​গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

​গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় বিয়ের ১ বছরের ভিতরে গলায় ফাঁস দিয়ে মুন বেগম (১৮) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। আত্মহত্যা কারী ঐ গৃহবধূ ২০২০ সালের জুন মাসে বাবা মার অমতে বিয়ে হয়েছিল।

সোমবার (২ আগষ্ট) মুন বেগম (১৮) স্বামীর বাড়ির বারান্দার আড়ার সাথে পরনের ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

ঐ গৃহবধূর মা সিমা বেগম (৪০) বার বার কেঁদে কেঁদে বলছেন আমার মেয়েটাকে ওর স্বামী শ্বশুর-শাশুড়ি মিলে মেরে ফেলছে শ্বশুর বাড়ির অত্যাচার সইতে না পেরে আমার মেয়েটা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করছে। আমি এর বিচার চাই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাড়ির এক মহিলা জানান, সকাল থেকেই শুনছিলাম ওদের স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া দুপুরের সময় দেখি চিল্লাচিল্লি করছে এরপর ঘড়ে গিয়ে দেখি বারান্দায় গলায় ওড়না পেচিয়ে ঝুলে আছে মেয়েটি। এ সময় আমি চিৎকার করলে আশে পাশের লোকজন এসে মুন কে নামিয়ে ডামুড্যা উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে আসি।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ডামুড্যা পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড কুলকুড়ি গ্রামের শামছুল হক তালুকদারের ছেলে, কৌশল তালুকদার (২৫) এর সাথে একই ওয়ার্ডের মনজুর সরদারের মেয়ে মুন বেগম (১৮) এর সাথে ১ বছর আগে সম্পর্ক করে পরিবারের অমতে বিয়ে হয়, বিয়ের কয়েক মাস পর উভয় পরিবার তাদের মেনে নেয়। ঈদের পর থেকেই শ্বশুর বাড়িতে দাওয়াত খাওয়া নিয়ে কৌশিক তালুকদার স্ত্রী মুন বেগমের সাথে তর্ক বিতর্ক করতেন তারই সূত্র ধরে আজ সকালেও ওর সাথে ঝগড়া হয়।

যাযাদি/এস

ডামুড্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক, ও আর এম ও ডাঃ ফারুক আল ইসলাম বলেন, মেয়েটিকে আমাদের এখানে ১.২ মিনিটে নিয়ে আসেন এরপর আমরা চেক করে দেখি আমাদের এখানে আনার পূর্বেই তার মৃত্যু হয়েছে।

ডামুড্যা থানার ওসি শরীফ আহম্মেদ জানান, আমরা লাশ ময়না তদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদরে পাঠিয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে