logo
রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

বঙ্গবন্ধু বিপিএল

উদ্বোধনী টিকিটের হাহাকার

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাধারণ দর্শকরা বঞ্চিত হবেন। শুধুমাত্র ভিআইপি দর্শকদের জন্য টিকিটের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানান বিসিবি সভাপতি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন

উদ্বোধনী টিকিটের হাহাকার
নাজমুল হাসান পাপন -ফাইল ফটো
দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। এবার সেটি নাম বদলে হয়েছে বঙ্গবন্ধু প্রিমিয়ার লিগ (বিবিপিএল)। এর কারণও অজানা নয়। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিপিএলের বিশেষ আসর আয়োজন করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সবার চোখ তাই বিপিএলের দিকে। গতবারের আসরে ছিল না কোনো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এবার তাই বড় করে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে যাচ্ছে বিসিবি। যেখানে ভারতীয় নামিদামি শিল্পীদের সঙ্গে থাকবে দেশীয় শিল্পীরাও।

এরইমধ্যে টিকিটের হাহাকারও শুরু হয়ে গেছে সাধারণ দর্শকদের মধ্যে। এখন থেকেই খোঁজ নেয়া শুরু হয়ে গেছে, কোন ব্যাংক বা কখন থেকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের টিকিট বিক্রি শুরু হবে। তবে বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে যা শোনালেন তাতে সাধারণ দর্শকদের হতাশ না হয়ে উপায় নেই। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শুধুমাত্র ভিআইপি দর্শকদের জন্য টিকিটের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি, 'মাঠের ভেতরে বলতে, পিচ নষ্ট হবে এ রকম কোনো রিস্ক তো আমরা নিতে পারছি না। তাই দুই সাইডে যদি বন্ধ থাকে সে ক্ষেত্রে ভিআইপিদের জন্য কিছু ব্যবস্থা করতে পারব। তাই, সেটা নিয়ে আজকে মিটিং হয়েছে। কতজন দেখবে, কয়টা টিকিট দেয়া হবে। তবে সবমিলিয়ে ৮ হাজার দর্শকের বেশি মানুষ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখতে পারবে বলে মনে হয় না।'

সাধারণ দর্শকরা কেন বঞ্চিত হবেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখা থেকে তারও কারণ জানালেন তিনি, 'মাঠে স্টেজ দেখলাম। যেহেতু আমাদের মাঠে ভিউ নাই। তাই সাইড আর পেছন দিকে দর্শক দিতে পারছি না। এখন কতগুলো টিকিট দিতে পারব, কীভাবে কি করব সেটাই হলো বড় প্রশ্ন। কারণ আমাদের প্রাথমিক যে ধারণা ছিল সেটার থেকে অনেক কমে গেছে।'

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের টিকিটের সর্বোচ্চ মূল্য ধরা হয়েছে ১০ হাজার টাকা। ভিআইপি এই টিকিট অনুষ্ঠানের দুই দিন আগে থেকে বিক্রি করা শুরু করবে বিসিবি। এছাড়া ৫ হাজার ও এক হাজার টাকা মূল্যমানের আরও দুই ধরনের টিকিট বিক্রি করা হবে।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সে সবই দেখতে এসেছিলেন পাপন। গণমাধ্যমকে সন্তুষ্টির কথাও জানান তিনি, 'প্রস্তুতি চলছে। এখন পর্যন্ত সব ঠিকই আছে। এমন না যে, কোনো কিছু দেখে হতাশ হয়ে গেছি। আসলাম ৮ তারিখের প্রোগ্রামটার জন্যই। স্টেজের কাজ চলছে, এখানে প্রধানমন্ত্রীর জন্য আলাদা করে ব্যবস্থা করা হচ্ছে। এই জায়গাটা দেখে গেলাম। কতটুকু হবে, কতদিনে শেষ হবে, কি ধরনের মেটেরিয়ালস ইউজ হচ্ছে সব দেখলাম।'

বিসিবির সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছেন, 'আগামী ৮ ডিসেম্বর বিকাল ৫টা থেকে শুরু হবে বিবিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। চলবে রাত ১০টা পর্যন্ত। অনুষ্ঠানকে নিখুঁত করার জন্য কোনো ছাড় দেবে না বিসিবি। আশা করছি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। আমরাও দেশি ও বিদেশি শিল্পীদের নিয়ে অসাধারণ একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপহার দিতে পারব বলে আশা করছি।'

বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ও বিসিবি পরিচালক শেখ সোহেল নিশ্চিত করেছেন যে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন বলিউড সুপার স্টার সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ।

শেখ সোহেল আরও জানিয়েছেন, স্থানীয় ব্যান্ড দল জেমস ও গায়িকা মমতাজ ছয় ঘণ্টাব্যাপী এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করবেন। এর বাইরে সনু নিগাম ও কৈলাশ খেরের উপস্থিতি অনুষ্ঠানের বাড়তি মাত্রা জোগাবে বলে মনে করছে বিসিবি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপলক্ষে মিরপুরের শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে স্থাপিত হচ্ছে একটি বিশাল মঞ্চ। যেখানে পারপর্মেন্স করবেন দেশি-বিদেশি শিল্পীরা। যে কারণে আগামী দুইদিন একাডেমি মাঠে কোনো দলেরই অনুশীলনের সূচি না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটি।

সিলেট ও চট্টগ্রামেও অনুষ্ঠিত হবে বিপিএলের খেলা। সবকিছু সুচারুভাবে পরিচালনার জন্য সেখানেও প্রস্তুতিরও ধুম লেগেছে স্থানীয় আয়োজকদের মধ্যে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে