​ ভারতে করোনায় আক্রান্ত আরও আড়াই লাখ

​   ভারতে করোনায় আক্রান্ত আরও আড়াই লাখ

ভারতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় আড়াই লাখ মানুষ। সঙ্গে বেড়েছে সংক্রমণের হারও। তবে কমেছে প্রাণহানির সংখ্যা। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

বৃহস্পতিবার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪১৭ জন। যা বুধবারের তুলনায় প্রায় ৫৩ হাজার বেশি। সর্বশেষ এই পরিসংখ্যানসহ ভারতে সংক্রমিত মোট মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৬৩ লাখ ১৭ হাজার ৯২৭ জনে।

গত আট মাসের মধ্যে এই প্রথম ভারতে দৈনিক সংক্রমণ দুই লাখের গণ্ডি পার করল। এছাড়া সংক্রমণের হারও ১১ থেকে বেড়ে হয়েছে ১৩ শতাংশ। সাপ্তাহিক সংক্রমণের হারও বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ দশমিক ৮০ শতাংশে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও মৃত্যু বাড়েনি। একইসঙ্গে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যাও তুলনামূলক ভাবে কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৮০ জন। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৮৫ হাজার ৩৫ জনের।

গত কয়েক দিন ধরেই ভারতে দৈনিক সংক্রমণের হার ১০ শতাংশের ওপরেই রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় তা পৌঁছেছে ১৩ দশমিক ১১ শতাংশে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহ ধরে ভারতের মোট ২৯টি রাজ্যের অন্তত ১২০টি জেলায় সংক্রমণের হার ১০ শতাংশের ওপরেই রয়েছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাও। সর্বশেষ পরিসংখ্যানসহ ভারতে ওমিক্রনে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৪৮৮ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে। রাজ্যটিতে বৃহস্পতিবার ৪৬ হাজার ৭২৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা দিল্লিতে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ২৭ হাজার ছাড়িয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজারের বেশি।

দৈনিক সংক্রমণের বৃদ্ধির কারণেই দেশে ধীরে ধীরে ভারতে বাড়তে শুরু করেছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও। বর্তমানে দেশটিতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১১ লাখ ১৭ হাজার ৫৩১ জন। এরমধ্যে গত ২৪ ঘণ্টাতেই সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৮৪ হাজার ৮২৫ জন।

চলতি বছরের শুরুতেও ভারতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ছিল মোট আক্রান্তের ১ শতাংশেরও কম। বর্তমানে তা বেড়ে ৩ দশমিক ০৮ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। একইসঙ্গে কিছুটা কমেছে সুস্থতার হারও। বর্তমানে দেশটিতে সুস্থতার হার ৯৫ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

যাযাদি/এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে