logo
বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০  

প্রার্থনার আহ্বান

বরিসের সুস্থ হতে এক-দুই মাস সময় লাগবে

বরিস যোদ্ধা, তাড়াতাড়ি সেরে উঠবেন :রাব দেশটিতে করোনায় মৃতু্য ৬ হাজার ছাড়িয়েছে

বরিসের সুস্থ হতে এক-দুই মাস সময় লাগবে
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) দ্বিতীয় দিন পার করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বিষেশজ্ঞরা বলছেন, যদি তিনি এখন সেরে উঠেনও তাহলেও সম্পূর্ণ সুস্থ হতে এক থেকে দুই মাস সময় লাগতে পারে। এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতার জন্য সবাইকে প্রার্থনা করার আহ্বান জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম। সংবাদসূত্র : ডেইলি মেইল

এ ছাড়া আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে একজন 'যোদ্ধা' হিসেবে বর্ণনা করে তিনি দ্রম্নত সেরে উঠবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাব। বরিস জনসন হাসপাতালে থাকায় তার ডেপুটি হিসেবে সরকার পরিচালনার দায়িত্ব আপাতত রাবের হাতে।

প্রধানমন্ত্রীর অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে এবং তিনি ভেন্টিলেটর ছাড়াই শ্বাস নিতে পারছেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাব। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আইসিইউতে থাকার কারণে বেশ কিছুদিন তিনি কার্যত অচল থাকবেন। তাই তার পেশিশক্তি হ্রাসসহ শরীরের কার্যক্ষমতা উলেস্নখযোগ্য হারে কমবে।

লন্ডনের সেন্ট থমাস হাসপাতালে বরিস জনসনের চিকিৎসা চলছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে ভাইরাসটির সঙ্গে লড়াইয়ের পর প্রাণে বেঁচে যাওয়া মানুষজন তাদের অভিজ্ঞতা থেকে বলেছেন, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে কয়েক সপ্তাহ সম্পূর্ণ বিশ্রামে থাকতে হবে।

তাই বরিস জনসন সুস্থ হলেও সরকারপ্রধান হিসেবে কাজে ফিরতে হলে তাকে এই সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এদিকে, ধারণা করা হচ্ছে, এর মধ্যে যুক্তরাজ্যে করোনার সংক্রমণ সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছাবে। আর এই সংকটে দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ হয়তো পাবেন না গত ডিসেম্বরে নির্বাচিত এই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

মঙ্গলবার এক প্রেস কনফারেন্সে ডোমিনিক রাব অবশ্য বলেন, 'তিনি শুধু আমাদের প্রধানমন্ত্রী কিংবা বস নন, তিনি আমাদের সহকর্মী এবং বন্ধু। প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারের জন্য আমরা সবাই প্রার্থনা করছি। আমার বিশ্বাস, তিনি তাড়াতাড়ি সেরে উঠবেন। আমি একটি জিনিস বিশ্বাস করি, তিনি একজন যোদ্ধা।'

গত ২৭ মার্চ বরিস জনসনের দেহে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হওয়ার ১০ দিন পর গত রোববার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরিস্থিতির অবনতি হলে পরদিন সন্ধ্যায় তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। জাতীয় জরুরি অবস্থার মধ্যে একজন প্রধানমন্ত্রীকে আইসিইউতে স্থানান্তর করার ঘটনা নজিরবিহীন। আইসিইউতে তাকে অক্সিজেন সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ১০নং ডাউনিং স্ট্রিট।

এদিকে, যুক্তরাজ্যে একদিনে করোনাভাইরাসে রেকর্ডসংখ্যক প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গবার দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৮৫৪ জনের মৃতু্য হয়েছে।

এ ছাড়া আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৫ হাজার ৯৪৯। এরমধ্যে ৬ হাজার ১৭১ জনের মৃতু্য হয়েছে। চিকিৎসা গ্রহণের পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩২৫ জন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে