বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

আটঘরিয়ায় সমলয় পদ্ধতিতে চাষাবাদ

পাবনা প্রতিনিধি
  ০৪ মার্চ ২০২৩, ০০:০০
পাবনায় সমলয় পদ্ধতিতে চাষবাদ করছেন কৃষক -যাযাদি

পাবনার আটঘরিয়ায় সমলয় চাষাবাদ পদ্ধতিতে বস্নক প্রদর্শনীর 'রাইস ট্রান্সপস্নান্টার' যন্ত্রের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ উদ্বোধন করা হয়েছে। এ পদ্ধতিতে চাষাবাদে কম সময়ে, কম খরচে, অধিক ফলন পাবেন কৃষকরা। বৃহস্পতিবার উপজেলার কুষ্টিয়াপাড়া গ্রামে এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে এর উদ্বোধন করেন আটঘরিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাকসুদা আক্তার মাশুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কৃষি প্রকৌশলী সুমন চন্দ্র কুন্ডু, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সজিব আল মারুফ, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শরীফুল ইসলাম।

আটঘরিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে এবং উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা আব্দুস সালামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত কৃষক বিপস্নব কুমার সেন। এ সময় অনুষ্ঠানে কৃষক, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সজিব আল মারুফ জানান, ২০২২-২৩ অর্থ বছরে প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় সমলয় পদ্ধতিতে যন্ত্রের মাধ্যমে রবি মৌসুমে বোরো হাইব্রিড ধানের চারা রোপণ করা হবে। কুষ্টিয়াপাড়া গ্রামের ৬৪ জন কৃষকের ১৫০ বিঘা জমিতে এই পদ্ধতিতে চাষাবাদ করা হবে। এর আগে এই প্রদর্শনীতে যন্ত্রের মাধ্যমে বীজতলা তৈরি করে সেখানে ট্রেতে চারা উৎপাদন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এই পদ্ধতিতে যন্ত্রের মাধ্যমে ২৫/৩০ দিনে চারা উৎপাদন করা যায়। আগে যেখানে ৪৫/৫০ দিন লাগত। অল্প খরচে, কম সময়ে, বেশি ফলন উৎপাদন করা যাবে। শ্রমিক সংকটে কৃষককে আর নাজেহাল হতে হবে না। এর মাধ্যমে ২০ থেকে ২৫ ভাগ ফলন বৃদ্ধি পাবে।

কৃষি প্রকৌশলী সুমন চন্দ্র কুন্ডু বলেন, খামার যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পের আওতায় এই পদ্ধতিতে চাষাবাদের মাধ্যমে উৎপাদন খরচ কমবে, পাশাপাশি অপচয় রোধ হবে। বর্তমানে শ্রমিক সংকট ও শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধি কৃষকদের অন্যতম সমস্যা।

তিনি বলেন, সনাতন পদ্ধতিতে আগে এক বিঘা জমিতে চারা রোপণে ৪/৫ জন শ্রমিক লাগত। ২৫শ' থেকে ৩ হাজার টাকা খরচ হতো।

এখন মাত্র এক ঘণ্টায়, এক লিটার তেল খরচে কৃষক তার এক বিঘা জমিতে সঠিক মাপে, সঠিক গভীরে সহজেই চারা রোপণ করতে পারবেন। এজন্য সময়মতো ফসল উৎপাদনে যন্ত্রের ব্যবহার বাড়াতে হবে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে