চীনে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, স্থগিত 'উহান ম্যারাথন'

চীনে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, স্থগিত 'উহান ম্যারাথন'

চীনে নতুন করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় 'দ্য উহান ম্যারাথন' ইভেন্ট স্থগিত করতে বাধ্য হয়েছে আয়োজক কমিটি। বেইজিং ২০২২ শীতকালীন অলিম্পিক ও প্যারালিম্পিকের আগে এই বিগ ম্যারাথানের আয়োজন হয়ে থাকে। কিন্তু রোববার এক নোটিশে তা স্থগিত করা হয়েছে। সংবাদসূত্র : রয়টার্স

দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের মুখপাত্র মি ফেং সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, চীনের সাম্প্রতিক প্রাদুর্ভাব আরও বৃদ্ধি পাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। দেশের ১১ প্রদেশে এক সপ্তাহে শতাধিক সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এটি আরও ছড়িয়ে পড়তে পারে।

রোববার চীনে নতুন করে ২৬ জন করোনাভাইরাসে শনাক্ত হয়েছেন। দেশটিতে যখন কোভিড সংক্রমণ শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনার চেষ্টা চলছে, তখনই সংক্রমণ বাড়ার চিত্র লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ভাইরাসের লাগাম টানতে গণহারে কোভিড পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

উহান ম্যারাথন আয়োজক কমিটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতেই এই ইভেন্ট স্থগিত করা হয়েছে। অবশ্য গত সপ্তাহেই কমিটির পক্ষ থেকে এমন আভাস দেওয়া হয়েছিল। চীনের রাষ্ট্রীয় সংবামাধ্যম 'সিনহুয়া'র তথ্যমতে, স্থগিত হওয়া ম্যারাথন ইভেন্টের

দৌড়ে এবার ২৬ হাজার প্রতিযোগীর অংশ নেওয়ার কথা ছিল। কমিটির জানিয়েছে, যেসব প্রতিযোগী সফলভাবে নিবন্ধন করেছিলেন, তাদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে।

এদিকে, বেইজিং ২০২২ শীতকালীন অলিম্পিকের বাকি আর মাত্র ১০০ দিন। সংক্রমণ বাড়তে থাকলে এই মেগা ইভেন্টও ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে।

৭৬ শতাংশ মানুষকে টিকার

পূর্ণ ডোজ দিয়েছে চীন

চীনের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৭৫ দশমিক ছয় শতাংশকে করোনাভাইরাসের টিকার পূর্ণ ডোজ দেওয়া হয়েছে। শনিবার পর্যন্ত দেশটির সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষকে টিকার পূর্ণ ডোজের আওতায় আনা হয়েছে জানিয়ে রোববার এ পরিসংখ্যান তুলে ধরেছেন চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের মুখপাত্র মি ফেং।

বেইজিংয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে ফেং বলেন, চীনের মোট ১৪১ কোটি ২০ লাখ মানুষের মধ্যে এখন পর্যন্ত ১০৬ কোটি ৮০ লাখ জনকে টিকার প্রয়োজনীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে। দেশটির সরকারি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত করোনাভাইরাসের টিকার ২২৪ কোটি ৫০ লাখ ডোজ প্রয়োগ করেছে চীন।

প্রয়োজনীয় কর্মী, বয়স্ক এবং দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার লোকজনসহ ঝুঁকিপূর্ণ গোষ্ঠীর যে পূর্ণ বয়স্ক সদস্যরা সর্বশেষ ছয় মাস আগে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছিলেন; চীন বর্তমানে তাদের বুস্টার ডোজ দিচ্ছে। সরকারি তথ্য-উপাত্তে দেখা যায়, দেশটিতে ব্যাপক ব্যবহৃত সিনোভ্যাক এবং সিনোফার্মের টিকার অ্যান্টিবডি কয়েক মাসের মধ্যে হ্রাস পাচ্ছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে