বর্ষার প্রথম দিনে তারকারা

গ্রীষ্মের প্রচন্ড দাবদাহ শেষে বর্ষা আসে প্রকৃতির আশীর্বাদ হয়ে। বর্ষার আগমনে বাংলার প্রকৃতির রূপও পালটে যায়। বৃষ্টির ছোঁয়া পেয়ে গ্রীষ্মের বিবর্ণ প্রকৃতি হয়ে ওঠে কোমল আর সজীব। প্রকৃতির সঙ্গে মানুষের মনেও সজীবতা চলে আসে। মঙ্গলবার ছিল বর্ষার প্রথম দিন। ঝুম বৃষ্টি দিয়েই শুরু হয় দিনের প্রথম প্রহর। ঘন বর্ষায় দিনটি কেমন কেটেছে শোবিজের তরুণ প্রজন্মের তারকাদের। কয়েকজন তারকার সঙ্গে কথা বলে প্রতিবেদনটি সাজিয়েছেন
বর্ষার প্রথম দিনে তারকারা

বর্ষার প্রথমদিনে শুটিংয়ের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে শ্রীমঙ্গলে যাত্রা করেন চিত্রনায়ক নিরব। আজ থেকে সেখানে চলবে সরকারি অনুদানের 'ছায়াবৃক্ষ' চলচ্চিত্রের শুটিং। এ চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু হয়েছিল গত বছরের নভেম্বরে। ইতোমধ্যে এর ৬০ শতাংশের শুটিং সম্পন্ন হয়েছে। করোনার কারণে এর বাকি অংশের কাজ বন্ধ ছিল। নিরব বলেন, 'আজ (গতকাল) বর্ষার প্রথম দিন জানতাম না। আসলে ব্যস্ত থাকায় বিষয়টি খেয়াল করিনি। তবে বর্ষার প্রথম দিনে শুটিংয়ের জন্য শ্রীমঙ্গল যাচ্ছি। সেখানে টানা শুটিং চলবে ছায়াবৃক্ষের।' নিরব বর্ষা নিয়ে বলেন, 'বর্ষা কখনো খুব ভালো লাগে আবার কখনো বিরক্তের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। অনেক সময় অনবরত বৃষ্টির কারণে গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে সমস্যা হয়।'

চলচ্চিত্রের নতুন নায়িকা প্রিয়মনি বলেন, 'সকালে বৃষ্টির কারণে ঠান্ডা ঠান্ডা আবহাওয়ায় ঘুমটা অনেক ভালো হয়েছে। আমার ঘরের পাশে একটি কৃষ্ণচূড়া গাছ আছে। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে চায়ের কাপ নিয়ে ব্যালকনিতে গিয়ে ওই গাছের সঙ্গে আমার দর্শন হয়। কয়েকদিন ধরে ওই কৃষ্ণচূড়ায় ফুল ফুটেছে। কিন্তু ঘুম থেকে উঠে গিয়ে দেখি সকালের বৃষ্টিতে সব ফুল পড়ে গেছে। ফুল ঝরে যাওয়ায় একটু কষ্ট লাগলেও চারদিকে সবুজের গাঢ় পরিবেশ ভালো লেগেছে। ফুল আবার ফুটবে। বর্ষায় হারানোর সঙ্গে নতুনের আনন্দটা ভালো লাগে। কৃষ্ণচূড়া, কদম ফুল, টিনের চালে বৃষ্টির রিমঝিম শব্দ সব মিলিয়ে বর্ষার পরিবেশ আমার খুবই প্রিয়। ঢাকায় তো কদম ফুল পাওয়া কঠিন। আজ মনে পড়ে গেল ছোটবেলার কথা। তখনো আমার নাক-কান ফোঁড়ানো করা হয়নি। গ্রামের বাড়ি রাজবাড়ীতে থাকতে বর্ষার সময় গাছ থেকে ঝরে পড়া কদমফুল কুড়িয়ে তার হলুদ অংশ দিয়ে মালা গাঁথতাম। আর ছোট ছোট সাদা অংশে কাঁঠালের আঠা লাগিয়ে নাক-কানে গহনা পরতাম। আয়নার কাছে গিয়ে দেখতাম আমাকে কেমন লাগছে। ফলফুলে ভরা এই মৌসুমে আমি ভাতের চেয়ে ফলই বেশি খেয়ে থাকি। আজও

সকালে বেশ কয়েকটা আম খেয়েছি।'

অভিনেত্রী জিনাত শানু স্বাগতা বলেন, 'বর্ষার প্রথম দিনে আমার মনটা তত ভালো নেই। কয়েকদিন আগে আমার গাড়িটা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তা নিয়ে ঝামেলার মধ্যে আছি। গাড়ি নিয়ে গ্যারেজে আছি। ড্রাইভার না থাকায় নিজেকে এই গাড়ির পেছনে সময় দিতে হচ্ছে।' বৃষ্টি নিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, 'উপভোগ করার মতো হলে বৃষ্টি ভালো লাগে। একবার শুটিংয়ে কাপ্তাই গিয়ে বৃষ্টিকে দারুণ উপভোগ করেছিলাম। কর্ণফুলী নদীতে বৃষ্টি পড়ার দারুণ মুহূর্ত ছিল। কিন্তু বর্ষা উপভোগ করার মতো পরিবেশ ঢাকায় নেই। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে যায়। অনেক কষ্ট হয়।'

অভিনেতা সজল বলেন, 'খুবই চমৎকার পরিবেশে আছি। একটি নাটকের শুটিংয়ে বান্দরবানের কাছাকাছি একটি এলাকায় আছি। বক দেখছি, মেঘাচ্ছন্ন আকাশ, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করছি। বৃষ্টিতে ভিজেছি, এখানে প্রায় এক মাইল আমি হেঁটেছি। ভীষণ ভালো লাগছে।' বর্ষা নিয়ে এই অভিনেতা বলেন, 'বর্ষা আমার প্রিয়। কিশোর বয়সে আমরা তখন রাজধানীর ঝিগাতলায় থাকতাম। বৃষ্টি হলে রাস্তায় পানি জমে যেত অনেকের জন্য তা কষ্টের হলেও আমার ভীষণ ভালো লাগত। রিকশা থেকে নেমে কোমর পানিয়ে ভিজে বাসায় যেতাম। যতটুকু না ভিজতাম তার থেকে বেশি নিজে নিজে ভিজে নিতাম। ময়লা-নোংরা পানি হলেও আমার কাছে তখন খারাপ লাগত না।'

আগামী ২৭ জুন এমবিবিএস পরীক্ষা তাই বর্ষার প্রথম দিনে পড়াশোনা নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন কণ্ঠশিল্পী ফাতিমা তুয-যাহরা ঐশী। পরীক্ষার কারণেই গ্রম্নপ স্টাডির জন্য তাকে বের হতে হয়েছে বাসা থেকে। এর মধ্যে গানের কাজও চলছে। বর্ষার আগের দিন রাতে একটি গান রেকর্ডিও করেছেন। বর্ষা নিয়ে এই শিল্পী বলেন, 'বাংলার ষড়ঋতুর একটি বর্ষা। বর্ষা আমার ভালো লাগে। কদম ফুল, কৃষ্ণচূড়া, ফুল-ফলের

এই মাস সত্যিই উপভোগ্য।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে