বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

রোমানা হাবিব চৌধুরী, সহকারী শিক্ষক, ব্রাইট ফোর, টিউটোরিয়াল হোম, চট্টগ্রাম
  ৩১ মে ২০২৩, ০০:০০
পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

মানবাধিকার

প্রশ্ন : মানবাধিকার কী?

উত্তর : মানুষের ভালোভাবে বেঁচে থাকার জন্য প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার অধিকারই হলো মানবাধিকার।

প্রশ্ন : মানবাধিকার কী করতে সাহায্য করে?

উত্তর : মানবাধিকার মানুষের জীবনকে ভালোভাবে গড়ে তুলতে সাহায্য করে।

প্রশ্ন : আমাদের সমাজে কোন কোন ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের বৈষম্য করা হয়?

উত্তর : আমাদের সমাজে শিক্ষা, খাদ্য, মজুরি, চাকরির ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের বৈষম্য করা হয়।

প্রশ্ন : মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় আমাদের করণীয় কী?

উত্তর : মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় আমাদের বিভিন্ন কাজে অংশগ্রহণ করা উচিত।

প্রশ্ন : জাতিসংঘ কবে মানুষের অধিকারকে স্বীকৃতি দিয়ে মানবাধিকার সার্বজনীন ঘোষণাপত্র অনুমোদন করেছে?

উত্তর : ১৯৪৮ সালের ১০ ডিসেম্বর জাতিসংঘ মানবাধিকার সার্বজনীন ঘোষণাপত্র অনুমোদন করেছে।

প্রশ্ন : মানবাধিকার বলতে কী বোঝায়?

উত্তর : সব মানুষের সব সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার অধিকারগুলো হচ্ছে মানবাধিকার।

প্রশ্ন : শিক্ষা মানুষের কোন ধরনের অধিকার?

উত্তর : শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার।

প্রশ্ন : মানবাধিকার বাস্তবায়নে সরকার কী করতে পারে?

উত্তর : সরকার মানবাধিকার আদায়ে এবং এর উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ এবং এগুলো আইন হিসেবে রাষ্ট্রে প্রয়োগ করতে পারে।

প্রশ্ন : মানবাধিকার বাস্তবায়নে সমাজ কী করতে পারে?

উত্তর : সমাজ মানবাধিকার প্রতিটি ক্ষেত্রে ছড়িয়ে দিতে পারে। অধিকাংশ মানবাধিকার সামাজিক অধিকারের সঙ্গে সম্পর্কিত বিধায় তা সমাজ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

প্রশ্ন : মানবাধিকার বাস্তবায়নে মানুষ কী করতে পারে?

উত্তর : মানুষ মানবাধিকার বিষয়ে সচেতন হতে পারে। নিজের অধিকার উপভোগের পাশাপাশি অন্যকে অধিকার ভোগ করার সুযোগ দিতে পারে।

প্রশ্ন : মানবাধিকার আদায়ে তুমি কী করতে পার?

উত্তর : মানবাধিকার সম্পর্কে সবাইকে সচেতন করতে এবং প্রয়োগের অনুশীলন করতে পারি।

প্রশ্ন : সমাজের সদস্য হিসেবে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা আদায়ের প্রয়োজন কেন?

উত্তর : সমাজের সদস্য হিসেবে আমাদের সবার সুন্দর ও সুস্থভাবে বেঁচে থাকার অধিকার আছে। এ জন্য আমাদের কিছু সুযোগ-সুবিধা প্রয়োজন হয়।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশুদের দলে কাজ করতে কেন অসুবিধা হয়?

উত্তর : অন্যের স্পর্শে অটিস্টিক শিশুরা আঁতকে ওঠে বলে, দলে কাজ করতে তাদের অসুবিধা হয়।

প্রশ্ন : কোন কোন অটিস্টিক শিশু কী কী চমৎকার প্রতিভার অধিকারী হয়?

উত্তর : কোন কোন অটিস্টিক শিশু চমৎকার প্রতিভার অধিকারী হয় যেমন- ছবি আঁকা, অঙ্ক করা বা গান গাওয়া।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশু কোন কোন ক্ষেত্রে সংবেদনশীল থাকে?

উত্তর : অটিস্টিক শিশু আলো, শব্দ, গতি, স্পর্শ, ঘ্রাণ বা স্বাদের ক্ষেত্রে অতি সংবেদনশীল থাকে।

প্রশ্ন : কী কারণে অটিস্টিক শিশু কোনো বিশেষ ধরনের কাপড় পরতে চায় না?

উত্তর : সংবেদনশীল ত্বকের কারণে অটিস্টিক শিশু কোনো বিশেষ ধরনের কাপড় পরতে চায় না।

প্রশ্ন : কী কারণে অটিস্টিক শিশু খুবই উত্তেজিত হয়?

উত্তর : সব কাজ বা বিষয় অটিস্টিক শিশু একই নিয়মে করতে চায়। দৈনিক কাজের রুটিন বদল হলে খুবই উত্তেজিত হয়।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশুরা খেলনা নিয়ে না খেলে কী করে?

উত্তর : অটিস্টিক শিশুরা হয়তো কোনো খেলনা নিয়ে না খেলে বরং শক্ত করে ধরে বসে থাকে। গন্ধ নেয় বা ঘণ্টার পর ঘণ্টা সেগুলোর দিকে তাকিয়ে থাকে।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশু প্রবল আকর্ষণের জিনিস কী করে?

উত্তর : অটিস্টিক শিশু কোনো একটি বিশেষ জিনিসের প্রতি প্রবল আকর্ষণ থাকে এবং সব সময় সঙ্গে রাখে।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশুর প্রতি আমাদের কেমন আচরণ করা উচিত?

উত্তর : অটিস্টিক শিশুর সঙ্গে সবার মিলে-মিশে থাকা উচিত। আমরা এমন আচরণ করব না, যাতে তারা কষ্ট পায় এবং উত্তেজিত হয়।

প্রশ্ন : অনেক শিশু পরিবারের অসচ্ছলতার কারণে কোন অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়?

উত্তর : অনেক শিশু পরিবারের অসচ্ছলতার কারণে শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়।

প্রশ্ন : বাংলাদেশে ১৮ বছরের নিচে শিশুশ্রম বেআইনি। তবুও অনেক শিশু কাজ করে। তারা কোথায় কাজ করে?

উত্তর : অনেক শিশু খেত-খামারে, ইটের ভাটায়, দোকানে, কল-কারখানায় কাজ করে।

প্রশ্ন : শহরে অনেক শিশু গৃহহীন কেন?

উত্তর : পরিবারে সামর্থ্য না থাকায় শহরের অনেক শিশু গৃহহীন।

প্রশ্ন : শিশুদের শারীরিক নির্যাতন ও বিদেশে পাচার কোন ধরনের কাজ?

উত্তর : শিশুদের শারীরিক নির্যাতন ও বিদেশ পাচার মানবাধিকার বিরোধী কাজ।

প্রশ্ন : নারী ও শিশু পাচার বন্ধ হওয়া প্রয়োজন কেন?

উত্তর : নারী ও শিশু পাচার মানবাধিকার বিরোধী কাজ। তাই নারী ও শিশু পাচার বন্ধ হওয়া প্রয়োজন।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশুদের একটি বৈশিষ্ট্য লেখো।

উত্তর : অটিস্টিক শিশুদের একটি বৈশিষ্ট্য হলো কারও সঙ্গে সহজে বন্ধুত্ব করতে চায় না।

প্রশ্ন : 'অটিজম' কী?

উত্তর : অটিজম একটি বিকাশগত সমস্যা।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশুদের আদর করতে গেলে রেগে যায় কেন?

উত্তর : অটিস্টিক শিশুদের আদর করতে গেলে রেগে যায় কারণ তারা অন্যের স্পর্শ সহ্য করতে পারে না।

প্রশ্ন : অটিস্টিক বন্ধুরা স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে পারে না কেন?

উত্তর : অটিস্টিক বন্ধুরা অনেক শব্দ মনে রাখতে পারে না বলে তারা স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে পারে না।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশুদের অস্বাভাবিক আচরণের কারণ কী?

উত্তর : অটিস্টিক শিশুদের অস্বাভাবিক আচরণের কারণ হলো 'অটিজম' নামের এক বিকাশগত সমস্যা।

প্রশ্ন : অটিস্টিক শিশু শারীরিকভাবে কেমন?

উত্তর : অটিস্টিক শিশু শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ।

হ পরবর্তী অংশ আগামী সংখ্যায়

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে