সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

সরকার পদত্যাগ না করলে দেশ সংঘাতের দিকে যাবে :ফখরুল

যাযাদি রিপোর্ট
  ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০০:০০
সরকার পদত্যাগ না করলে দেশ সংঘাতের দিকে যাবে :ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, এখনো সংঘাত শুরু হয়নি। আওয়ামী লীগ যেভাবে এগুচ্ছে তাতে তো জনগণ রুখে দাঁড়াবে। এটা পরিষ্কার বুঝা যাচ্ছে- জনগণই তাদের অধিকার আদায় করবে। সরকার ক্ষমতায় থাকলে দেশ সংঘাতের দিকে যাবে, আরও খারাপের দিকে যাবে এবং সংঘাত বাড়তে থাকবে।

বৃহস্পতিবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারের উদ্দেশ্যে মির্জা ফখরুল বলেন, তাদের শুভ বুদ্ধির উদয় হোক। দেশকে রক্ষার জন্য, মানুষের কল্যাণের জন্য, গণতন্ত্রকে রক্ষার জন্য, মানুষের অধিকারকে রক্ষা করার জন্য দয়া করে পদত্যাগ করেন। একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ তাদের ভোট দিয়ে একটা সরকার নির্বাচিত করতে পারে তার ব্যবস্থা করেন।

মানবাধিকার সংগঠন 'অধিকার' এর সম্পাদক

আদিলুর রহমার খান ও পরিচালক এএমএম নাসির উদ্দিনের সাজা প্রদানের বিষয়ে জুডিসিয়াল ক্যাডার সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের বিবৃতি প্রদানের নিন্দা জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এহেন বিবৃতি প্রদান নজিরবিহীন ঘটনা। এটা নিঃসন্দেহে নিরপেক্ষ আচরণের অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়।

ইইউ পর্যবেক্ষণ নিয়ে দেওয়া প্রতিবেদন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগের অধীনে কোনো নির্বাচনই সম্ভব না। এটা পরীক্ষিত। পরপর দুটি নির্বাচন অতীতে করেছি এবং তাদের অধীনে যে কখনো কোনো সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন হতে পারে না, জনগণ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে না- এ ব্যাপারে কারোই সন্দেহ থাকার কথা নয়। ইউরোপীয় ইউনিয়ন উচ্চ পর্যায়ের পর্যবেক্ষণ টিম সকল দলের সঙ্গে কথা বলেছেন। এখন তারা পরিষ্কার করে বলেছেন যে, অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ নাই। এখানে অবজারভার টিম পাঠানোর পরিবেশ নেই।

তাকে নিয়ে ঢাকা দক্ষিণের সিটি মেয়রের বক্তব্যে প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, শেখ ফজলে নূর তাপসের মানসিকতাটা তার কথার মধ্যে পাবেন। এটা তাদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট, তাদের কথাবার্তা ছাড়াও সবকিছুর মধ্যে একটা প্রচন্ড সন্ত্রাসী ব্যাপার আছে। এটা হচ্ছে তাদের জমিদারি। এজন্য কাকে ঢুকতে দেবে কি দেবে না এরকম কথা বলে। কিন্তু এসব কথায় তিনি গুরুত্ব দেন না। কে কি বললো তাতে বাংলাদেশের জনগণের যায় আসে না। বাংলাদেশের জনগণের লক্ষ্য একটা- তারা বাংলাদেশে একটা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে