রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ৩ মাঘ ১৪২৭

করোনায় দুই মাসে সর্বনিম্ন মৃতু্য ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৮৯০

করোনায় দুই মাসে সর্বনিম্ন মৃতু্য ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৮৯০

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ১৪ জনের মৃতু্য হয়েছে। যা গত দুই মাসে একদিনে এটাই সর্বনিম্ন মৃতু্য। এর আগে গত বছরের ১৪ নভেম্বর করোনায় মৃতু্য সংখ্যা ছিল ১৪ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ৮৯০ জন এবং এখনও পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছেন ৫ লাখ ২৪ হাজার ৯১০ জন। আর মোট মারা গেছেন ৭ হাজার ৮৩৩ জন।

প্রতিদিনের মতো বুধবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাভাইরাসবিষয়ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, সারাদেশে করোনার সর্বশেষ সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালোচনায় মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ১১৫টি আরটি-পিসিআর ল্যাব, ২৮টি জিন-এক্সপার্ট ল্যাব ও ৫১টির্ যাপিড অ্যান্টিজেন ল্যাবে, অর্থাৎ মোট ১৯৪টি ল্যাবরেটরিতে ১৬ হাজার ৩৩৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরপর অ্যান্টিজেন টেস্টসহ নমুনা পরীক্ষা করা হয় ১৫ হাজার ৭২৭টি। এখনও পর্যন্ত ৩৪ লাখ ১ হাজার ৫০৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৮৪১ জন। এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৬৯ হাজার ৫২২ জন। শনাক্ত বিবেচনায় গত ২৪ ঘণ্টায় প্রতি ১০০ নমুনায় ৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ। এখনও পর্যন্ত ১৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্ত বিবেচনায় প্রতি ১০০ জনে সুস্থ হয়েছেন ৮৯ দশমিক ৪৫ শতাংশ।

মারা গেছেন ১ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতদের মধ্যে ৬ জন পুরুষ এবং ৮ জন নারী। মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ ঊর্ধ্ব ১০ জন এবং ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৪ জন মারা গেছেন। বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায়, মৃতু্যবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১০ জন, চট্টগ্রামে ২ জন, সিলেটে ১ জন এবং খুলনায় ১ জন মারা গেছেন। ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে মৃতু্যবরণ করেন ১৩ জন এবং ১ জন বাসায় মৃতু্যবরণ করেন।

দেশে এ পর্যন্ত পুরুষ ৫ হাজার ৯৪৩ জন এবং নারী মারা গেছেন ১ হাজার ৮৯০ জন। তাদের মধ্যে ৪ হাজার ৩০৮ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। এছাড়াও ১ হাজার ৯৭৫ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ৯০৭ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, ৩৮৭ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে, ১৬১ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে, ৫৯ জনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এবং ৩৬ জনের বয়স ছিল ১০ বছরের কম।

এর মধ্যে ৪ হাজার ৩৩৬ জন ঢাকা বিভাগের, ১ হাজার ৪৩৬ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ৪৪৯ জন রাজশাহী বিভাগের, ৫৪১ জন খুলনা বিভাগের, ২৩৯ জন বরিশাল বিভাগের, ২৯৯ জন সিলেট বিভাগের, ৩৫০ জন রংপুর বিভাগের এবং ১৮৩ জন ময়মনসিংহ বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত ৮ মার্চ। তা ৫ লাখ পেরিয়ে যায় ২০ ডিসেম্বর। এর মধ্যে গত ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত। প্রথ রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃতু্যর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২৯ ডিসেম্বর তা সাড়ে সাত হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃতু্যর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃতু্য।

বিশ্বে শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ইতোমধ্যে সাড়ে ৯ কোটি ১৬ লাখ পেরিয়েছে। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৯ লাখ ৬৩ হাজার। জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে ২৭তম স্থানে আছে বাংলাদেশ, আর মৃতের সংখ্যায় রয়েছে ৩৭তম অবস্থানে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে