logo
বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৫

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

দক্ষিণাঞ্চলের হ্যাটট্রিক শিরোপা

দক্ষিণাঞ্চলের হ্যাটট্রিক শিরোপা
বিসিএলের সেরা বোলার আব্দুর রাজ্জাক
বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) ফাইনালে প্রথম দুই দিনে একক আধিপত্য ছিল বিসিবি দক্ষিণাঞ্চলের। তবে তৃতীয় দিনে বোলারদের সৌজন্যে দারুণভাবে ম্যাচে ফিরেছিল ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চল। কিন্তু শেষ রক্ষা করতে পারেনি দলটি। ১০৫ রানের বড় ব্যবধানেই হেরেছে তারা। ফলে টানা তৃতীয়বারের মতো এ আসরের শিরোপা জিতেছে দক্ষিণাঞ্চল।

গলার কাঁটা হয়ে ঝুলে ছিলেন জাকির হোসেন। জয় হাতছানি দিলেও বিসিবি দক্ষিণাঞ্চলের শিরোপার পথে দাঁড়িয়ে তখন ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের এ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। সেই কাঁটা উপড়ে ফেললেন মাহমুদউলস্নাহ। পরে বাকিদের চটজলদি ফিরিয়ে ২০২০ বিসিএলের শিরোপা জিতল আব্দুর রাজ্জাকের দক্ষিণাঞ্চল।

বিসিএলে অবশ্য বরাবরই দক্ষিণাঞ্চল রাজত্ব করে থাকে। মোট আটবার অনুষ্ঠিত হওয়া এ আসরের পাঁচবারই শিরোপা ঘরে তুলেছে তারা। একবার রানার্সআপ হয়েছে দলটি। এছাড়া মধ্যাঞ্চল দুইবার ও উত্তরাঞ্চল একবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো পাঁচ দিনের ফাইনাল। কিন্তু খেলা শেষ চার দিনেই। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চতুর্থ দিনের শুরুতে মাত্র ১৪০ রানে দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট দক্ষিণরা। প্রথম ইনিংসে পাওয়া ২১৩ রানের লিডের সঙ্গে এই রান যোগ হয়ে পূর্বাঞ্চলের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৫৪ রান। হাতে পুরো পাঁচ সেশন থাকার পরও পূর্বাঞ্চলের ব্যাটসম্যানরা খেলতে পারলেন সবে দুই সেশন। ২৪৮ রানে অলআউট হয়ে প্রতিপক্ষের হাতে তুলে দিয়েছে ১০৫ রানের জয়। দুই উইকেট হাতে রেখে ১২৫ রানে দিন শুরু করা দক্ষিণ বেশিদূর যেতে পারেনি মেহেদী হাসান ফিরে যাওয়া পর। ৪১ রান নিয়ে শুরু করা ডানহাতি অলরাউন্ডার আউট হওয়ার আগে করে গেছেন দলীয় সর্বোচ্চ ৫৩ রান। পূর্বাঞ্চলের দুই পেসার হাসান মাহমুদ ও আবু হায়দার রনি নিয়েছেন ৪টি করে উইকেট। আরেক পেসার রুয়েল মিয়ার শিকার ২ উইকেট।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে দ্রম্নত সাজঘরে পূর্বাঞ্চলের দুই ওপেনার পিনাক ঘোষ ও মোহাম্মদ আশরাফুল। দলীয় ৩৩ রানে ফিরে যান অধিনায়ক ইমরুল কায়েসও। মাহমুদুল হাসান ও আফিফ হোসেন ধ্রম্নবর ৮৫ রানের জুটি ভরসা দিলেও মেহেদী হাসান এসে ভাঙেন প্রতিরোধ। উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন ৩১ রান করা আফিফকে। পঞ্চম উইকেট জুটিতে এসেছে ৩৯ রান। বিশ্বকাপজয়ী অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ওপেনার তানজিদ হাসান তামিমকে নিয়ে যুব দলের সাবেক অধিনায়ক মাহমুদুল হাসানের লড়াই ভাঙেন ফরহাদ রেজা। ১৭ রানে ফেরেন তামিম। পরে ফরহাদের বলেই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন পূর্বাঞ্চলের সর্বোচ্চ সংগ্রাহক মাহমুদুল হাসান। ফেরার আগে করে গেছেন ১০৪ বলে ৮১ রান। শেষ দিকে জাকির ৪২ করলেও একদিন আগেই ম্যাচ জিতে নেয় দক্ষিণাঞ্চল।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে