সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শেষ সময়ে জমেছে ঈদবাজার

স্বদেশ ডেস্ক
  ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ০০:০০
সিলেটের বিপনিবিতানে শেষে মুহূর্তে কেনাকাটায় ব্যস্ত ক্রেতা-দোকানিরা -যাযাদি

শেষ সময়ে জমে উঠেছে ঈদের বাজার। তবে দিনের চেয়ে রাতে কেনাকাটার ধুম পড়ে। এ সময় বিক্রেতারা কথা বলারও ফুরসত পান না। আঞ্চলিক অফিস ও প্রতিনিধির পাঠানো খবরে বিস্তারিত-

সিলেট অফিস জানায়, সিলেটে প্রতি বছর শেষ সময়ে জমে উঠে ঈদের বাজার। ঈদের বাজারে নানা নামের পোশাক পাওয়া যাচ্ছে। সিলেটে এবার বেচাকেনা ভালো হলেও বিপুল সংখ্যক মানুষ কানাডায় পারি জমানোয় তাদের বাজেট কমে এসেছে। তবুও ব্যবসায়ীরা আশাবাদী, শেষ সময়ে সিলেটের ঈদের কেনাকাটায় পুষিয়ে নিতে পারবেন।

ঈদের শেষ সময়ে সিলেটে ক্রেতাদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে বিপণিবিতান, মার্কেট থেকে অলিগলি। শেষ সময়ে ক্রেতাদের ভিড় বাড়ার অন্যতম কারণ পোশাকের দাম নেমে আসা। সিলেটে ঈদের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে নানা নামের পোশাক। চিকেন, কারজালাসহ অনেক মজার নাম রয়েছে বলে জানান বিক্রেতারা।

সন্ধ্যার পর থেকে ভোররাত পর্যন্ত ক্রেতাদের আনাগোনায় মুখর হয়ে ওঠে সিলেটের শপিংমলগুলো। নিজের পছন্দের পোশাক কেনার পাশাপাশি পরিবারের অন্য সদস্যদের পোশাকটাও কিনে নিচ্ছেন ক্রেতারা।

সিলেট মহানগর ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহমান রিপন বলেন, সিলেটে এ বছর বিপুলসংখ্যক মানুষ কানাডা গেছেন। বিদেশ যেতে এসব পরিবার বিপুল টাকা খরচ করেছে। যে কারণে ঈদের কেনাকাটায় তাদের বাজেট কম।

তিনি জানান, গত রোববার থেকে মার্কটে ক্রেতা সমাগম বেশ ভালোই বেড়েছে। বিক্রিও ভালো হচ্ছে। শেষ সময়ের বিকিকিনিতে পুষিয়ে নিতে পারবেন ব্যবসায়ীরা।

লাখাই (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি জানান, চাঁদ দেখা গেলেই উদযাপিত হতে যাচ্ছে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। আসন্ন রোজার ঈদকে কেন্দ্র করে এরই মধ্যে লাখাই উপজেলার মফস্বলের হাট-বাজার গুলো এখন ক্রেতাদের পদভারে মুখরিত। শেষ সময়ে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা। সকাল থেকে সন্ধার পর পর্যন্ত উপজেলার হাট-বাজারের মার্কেটগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় লেগেই আছে।

পোশাক, প্রসাধনী ও জুতার দোকানগুলোতে উপচেপড়া ভিড়। তাদের মধ্যে অধিকাংশই নারী। দাম যেমনই হোক ক্রেতারা ক্রয় করছে স্বাচ্ছন্দ্যে।

ঈদের কেনাকাটায় ব্যস্ত হাওড় বেষ্টিত জনপদের মানুষ। বাজারের আনাচে কানাচে দেখা মিলছে মৌসুমি ব্যবসায়ীদের, যেখানে মিলছে টুপি, আতর, সুরমা সহ বিভিন্ন ধরনের মেহদি - সুগন্ধি ও প্রশাধনী সামগ্রী।

এদিকে ঈদ কেন্দ্র করে বাড়িঘরে পিঠাও সেমাইয়ের বাড়তি কদর থাকায় হাটবাজারে সয়লাভ হয়েছে ভেজাল গুড় ও নিম্নমানের খোলা সেমাইয়ের। পাশাপাশি বিক্রি বেড়েছে মাংস জাত মসলাপাতির।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে