logo
শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৬

  ক্রীড়া ডেস্ক   ০৭ জুলাই ২০২০, ০০:০০  

ব্যবধান কমাল বার্সেলোনা

ব্যবধান কমাল বার্সেলোনা
আত্মঘাতী গোলে শুরুতেই এগিয়ে যাওয়া বার্সেলোনা ম্যাচের পুরোটা সময় বল দখলে আধিপত্য দেখানোর পাশাপাশি আক্রমণের বন্যা বইয়ে দিল। লিওনেল মেসির জোড়া অ্যাসিস্টে প্রথমার্ধে লুইস সুয়ারেজ ও আঁতোয়ান গ্রিজম্যান জালের ঠিকানা খুঁজে নেওয়ার পর শেষদিকে লক্ষ্যভেদ করলেন বদলি নামা আনসু ফাতি। বড় জয় তুলে নিয়ে স্প্যানিশ লা লিগার পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে পয়েন্টের ব্যবধান চারে নামিয়ে আনল কিকে সেতিয়েনের দল।

রোববার রাতে ভিয়ারিয়ালকে তাদের মাঠেই ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সা। চলমান মৌসুমে দুদলের আগের দেখায় গেল সেপ্টেম্বরে ঘরের মাঠ নু্য ক্যাম্পে ২-১ গোলে হারিয়েছিল কাতালানরা।

টানা দুবার হোঁচট খাওয়ার পর অবশেষে পূর্ণ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ল বার্সেলোনা। সেলতা ভিগো ও অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে সবশেষ দুই ম্যাচে ড্র করেছিল তারা। শিরোপার লড়াইয়ে টিকে থাকতে তাই ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে জয়ের কোনো বিকল্প ছিল না দলটির। আর মহাগুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে জ্বলে উঠলেন মেসি-সুয়ারেজ-গ্রিজমানরা।

ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই লিড নেয় অতিথিরা। ডি-বক্সের ভেতরে বাঁদিক থেকে করা জর্দি আলবার ক্রস ফেরাতে গিয়ে নিজেদের জালে পাঠিয়ে দেন ভিয়ারিয়ালের পাউ তোরেস।

সমতায় ফিরতে বেশি সময় নেয়নি স্বাগতিকরা। দারুণ এক পাল্টা আক্রমণ থেকে ১৪তম মিনিটে গোল আদায় করে নেয় তারা। সান্তি কাজোরলার জোরালো শট ঠেকিয়ে দিলেও বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হন বার্সা গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেন। ফিরতি শটে লক্ষ্যভেদ করেন ফাঁকায় দাঁড়ানো জেরার্দ মোরেনো।

পিছিয়ে পড়ে যেন তেতে ওঠে বার্সেলোনা। ছয় মিনিট পরই ফের এগিয়ে যায় তারা। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মেসি মাঝমাঠে বল পেয়ে অনেকখানি এগিয়ে গিয়ে পাস দেন সুয়ারেজকে। ডি-বক্সের সামান্য বাইরে থেকে নিখুঁত শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি। চলতি আসরে উরুগুইয়ান স্ট্রাইকারের এটি ১৪তম গোল।

বিরতির ঠিক আগে ফরাসি ফরোয়ার্ড গ্রিজমান লক্ষ্যভেদে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি নিয়ে নেয় বার্সা। মেসির ব্যাক-হিলের পর ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের অসাধারণ চিপ শটে গোল করেন তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৬৯তম মিনিটে সার্জি রবার্তোর কাট-ব্যাক থেকে বল জালে পাঠিয়েছিলেন মেসি। কিন্তু আক্রমণের শুরুতে আর্তুরো ভিদাল অফসাইডে থাকায় ভিএআর প্রযুক্তির সাহায্যে গোলটি বাতিল করেন রেফারি।

৮৬তম মিনিটে বার্সেলোনার বড় জয় নিশ্চিত করেন ফাতি। আলবার পাসে ডি-বক্সের ভেতর থেকে ডান পায়ের নিচু শটে ভিয়ারিয়ালের জাল কাঁপান তিনি।

আগের ম্যাচে ৭০০ গোলের মাইলফলকে পৌঁছানো মেসি যোগ করা সময়ে ব্যবধান আরও বাড়াতে পারতেন। কিন্তু তার ফ্রি-কিক ক্রসবারে বাধা পায়। ফিরতি শটে আরেক বদলি মার্টিন ব্র্যাথওয়েট পারেননি ম্যাচজুড়ে দারুণ কিছু সেভ করা ভিয়ারিয়াল গোলরক্ষক সার্জিও আসেনহোকে পরাস্ত করতে।

এই জয়ে ৩৪ ম্যাচে ২২ জয় ও সাত ড্রয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট বেড়ে হলো ৭৩। সমান ম্যাচে ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে তাদের সামনে রয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল। মাত্র চার রাউন্ডের খেলা বাকি থাকায় শিরোপা পুনরুদ্ধারের দৌড়ে অনেকখানি এগিয়ে আছে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে