মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১

বাবার কবরের পাশে ৩ শিশু সন্তানের কান্না

হাজীগঞ্জ প্রতিনিধি
  ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১২:২৬
বাবার কবরের পাশে ৩ শিশু সন্তানের কান্না

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বাবার সামনে দুই ভাইয়ের মারামারি, চিকিৎসাধীন অবস্থা ছোট ভাইয়ের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। ২ই সেপ্টেম্বর শনিবার উপজেলার সদর ইউনিয়নের অলিপুর কবিরাজ বাড়ীর চাঁদ মিয়ার ছেলে অটো চালক জুয়েল (৩২) এর মৃত্যুর খবরে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

ঘটনার বিবরনে জানা যায়, গত প্রায় ১২ দিন আগে অলিপুর কবিরাজ বাড়ির চাঁদ মিয়ার দুই ছেলে জুয়েল (৩২) ও শাহিন আলম (৩৫) তাদের বাড়ির পুকুরের মাছ নিয়ে ঝগড়া লাগে।

একপর্যায়ে দুই ভাই বাবার সামনে গিয়ে তুখোর মারামারি করে উভয়ই রক্তাক্ত যখমপ্রাপ্ত হয়। পরে বাড়ীর লোকজন দুই ভাইকে উদ্ধার করে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। ছোট ভাই জুয়েলের অবস্থা বেগতিক দেখে পরবর্তী ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়। ১লা সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে চিকিৎসারত অবস্থা ছোট ভাই জুয়েলের মৃত্যু হয়। গোপনে শুক্রবার রাতে বসতঘরের পাশে নিহত জুয়েলকে মাটি দেওয়া হয়।

শনিবার সকালে নতুন কবর দেখে বাড়ী ও আশপাশের মানুষ দেখতে ভিড় জমায়। নিহত অটোরিকশা চালক জুয়েলের স্ত্রী হনুফা বেগম বলেন, তারা আমার আর সন্তানদের দায়িত্ব নিবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ে থানা পুলিশকে এ ঘটনা না জানাতে বলেছে। কিন্তু শাশুড়ী আমাকে বের করে দিবে বলে আজকেই হুমকি দিয়েছে। এখন আমার ছোট তিন ছেলে মামুন, জাহিদ ও জিহাদের কি হবে। মৃত্যুর আগের ঘটনা স্বাভাবিক ব্যাপার বলে মন্তব্য করেন বাবা চাঁমিয়া ও বড় ভাবি ফারুল বেগম। তারা উল্টো বলছেন আমরা মনে করেছি শাহিন আলম মারা গেছে।

কারন তার অবস্থা নিহত জুয়েলের চেয়েও খারাপ ছিল। স্থানীয় ইউপি সদস্য দেলোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনাটি প্রায় দুই সপ্তাহ আগে ঘটেছে শুনেছি তবে চিকিৎসা শেষে বসে সমাধান করা হবে। কিন্তু এর মধ্যে ছোট ভাইয়ের মৃত্যু হওয়ায় এখন আর আমার বসার সুযোগ নেই। হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আব্দুর রশিদ বলেন, এমন অভিযোগ শুনিনি তবে সরেজমিনে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থার উদ্যোগ নেওয়া হবে।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে