শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সৌদি আরবে শুক্রবার মালয়েশিয়ায় শনিবার ঈদ

যাযাদি ডেস্ক
  ২০ এপ্রিল ২০২৩, ২২:০৭
আপডেট  : ২০ এপ্রিল ২০২৩, ২২:১২
সৌদি আরবে শুক্রবার মালয়েশিয়ায় শনিবার ঈদ

কয়েকদিন ধরে চলা নানান জল্পনার অবসান হলো আজ বৃস্পতিবার। শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গিয়েছে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে। কিন্তু এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার চাঁদা দেখা যায়নি। তাই আগামী কাল শুক্রবার সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে অন্য দিকে সৌদি আরবের সঙ্গে রোজা শুরু করলেও মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ায় ঈদ উদযাপিত হবে শনিবার। মানে সৌদি আরবে রোজা হয়েছে ২৯ টি আর মালয়েশিয়া-ইন্দোনেশিয়ার রোজ হলো ৩০ টি।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সৌদি আরবের আকাশে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়। ফলে এ বছর সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে কাল শুক্রবার (২১ এপ্রিল) পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হবে। ২০ এপ্রিল সন্ধ্যার পর সৌদি আরবের রাজকীয় আদালত চাঁদ দেখার সংবাদ জানিয়েছে। খালিজ টাইমসের খবর।

এদিকে অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ব্রুনাই, থাইল্যান্ড, জাপান ও ফিলিপাইন আনুষ্ঠানিকভাবে শনিবার (২২ এপ্রিল) ঈদুল ফিতর উদযাপন করবে বলে ঘোষণা দেয়। কারণ, এসব দেশে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি।

ধারাবাহিকভাবে সাধারণত মধ্যপ্রাচ্যের একদিন পর বাংলাদেশে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়। সেই হিসেবে আগামীকাল শনিবার (২২ এপ্রিল) পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হতে পারে। তবে কাল শুক্রবার চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠকের পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসবে।

উল্লেখ্য, ইসলামিক চন্দ্র পঞ্জিকা অনুযায়ী নবম মাস হলো রমজান। আর ১০তম মাস শাওয়াল, যার প্রথম দিন সারা বিশ্বেই ঈদুল ফিতর হিসেবে উদযাপিত হয়। আরবি শব্দ শাওয়ালের ভাষান্তর দাঁড়ায়, ‘রোজা ভাঙার উৎসব।’

দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর বিশ্বের আনাচে-কানাচে বসবাসরত মুসলিমরা এই দিন শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার ভিত্তিতে উৎসবটি উদযাপন করেন।

মালয়েশিয়ায় চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ শনিবার

এতিকে আজ বৃহস্পতিবার (২০ এপ্রিল) মালয়েশিয়ায় শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে, দেশটিতে পবিত্র ঈদুল ফিতর আগামী শনিবার (২২ এপ্রিল) উদযাপিত হবে। খবর মালয় মেইলের।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মালয়েশিয়ার ‘কিপার অব দ্য রুলারস সিল’ সৈয়দ দানিয়াল সৈয়দ আহমদ বলেছেন, ইয়াং ডিপারতুয়ান আগাং (প্যারামাউন্ট রুলার প্রধান) আল-সুলতান আবদুল্লাহ রিয়াতউদ্দিন আল-মুস্তফা বিল্লাহ শাহ মালয়েশীয় শাসকদের সঙ্গে আলোচনার পরে ঈদের তারিখ ঘোষণায় সম্মতি দিয়েছেন।

‘কিপার অব দ্য রুলারস সিল’র ভাষণটি স্থানীয় টেলিভিশনগুলোতে সম্প্রচার করা হয়।

শনিবার ঈদ হওয়ায় এ বছর একদিন বেশি ছুটি পাচ্ছেন দেশটির বাসিন্দারা। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন, শনিবার ঈদ হলেও শুক্রবার থেকেই শুরু হবে সরকারি ছুটি। আর ঈদের দ্বিতীয় দিনের ছুটি রোববারে পড়ায় সেটি পাওয়া যাবে সোমবার।

এদিকে, মালয়েশিয়ার মতো মধ্যপ্রাচ্যের ১৩টি আরব দেশের ২৫ জন জ্যোতির্বিদ্যা বিশেষজ্ঞ যৌথভাবে এক বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার চাঁদ না দেখতে পাওয়ার এই ঘোষণা দিয়েছেন।

আইএসির বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এটি উল্লেখ করা গুরুত্বপূর্ণ যে, চাঁদ দেখার বিষয়টি আমাদের সম্মানিত পণ্ডিতদের মধ্যে আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে এবং আমাদের মুসলিম পূর্বপুরুষরা ব্যবহারিক পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে অর্ধচন্দ্র দেখার জন্য বেশ কয়েকটি মানদণ্ড স্থাপন করেছিলেন। এই মানগুলো আজও কঠোরভাবে অনুসরণ করা হয় এবং সেগুলো খালি চোখে চাঁদ দেখার সম্ভাবনা নির্ধারণে নির্ভুলতার জন্য সুপরিচিত।

প্রকৃতপক্ষে, পুরোনো এবং নতুন সব মানদণ্ড বলছে, আরব বিশ্ব থেকে বৃহস্পতিবার খালি চোখে চাঁদ দেখা সম্ভব নয়। এই প্রত্যাশা কোনো ব্যক্তি বা দলের মতামত নয়, বরং এটি বিশেষজ্ঞদের ঐকমত্য।

সব বৈজ্ঞানিক মানদণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা উল্লেখ করতে চাই, বৃহস্পতিবার আরব বা ইসলামিক বিশ্বে খালি চোখে অর্ধচন্দ্র দেখা সম্ভব নয়, এমনকি টেলিস্কোপ ব্যবহার করেও সম্ভব নয়।

আমিরাতভিত্তিক সংস্থাটি বলেছে, যেসব দেশে খালি চোখেই চাঁদ দেখা যায় বা এশিয়ার দেশগুলো, যারা টেলিস্কোপ দিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে; ধারণা করা হচ্ছে, সেসব জায়গায় রমজান মাস ৩০ দিন হবে এবং ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে শনিবার (২২ এপ্রিল)।

তবে এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে চাঁদ দেখা যাওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। এ বছর এই দুই দেশ সৌদি আরবের সঙ্গে রোজ শুরু করে।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে