উখিয়ায় প্রবল বর্ষণে ৪ টি খালের ২০ পয়েন্টে ব্যাপক ভাঙন

উখিয়ায় প্রবল বর্ষণে ৪ টি খালের ২০ পয়েন্টে ব্যাপক ভাঙন

টানা ভারি বর্ষণ, পাহাড়ি ঢল ও সাগরের জোয়ারের পানিতে কক্সবাজারের উখিয়ায় ৪ টি খালে ২০ টি পয়েন্টে ব্যাপক ভাঙন দেয়া দিয়েছে। রেজুখাল - হিজলিয়া খাল , মরিচ্যা ও গয়ালমারা খালে ভাঙনের ফলে অসংখ্য ঘরবাড়ি খালে বিলীন সহ কোটবাজার সোনারপাড়া সীবিচ সড়ক হুমকির মুখে পড়েছে।

সরজমিনে দেখা যায়, রাজা পালং ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের হিজলিয়া খালে ব্যাপক ভাঙ্গনে কবলে পড়েছেন পার্শ্ববর্তী গ্রাম। প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের পানি লোকালয়ে ঢুকে বিস্তীর্ণ ফসলি জমি চাষাবাদের অনুপযোগী হয়েছে।

এদিকে হলদিয়াপালং ইউনিয়নের রুমখাঁ চরপাড়া, মনি মার্কেট খাল সংলগ্ন কোটবাজার সোনারপাড়া সড়ক, হিজলিয়া খালের ভাঙ্গনে বসতবাড়ি খালগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

পাহাড়ি ঢল ও সাগরের জোয়ারের পানির প্রবল স্রোতে অসংখ্য গাছপালা উপড়ে পড়ে খালগর্ভে ভেসে গেছে। শুধু তাই নই , পানি উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে রেজু খালের পাড় রক্ষায় স্থাপিত সিসি ব্লক বিধ্বস্ত হয়ে হুমকির মুখে পড়েছে।

জালিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী জানান,এবারের প্রবল বর্ষণে রেজু খালের দুই পাড়ে অসংখ্য ঘরবাড়ি বিলীন হয়ে গেছে।

এছাড়াও হলদিয়া পালং ইউনিয়নের ধুরুম খালী খালের ভাঙনের ফলে আলী পাড়ার চলাচলের সাকো বিলীন হওয়ায় জনগণের চরম ভোগান্তির শিকার হয়েছে। গয়াল মারা খালের সংযোগ ব্রীজটি প্রবল স্রোতে বিচ্ছিন্ন হওয়ায় সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

এদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ সহ উপজেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকতা খালের ভাঙন ও ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয়রা জানান, ভারী বর্ষণে বন্যার পানিতে গাছপালা, ঘরবাড়ি ভেঙ্গে পানিতে তলিয়ে গেছে। বেড়িবাঁধ নির্মাণ না করলে মাথা গোঁজার ঠাঁই থাকবেনা।

উপজেলা প্রশাসনের তথ্য অনুযায়ী, উপজেলায় সৃষ্ট বন্যায় ২০০মিটার বাঁধ পুরোপুরি ভেঙ্গে গেছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ জানান, ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করে তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। তিনি উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রকল্প তৈরি ও অর্থ বরাদ্দের জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে সুপারিশ প্রেরণ করা হবে।

যাযাদি/ এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে