শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭

অনলাইনে প্রেমের সম্পর্ক, বিয়ে করে জঙ্গিবাদে জড়ায় জান্নাত

অনলাইনে প্রেমের সম্পর্ক, বিয়ে করে জঙ্গিবাদে জড়ায় জান্নাত

আত্মসমর্পণকারী ৯ জঙ্গির মধ্যে নারী জঙ্গি আবিদা জান্নাত আসমা বলেছেন, ‘২০১৯ সালে আমি এসএসসি পাস করি। তার আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক ব্যক্তির সাথে পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরিবারকে না জানিয়ে তার সাথে অনেক জায়গায় দেখা করতাম। ২০১৮ সালে পরিবারকে না জানিয়ে তাকে বিয়ে করি। এসএসসি পাসের পর পরিবারের কাউকে না জানিয়ে পড়াশোনার জন্য বিদেশে যাই। সে-ও আমার সাথে যায়। এটা তার (স্বামী) পরিকল্পনা ছিল।’

বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে র‍্যাব সদর দফতরে জঙ্গি আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠান “নব দিগন্তের পথে” অনুষ্ঠানে জঙ্গিবাদ থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে নিজের সহানুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রাণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

নারী জঙ্গি আবিদা জান্নাত আসমা বলেন, ‘৬ মাস পর আবার দেশে ফিরে আসি। এরপর দেশের বিভিন্ন জায়গায় পালিয়ে থাকি। মূলত এই সময়ে জানতে পারি, আমার স্বামী জঙ্গি সংগঠনের সাথে জড়িত। সে-ও আমাকে তার কাজে সহযোগিতা করতে বলে। তার কাজে সাহায্য করতে বলে। তার মাধ্যমে কনভিন্স হয়ে আমিও জঙ্গিবাদে জড়িয়ে যাই। কিন্তু আমি যে ভুল পথে পা বাড়িয়েছি তা ধীরে ধীরে বুঝতে পারি।’

তিনি বলেন, ‘একটি স্বাভাবিক জীবন বাবা মায়ের আদর স্নেহ ভালোবাসা সবকিছু ছেড়ে বস্তি ও বন্দির জীবন যাপন করতে হয়। যে মানুষটি ভালোবেসে স্বপ্ন দেখিয়ে আমাকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয় সে-ও কষ্টের জীবন যাপন করছিল। সমাজ ও পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে কষ্টের জীবন বেছে নিতে হয়।’

আবিদা জান্নাত বলেন, ‘এর থেকে পরিত্রাণ পেতে আমি র‍্যাবের কাছে আত্মসমর্পণের সিদ্ধান্ত নিই। এক পর্যায়ে আমি পালিয়ে এসে একাই র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করি। ধন্যবাদ র‍্যাবকে। আমার স্বামীকেও আত্মসমর্পণ করার জন্য আহ্বান করছি।’

সব শেষে জান্নাত বলেন, ‘আমাদের কাউকে যেন ফাঁদে পড়তে না হয়। নিজের যেন একটা জাজমেন্ট থাকে। আমরা নিজেরা যেন জাজ করতে পারি। অন্যদের কথা যেন আমরা অন্ধভাবে বিশ্বাস না করি।’

এরআগে, জঙ্গি দমনে সবচেয়ে সফল পুলিশের এলিট ফোর্স র‍্যাবের সহযোগিতায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে ফুল দিয়ে আজ আত্মসমর্পণ করে ৯ জঙ্গি সদস্য।

আত্মসমর্পণকৃত ৯ জঙ্গিকে ‘ডি-র‌্যাডিক্যালাইজেশন’ অ্যান্ড ‘রিহ্যাবিলিটেশন’র মাধ্যমে সন্ত্রাস ও চরমপন্থার জীবন পরিত্যাগ করে শান্তি ও আলোর পথে তথা সমাজের মূলধারায় নিজেদের সমর্পণ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) র‍্যাব সদর দফতরের শহীদ লে. কর্নেল আজাদ মেমোরিয়াল হলে “নব দিগন্তের পথে” শীর্ষক একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

যাযাদি/ এমএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে