মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯
walton1

অবশেষে পদত্যাগ করলেন কাপাসিয়া আওয়ামী লীগ সভাপতি শহীদুল্লাহ

কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি
  ০৬ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৩৬

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মুহম্মদ শহীদুল্লাহ (৭১) দলীয় পদ থেকে অবশেষে গতকাল রোববার বিকেলে পদত্যাগ করলেন।

সম্প্রতি একটি আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল হলে উপজেলার সর্বত্র এ নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। যে কারণে দলীয় পদ থেকে তার পদত্যাগের দাবি উঠে।

পরে, বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমির নজরে এলে তিনি ক্ষুব্দ হয়ে তাকে (শহীদুল্লাহকে) দলীয় পদ থেকে সড়ে যেতে নির্দেশ দেন।

জানা যায়, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুহম্মদ শহীদুল্লাহর গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ১ মিনিট ৩৯ সেকেন্ডের একটি আপত্তিকর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়।

তার নৈতিক স্খলন সম্পর্কিত এ ভিডিওটি নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ দেখা দেয়। ফেসবুকসহ নানা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার এ জাতীয় অতীত কর্মকান্ডের কথা উল্লেখ করে অনতিবিলম্বে পদত্যাগের ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি উঠে।

ইতিপূর্বে দলীয় পদ দেওয়ার লোভ দেখিয়ে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের সাথে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়েছেন বলে অসংখ্য অভিযোগ এসেছে। গত শনিবার বিকেলে এক দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি উপস্থিত হলে দলীয় নেতা কর্মীরা বিষয়টি তার নজরে আনেন।

এ সময় তিনি  শহীদুল্লাহকে উপজেলা আওয়ামীগের সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন। এ প্রেক্ষিতে রোববার উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মুহম্মদ শহীদুল্লাহ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বরাবর দল থেকে অব্যাহতি নেয়ার চিঠি দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট মাজাহারুল ইসলাম সেলিম, সোহরাব হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রধান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, মাহবুব উদ্দিন সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আতিকুল ইসলাম রিংকু, অর্থ সম্পাদক মাহবুবুল আলম মোড়ল এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

মিজানুর রহমান জানান, চিঠিতে তিনি অসুস্থতা জনিত কারণ দেখিয়ে দল থেকে অনির্দিষ্ট কালের ছুটি চেয়েছেন এবং একই সাথে এ্যাডভোকেট মাজাহারুল ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, মুহম্মদ শহীদুল্লাহ দীর্ঘ ৯ বছর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৮৬ সালে সিপিবি থেকে গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

যাযাদি/সৌলভ

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে