নিচে রয়েছে ফুচকা ও ঝাল মুড়ির দোকান। ঘুরতে আসা যে কেউ অনায়াসে এখানে নেমে এসব খাবার কিনতে পারেন।

ভাঙ্গা বিশ্বরোড মোড় ঘুরতে আসা মাদারীপুর সদর উপজেলার নুপুর দাস বলেন, এত সুন্দর মনোমুগ্ধকর জায়গা বাংলাদেশে আর দ্বিতীয় টি নেই। আমি সুন্দর এই জায়গাটি দেখে অভিভূত।

ঢাকার রায়হানুল ইসলাম বলেন, আমি পরিবার পরিজন নিয়ে এই বিশ্বরোড মোড় দেখতে এসেছি। শুনেছি এশিয়া মহাদেশের মধ্যে এই মোড়টি সবচেয়ে সুন্দর। দেখতে এসে চোখ জুড়িয়ে গেল।

ভাংগা প্রেসক্লাবের (একাংশের) সাধারণ সম্পাদক ও ভাঙ্গার কন্ঠ পত্রিকার সম্পাদক মজিবর মুন্সি বলেন, ঈদের দ্বিতীয় দিনে ভাঙ্গা বিশ্বরোড গোল চত্বরের পরিস্থিতি ছিল ভয়াবহ। অল্প বয়সের কিছু অপ্রাপ্ত যুবক বিশ্ব রোডকে কে কেন্দ্র করে মোটরসাইকেল ঝুঁকিপূর্ণভাবে চালাচ্ছে। যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে ।

বিকট শব্দের হর্ন দিয়ে কিছু কিছু মোটরসাইকেল চলছে, যা বিরক্তির সৃষ্টি করে। আনন্দ পিপাসু মানুষের আনন্দে বিঘ্ন ঘটায়।

ভাঙ্গা উদীচীর সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত মোল্লা বলেন , ভাঙ্গা বিশ্বরোড মোড় গোল চত্বর সব বয়সী মানুষের কাছে আকর্ষণীয়।

কারণ ভাঙ্গার আশেপাশে আর কোন সুন্দর ভালো মনোরম স্পট নেই । তাই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এই অঞ্চলের লোক এখানে এসে ভিড় জমায়। ভাঙ্গার আশেপাশের এলাকা থেকেও প্রচুর লোক আসে। ভাঙ্গা সিপিবির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম বলেন, ঈদের দিন থেকেই ভাঙ্গা বিশ্বরোড গোল চত্বরে জনগণের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সবাই সুন্দর পোশাক পড়ে এই জায়গায় এসেছেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে। এখানে এলে ইউরোপ আমেরিকার মতো মনে হয়।

ভাঙ্গা বাজারের ব্যবসায়ী জাকির মুন্সী জানান, দক্ষিণবঙ্গের প্রবেশদ্বার ভাঙ্গা। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেস ওয়ের শেষ প্রান্ত ভাঙ্গায় যে গোল চত্বর তৈরি করেছেন , তা অত্যন্ত মনোরম । চার পাশে রয়েছে দৃষ্টিনন্দন ফুলের বাগান। দক্ষিণা বাতাসে সুন্দর এই পরিবেশে এলে মন ভরে যায় । যারা একবার আসেন, তারা বারবার আসতে চান। অনেকেই ধারণা করে, এটা দুবাই, সিঙ্গাপুরের কোন জায়গা।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে