সংবাদ সংক্ষেপ

সংবাদ সংক্ষেপ

জালিয়াতির অভিযোগ

ঢাবির ১২ শিক্ষার্থী স্থায়ী ও ১৫১ জন অস্থায়ী বহিষ্কার

ম যাযাদি ডেস্ক

ডিজিটাল জালিয়াতি ও অবৈধ পন্থায় ভর্তিসহ বিভিন্ন অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ১২ জন শিক্ষার্থীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়া পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে ১৫১ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

রোববার নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের এক সভায় শৃঙ্খলা পরিষদের সুপারিশ অনুযায়ী বহিষ্কারের এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সিন্ডিকেটের সভায় সভাপতিত্ব করেন।

বুয়েট ভর্তি পরীক্ষা ১০ জুন

ম যাযাদি রিপোর্ট

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ভর্তি পরীক্ষা ১০ জুন অনুষ্ঠিত হবে। বুয়েটের অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বুয়েটের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এ বছর চূড়ান্ত পরীক্ষার আগে ভর্তিচ্ছুদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেওয়া হবে। যা এবারই প্রথম। প্রাথমিক বাছাই পর্বের সেই পরীক্ষা হবে মে মাসের শেষ সপ্তাহে। বেশিরভাগ শিক্ষার্থীকে সুযোগ দিতেই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ভর্তি কমিটি ঢাকার বাইরে পরীক্ষা কেন্দ্র রাখার প্রস্তাব করলেও একাডেমিক কাউন্সিল তা নাকচ করে দিয়েছে।

সাত কলেজের ২৫ শিক্ষার্থীর ফল পরিবর্তন

ম যাযাদি রিপোর্ট

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের ২০১৮ সালের অনার্স চতুর্থ বর্ষের পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ৫১৩ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ২৫ জনের ফল পরিবর্তন হয়েছে। রোববার সাত কলেজের নিজস্ব ওয়েবসাইটে এ-সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রকাশিত ফলাফলে রসায়ন বিভাগের আটজন, ইংরেজি বিভাগের পাঁচজন, গণিত বিভাগের পাঁচজন, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের তিনজন, বাংলা বিভাগের একজন, দর্শন বিভাগের একজন, হিসাববিজ্ঞান বিভাগের একজন এবং ব্যবস্থাপনা বিভাগের একজন শিক্ষার্থীর ফলাফল পরিবর্তন হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজ হচ্ছে- ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজ ও মিরপুর বাঙলা কলেজ।

শিক্ষা বাজেট

বাড়ানোর তাগিদ বিশ্বব্যাংকের

ম যাযাদি রিপোর্ট

করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে শিক্ষা বরাদ্দ কমিয়েছে বিশ্বের ধনী-দরিদ্রসহ প্রায় সব দেশ। এ অবস্থাকে আশঙ্কাজনক বলে অভিহিত করে বিশ্বব্যাংক বলছে, এর ফলে ঘোষিত ও নির্ধারিত সময়ের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন পিছিয়ে যেতে পারে। তাই বাজেটে শিক্ষা খাতে বরাদ্দ বাড়াতে তাগিদ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিশ্বব্যাংক বলছে, করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর ৬৫ শতাংশ নিম্ন ও নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ তাদের শিক্ষা খাতে বরাদ্দ কমিয়েছে। শুধু নিম্ন ও নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশগুলো নয়, উচ্চ ও উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশও শিক্ষা বরাদ্দ কমিয়েছে। বিশ্বের ৩৩ শতাংশ দেশ করোনার পর শিক্ষায় বাজেট কাটছাঁট করেছে। বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে এমন দাবি করে বলা হয়, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে শিক্ষায় যে পরিমাণ সরকারি ব্যয় প্রয়োজন, নিম্ন ও নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে ব্যয় বর্তমানে এর চেয়ে কম।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শিক্ষা ব্যয়ে করোনা মহামারির স্বল্প মেয়াদে প্রভাব বোঝার জন্য সব অঞ্চলের ২৯ দেশের তথ্য সংগ্রহ করা হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে