বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪৩০
walton

মাঠে নামছে হেফাজতে ইসলাম, কর্মসূচি ঘোষণা

যাযাদি ডেস্ক
  ২৫ অক্টোবর ২০২৩, ১৩:৫৫

এবার মাঠে নামছে বাংলাদেশ হেফাজতে ইসলাম । আটক নেতাদের মুক্তির দাবিতে নানা কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামার ঘোষণা দিয়েছে দলটি। এসব কর্মসূচি পালনের পর যদি কারাবান্দি নেতাদের মুক্তি দেয়া না হয়, তাহলে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। আগামী তিন মাসের মধ্যে সব কমিটি গঠন করে ঘোষিত ৭ দফা দাবি আদায়ে সরকারকে বাধ্য করা হবে বলে সম্মেলনে ঘোষণা দেয়া হয়।

জানা যায়, গ্রেপ্তার সব নেতাকর্মীদের মুক্তি ও সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করার জন্য সাত দাবি ও তিন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। আজ বুধবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক সম্মেলনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

হেফাজতে ইসলামের নেতা মাওলানা মামুনুল হক, মুনির হুসাইন কাসেমিসহ হেফাজতের কারাবন্দি সব নেতাকর্মীদের মুক্তি, ২০১৩ সাল থেকে এখন পর্যন্ত হেফাজত নেতাকর্মীদের নামে দায়ের হওয়া সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং হেফাজতের ১৩ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে এই ওলামা মাশায়েখ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরীর সভাপতিত্বে ওলামা মাশায়েখ সম্মেলনের ঘোষণাপত্র পাঠ করেন হেফাজতের মহাসচিব মাওলানা সাদিকুর রহমান।

ঘোষণা পত্রে ফিলিস্তিনে ইহুদিবাদী ইসরাইলের হামলা ও নির্বিচারে নিরীহ নারী-শিশু ও পুরুষদের হত্যার তীব্র নিন্দা জানানো হয়। সেই সঙ্গে ইসরাইলের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করার কথা বলা হয়। আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে গ্রেপ্তার সব নেতাকর্মীদের মুক্তি দেওয়ার কথা বলা হয়।

আমিরের লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান আল্লামা আজিজুল হক ইসলামাবাদী। অন্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য দেন সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি খলিল আহমদ কাসেমী, কেন্দ্রীয় নেতা মাহফুজুল হক, সালাহউদ্দিন (পীর সাহেব নানুপুর) উবায়দুল্লাহ ফারুক, ইসমাইল নূরপুরী, আবদুর রব ইউসুফী, মুফতি মুবারক উল্লাহ, মিজানুর রহমান সাঈদ, মুসতাক আহমদ, নাজমুল হক হাক্কানি, জুনায়েদ আল হাবিব, খুরশিদ আলম কাসেমি, মাওলানা মুহিউদ্দীন রাব্বানী, সাব্বির আহমদ রশিদ, মঞ্জুরুল ইসলাম আফিন্দী, মাওলানা আনোয়ারুল করিম, মুফতি সাখাওয়াত হোসাইন রাজি, আব্দুল কাইয়ুম সুবহানি, আব্দুল হামিদ (পীর সাহেব মধুপুর), আব্দুল কাদের, মুফতি বশিরুল্লাহ, জহুরুল ইসলাম, আহমদ আলী কাসেমী, নাজমুল হোসাইন কাসেমী, জালাল উদ্দিন আহমদ, আব্দুল কুদ্দুস কাসেমী, নায়েবে আমির মাওলানা আইনুল বাবুনগরী, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মাওলানা এয়াকুব ওসমান, মীর ইদ্রিস প্রমুখ।

সদ্য কারামুক্ত নেতা নূর হোসাইন নূরানি বলেন, আল্লাহ যদি কারো বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন তাহলে কিন্তু বংশে বাতি দেওয়ার কেউ থাকবে না। অবিলম্বে মাওলানা মামুনুল হককে মুক্তি দিতে হবে।

মামুনুল হকের ছেলে ইমামুল হক বলেন, হেফাজতে ইসলাম যে আয়োজন করেছে সেজন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।

যেসব কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে

১. আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে কারাবন্দি হেফাজতের সব নেতাকর্মীর মুক্তি ও হেফাজত নেতাকর্মীদের নামে দায়ের করা সব মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

২. আগামী ৩ মাসের মধ্যে সারা দেশে হেফাজতে ইসলামের জেলা, উপজেলা ও মহানগর কমিটি গঠন করা হবে।

৩. আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে চট্টগ্রাম, সিলেট, বি.বাড়িয়া, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরে শানে রেসালাত সম্মেলন করা হবে। পর্যায়ক্রমে অন্য সকল জেলাতেও অনুষ্ঠিত হবে।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
shwapno

উপরে