করোনায় একদিনে আরও ১৬ মৃতু্য শনাক্ত ৫৮৪

করোনায় একদিনে আরও ১৬ মৃতু্য শনাক্ত ৫৮৪

দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত একদিনে আরও ১৬ জনের মৃতু্য হয়েছে। এ নিয়ে দেশে ভাইরাসটিতে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭ হাজার ৯৬৬ জনে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে আরও ৫৮৪ জন। ফলে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ৩০ হাজার ২৭১ জন হয়েছে।

প্রতি দিনের মতো বৃহস্পতিবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনাভাইরাসবিষয়ক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, সারাদেশে করোনার সর্বশেষ সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালোচনায় বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ১১৬টি আরটি-পিসিআর ল্যাব, ২৮টি জিন-এক্সপার্ট ল্যাব ও ৫৬টির্ যাপিড অ্যান্টিজেন ল্যাবে অর্থাৎ ২০০টি ল্যাবরেটরিতে ১৪ হাজার ৭৯৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরপর যাচাই-বাছাই শেষে ১৪ হাজার ৭৬১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। সর্বশেষ নমুনা পরীক্ষায় গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত নতুন করে ৫৮৪ জনের দেহে করোনার জীবাণু শনাক্ত হয়। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫ লাখ ৩০ হাজার ২৭১ জন হয়েছে। দেশে সরকারি ব্যবস্থাপনায় এ পর্যন্ত ২৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৮৪টি ও বেসরকারি ব্যবস্থপনায় ৭ লাখ ৫৭ হাজার ৬৪৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে গত একদিনে

বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ৬০২ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছে। তাতে এ পর্যন্ত সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৪ লাখ ৭৫ হাজার ৭৪ জন হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ৩ দশমিক ৯৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৯ দশমিক শূন্য ৫৯ শতাংশ। মৃতু্যর হার ১ দশমিক ৫০ শতাংশ।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৬ জনের মধ্যে বি?শোর্ধ্ব একজন, ত্রিশোর্ধ্ব দুইজন, চলিস্নশোর্ধ্ব একজন, পঞ্চাশোর্ধ্ব তিনজন ও ষাটোর্ধ্ব ৯ জন। মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৩ জন ও চট্টগ্রামে একজন, রাজশাহীতে একজন ও খুলনা বিভা?গের একজন র?য়ে?ছে।

দেশে এ পর্যন্ত করোনায় মোট মৃত সাত হাজার ৯৬১ জনের মধ্যে পুরুষ ছয় হাজার ৩৭ (৭৫ দশমিক ৭৮ শতাংশ) ও নারী এক হাজার ৯২৯ জন (২৪ দশমিক শূন্য ২২ শতাংশ)।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে। গত ১৪ জানুয়ারি তা সোয়া ৫ লাখ পেরিয়ে যায়। এর মধ্যে গতবছরের ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা একদিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গতবছরের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃতু্যর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২৯ ডিসেম্বর তা সাড়ে সাত হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে গত বছরের ৩০ জুন একদিনেই ৬৪ জনের মৃতু্যর খবর জানানো হয়, যা একদিনের সর্বোচ্চ মৃতু্য।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে