শিবচরে স্কুল শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ১

শিবচরে স্কুল শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ১

মাদারীপুরের শিবচরে ১৪ বছর বয়সী নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে নাহিদ শেখ (২৮) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। আর এঘটনায় পলাতক রয়েছে অপর এক আসামী।

শনিবার সকাল ১০ টার দিকে উপজেলার সন্যাসীরচর ইউনিয়নের মাদবর কান্দি গ্রামে ঘটনা ঘটে। তবে শনিবার রাত সোয়া টার দিকে শিবচর থানায় উপস্থিত হয়ে নাহিদ শেখে কে প্রধান আসামী করে আরো একজনে নাম উল্লেখ করে মামলা করেন ওই শিক্ষার্থীর ভাই।পরে রাত টার দিকে তাকে আটক করা হয়।

আটককৃত নাহিদ শেখ বন্দরখোলা ইউনিয়নের রাজারচর মোল্লা কান্দি গ্রামের কায়ুম শেখের ছেলে পলাতক আরিফ হাওলাদার (২৮) একই গ্রামের তারা মিয়া হাওলাদারের ছেলে।

আজ রোববার সকালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই শিক্ষার্থীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শিবচর থানার উপপরিদর্শক বরুন হীরা দুপুর ১২ টার দিকে তথ্য নিশ্চিত করেন।

মামলার বিবরন পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গতকাল (শনিবার) সকালে ওই শিক্ষার্থী নিজ বাড়ি থেকে পাঁয়ে হেটে স্থানীয় মালের হাট বাজারে যাওয়ার পথিমধ্যে সকাল সাড়ে নয়টার দিকে শিবচর থানাধীন সন্যাসীরচর ইউনিয়নের বিনা কোম্পানী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে তার পূর্ব পরিচিত আশিক মাদবর (২০) এর সাথে দেখা হইলে তারা রাস্তার উপর দাড়িয়ে কথপোকথন শুরু করে। এসময় বন্দরখোলা ইউনিয়নের রাজারচর মোল্লা কান্দি গ্রামের কায়ুম শেখের ছেলে নাহিদ শেখ একই গ্রামের তারা মিয়া হাওলাদারের ছেলে আরিফ হাওলাদার একটি নীল রংয়ের মোটরসাইকেল নিয়ে তাদের সামনে এসে বিভিন্ন ভয়-ভীতি হুমকি-ধমকি দিয়ে জোর পূর্বক ভাবে ওই শিক্ষার্থীকে তাদের সাথে থাকা মোটরসাইকেলে উঠিয়ে অপহরন করে সন্যাসীরচর ইউনিয়নের মাদবর কান্দি এলাকার হারুন শেখের কলা বাগানে নিয়ে যায়। পরে নাহিদ শেখ তার সাথে থাকা আরিফ হাওলাদারকে দূরে সরিয়ে দিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।পরে ওই শিক্ষার্থী ধস্তা ধস্তির একপর্যায়ে চিৎকার দিলে আশপাশ হতে লোকজন এগিয়ে আসে। ততক্ষনে আসামী নাহিদ পালিয়ে যায়।

পরে শিবচর থানার উপপরিদর্শক বরুন হীরার নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল সেখানে উপস্থিত হয়ে ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে শিবচর থানায় নিয়ে আসে।এছাড়াও রাতে অভিযান পরিচালনা করে রাত টার দিকে ওই গ্রাম থেকে নাহিদ শেখকে আটক করে।

মামলার বাদী বাবু বেপারী বলেন, ওরা আমার বোনের ইজ্জত নিয়েছে। আমি আইনের মাধ্যমে ওদের কঠিন বিচার চাই।

শিবচর থানার উপপরিদর্শক মামলা তদন্ত কর্মকর্তা বরুন হীরা (দুপুর ১২ টার দিকে) মুঠোফোনে বলেন, সংবাদ পেয়ে গতকাল সকালে মেয়েটিকে উদ্ধার করি রাত টার দিকে মামলার নম্বর আসামীকে আটক করি।

আসামী মাদারীপুর কোর্টে মেয়েটিকে ডাক্তারি পরিক্ষার জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোঃ মিরাজ হোসেন বলেন, গতকাল সকালে খবর পেয়ে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে। রাতে মেয়েটির ভাই বাদী হয়ে মামলা করার ঘন্টা পরে মামলাম প্রধান আসামিকে আমরা গ্রেপ্তার করি অন্য আসামীকে আটকের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে বলেও জানান ওসি।

যাযাদি/এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে