সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯
walton1

সংবাদ সংক্ষেপ

নতুনধারা
  ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০০:০০
মুকাররম তারিন
ওমরাহ করতে মোটর সাইকেলে চড়ে সৌদি আরবের পথে ম যাযাদি ডেস্ক পাকিস্তানের নাগরিক মুকাররম তারিনের জন্য মোটর সাইকেলে করে এক দেশ থেকে আরেক দেশে যাওয়াটা নতুন কিছু নয়। গত ৩০ বছরে মোটর সাইকেলে করে এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশে ভ্রমণ করেছেন তিনি। তারিন সিদ্ধান্ত নেন, চলতি বছর মোটর সাইকেলে করে সৌদি আরবের মক্কায় যাবেন। সেখানে ওমরাহ পালন করবেন তিনি। পরিকল্পনা অনুযায়ী, নিজের ক্লাব ক্রস রুটের আরও ২৪ সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে সম্প্রতি মোটর সাইকেলে করে পাকিস্তান থেকে সৌদি আরবের পথে যাত্রা শুরু করেন তারিন। ১৫ দিনে আড়াই হাজার কিলোমিটারের বেশি পথ পাড়ি দিয়ে সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহতে পৌঁছান ২৫ মোটর সাইকেল আরোহী। সেখানে চার দিনের বিরতি নেন তারা। ওই সময় মুকাররম তারিনের সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে খালিজ টাইমস। সাক্ষাৎকারে তারিন বলেন, সম্প্রতি তারা পাকিস্তানের লাহোর থেকে যাত্রা শুরু করেন এবং তাফতান সীমান্ত দিয়ে ইরানে প্রবেশ করেন। এরপর তারা ইরানের বাম নগরী হয়ে বন্দর আব্বাসে যান এবং ফেরিতে করে শারজাহ পৌঁছান। সেখানে বেশ আতিথেয়তা পান তারা। তারিন বলেন, 'শারজাহর বাসিন্দারা আমাদের বিশাল অভ্যর্থনা জানিয়েছে। আমরা এখানে পৌঁছানোর পর এখানকার মানুষ আমাদের ফল, চা এবং স্ন্যাকস খাইয়েছেন। এমনকি তাদের অনেকে মধ্যাহ্নভোজ ও নৈশভোজ করার জন্যও আমাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।' শুরুতে ২০১৯ সালে মোটর সাইকেলে মক্কা সফরের পরিকল্পনা করেছিল দলটি। তবে বিশ্বজুড়ে বিধিনিষেধের কারণে তখন আর ভ্রমণ সম্ভব হয়নি। ছয় মাস আগে আবারও মক্কা সফরের পরিকল্পনা করা হয়। এরপর যাত্রাপথে যেসব দেশ ভ্রমণ করতে হবে, সেগুলোর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে তারা। প্রয়োজনীয় সব ধরনের নথিপত্র সংগ্রহ করেন। তারিন বলেন, মোটর সাইকেলে করে দিনে প্রায় ৪০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিচ্ছেন তারা। সূর্যাস্তের আগেই তারা গন্তব্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করেন। মক্কায় ওমরাহ শেষে ইরান হয়ে পাকিস্তানে ফিরবে দলটি। যাত্রাপথে জর্ডান ও ইরাকেও সফর করবে তারা। এই মোটর সাইকেল আরোহী দলকে পাকিস্তান থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাওয়ার পথে বেশকিছু বিপত্তিতে পড়তে হয়েছে। তুষারপাত এবং ধূলিঝড়ের মতো বৈরী আবহাওয়ার কবলেও পড়তে হয়েছে তাদের। মাঝরাতে প্যারিসের আলো কেন নিভিয়ে দেওয়া হয় ম যাযাদি ডেস্ক একই সঙ্গে শরীর চর্চা ও পরিবেশ সংরক্ষণে কাজ করে যাচ্ছেন ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের একদল ক্রীড়াবিদ। তারা জ্বালানির অপচয় কমাতে কাজ করছেন। তারা রাতে দেয়াল বেয়ে উঠে দোকানের শোকেস ও বিজ্ঞাপনের হোর্ডিংয়ের বাতি নিভিয়ে দেন। তাদের এমন কাজে পৌর কর্তৃপক্ষেরও সমর্থন আছে। পরিবেশ সংরক্ষণের লক্ষ্যে প্যারিসের 'অন দ্য স্পট পার্কুর' নামে একটি সংগঠনের সদস্যরা এ কাজ করছেন। এ সংগঠনের সদস্য ক্রীড়াবিদরা সহজেই রাতে দেওয়াল বেয়ে ওঠে দোকানের শোকেস ও বিজ্ঞাপনের হোর্ডিংয়ের বাতি নিভিয়ে দেন। পার্কুর সদস্য এমেরিক কোতঁ্যা এ উদ্যোগ সম্পর্কে বলেন, 'জ্বালানির অপচয় এড়াতেই আমরা এ কাজ করি।' মনে রাখতে হবে, বিশ্বের জনসংখ্যা ৮০০ কোটির বেশি। সবাই যদি ছোট ছোট পদক্ষেপ নেয়, তাহলে আমরা সবাই মিলে অনেক পরিবর্তন আনতে পারি। সেটাই আমাদের বার্তা। কাজটা করতেও ভালো লাগে। আমরা চ্যালেঞ্জ ভালোবাসি এবং সন্ধ্যাটা সুন্দর কাটে। সেটাই সবচেয়ে বেশি জরুরি।' ২০২০ সাল থেকে ওই সংগঠনের সদস্যরা রাত একটা নাগাদ প্যারিসের কেন্দ্রস্থলে মিলিত হন। তারপর তারা চারপাশে ছড়িয়ে পড়েন। তবে সেই প্রক্রিয়ায় কিছু নিয়ম মেনে চলেন তারা।
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে