​​​​​​​চকরিয়ায় আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

​​​​​​​চকরিয়ায় আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ বলেছেন- আমি তীব্র প্রতিদ্বন্ধিতাপূর্ণ নির্বাচনে বিশ্বাস করি। কারণ ভোটের মাঠে প্রতিদ্বন্ধি প্রর্থী হেভিওয়েট বা যোগ্য প্রর্থী না হলে ভোটের লড়াই জমে না। আমি গত সংসদ নির্বাচনে এমন একজন প্রার্থীর সঙ্গে প্রতিদ্বন্ধিতা করেছি, যিনি বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন সাহেবের স্ত্রী হাসিনা আহমেদ। সেই নির্বাচনে লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে তাকে পরাজিত করে আমি এমপি নির্বাচিত হয়েছি। তাই আগামী নির্বাচনে আমি চাই বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিনের সঙ্গে প্রতিদ্বন্ধিতা করে বিজয়ী হতে। এজন্য আমি সালাহউদ্দিনকে বলবো আপনি ভারতে অনুপ্রবেশের মামলায় খালাস পাওয়ার পরও ভারতে নির্বাসনে আছেন। দেশে আসার সাহস আপনার নেই। আমি দোয়া করি আপনার জন্য। যাতে আপনি দেশে এসে দুর্নীতি মামলায় লড়ে খালাস পেয়ে আমার সাথে প্রতিদ্বন্ধিতা করতে পারেন। তখন দেখা যাবে কার জনপ্রিয়তা কতো। কারণ ভাল প্লেয়ার না হলে প্রতিদ্বন্ধিতাপূর্ণ নির্বাচনে খেলা জমে না।

এমপি জাফর আলম বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বিকেলে চকরিয়া পৌরশহরের চিরিঙ্গাস্থ থানা রাস্তার মাথার সিস্টেম কমপ্লেক্স চত্বরে চকরিয়া উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামী লীগের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি উদ্দেশ্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এই আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি জাফর আলম আরো বলেন, দলের মধ্যে কেউ কোন্দল সৃষ্টি করবেন না। কোন নেতাকে জড়িয়ে অপমানজনক বক্তব্য দেবেন না। আমি বার বার অনুরোধ করছি। এর পরেও যদি কোন নেতাকে জড়িয়ে কেউ অপমানজনক বক্তব্য দেন তাহলে এখন থেকে এর কঠোর জবাব দেওয়া হবে। সময় থাকতে আওয়ামী লীগে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার কাজে মনোনিবেশ করেন। কারণ আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে কোন অপশক্তির আওয়ামী লীগকে ঠেকাতে পারবে না।

চকরিয়াবাসীর উদ্দেশ্যে এমপি জাফর আলম বলেন, আমি চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হলেও আমি শুধু আওয়ামী লীগের নই। আমি পুরো চকরিয়ারবাসীর জাফর। জনতার জাফর। তাই আমি চেষ্টা করি চকরিয়ার প্রত্যেকটি মানুষ যাতে আমার কাছে এসে ফেরত না যায়। আমার রাজনীতিটাই হচ্ছে জনগণের জন্য। তাই আমিও জনগণের কাতারে থাকতে পছন্দ করি। চকরিয়ার মানুষও আমাকে বার বার বিপুল পরিমাণ ভোট দিয়ে প্রত্যেকটি নির্বাচনে জয়যুক্ত করেছেন। এজন্য আমি চকরিয়ার সর্বস্তরের মানুষের কাছে কৃতজ্ঞ।

উন্নয়নের জন্য বারে বারে দরকার শেখ হাসিনার সরকার এই শ্লোগান দিয়ে এমপি জাফর আলম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কন্য আজ রাষ্ট্রক্ষমতায় আছেন বলেই তিনি দেশের মানুষের কথা চিন্তা করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী বলেই আজ স্বপ্নের পদ্মা সেতু পদ্মার বুকে দাঁড়িয়ে গেছে। আর একদিন পরেই ২৫ জুন দেশের মানুষের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। জনগণের ভোট নিয়ে একাধারে ক্ষমতায় থাকতে পারায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। উন্নয়নের মহীসোপানে বাংলাদেশের অবস্থান আজ বিশ্বে।

জন্য বিশ্বের বড় বড় রাষ্ট্রের ক্ষমতাধরেরা শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বকে নিয়ে গর্ব করেন। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও দেশের মানুষ বিপুল ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে রাষ্ট্রক্ষমতায় বসাবে। কারণ শেখ হাসিনার কাছেই বাংলাদেশ এবং দেশের মানুষ নিরাপদ। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক লায়ন কমর উদ্দিন আহমদ, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, মাতামুহুরী সাংগঠনিক থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টো ও জেসমিন হক জেসি, জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যাপক সোলতান আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোক্তার আহমদ চৌধুরী, এম আর চৌধুরী, সৈয়দ আলম কমিশনার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজিমুল হক আজিম চেয়ারম্যান ও শাহনেওয়াজ তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম ও শওকত ওসমান, প্রচার সম্পাদক আবু মুসা, অর্থ সম্পাদক বদরুল আলম, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান যথাক্রমে মেহরাজ উদ্দিন মিরাজ, হেলাল উদ্দিন হেলালী, নুরে হোসাইন আরিফ, হাসানুল ইসলাম আদর, জামাল হোসেন চৌধুরী, খ ম আওরঙ্গজেব বুলেট, ফারহানা আফরিন মুন্না, মক্কী ইকবাল হোসেন, নবী হোসাইন চৌধুরী, মাইন উদ্দিন চৌধুরী, মনজুরুল কাদের। এছাড়াও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন, নুরুল আলম, ডাঃ আজিজুল মন্নান, নুরুল আবছার, রেজাউল করিম সেলিম, মিরানুল ইসলাম মিরান, ফিরোজ আহমেদ চৌধুরী, নুরুল আমিন সিকদার, বদিউল আলম, নুরুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, মোঃ নাছির উদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নেজাম উদ্দীন, কাজল মেম্বার সুরাজপুর, বাহাদুর হক, মাহমুদুল করিম, শহিদুল ইসলাম খোকন, আশরাফ হোসাইন আশু মেম্বার, একে ভূট্টো সিকদার, সোহরাব মোস্তফা লিমন, শামসুল আলম, আতিকুর রহমান হানু, জাফর আলম প্রকাশ সিআইপি জাফর, মোজাফফর হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আমিনুল করিম, আলমগীর হোসাইন, পৌরসভা আওয়ামী লীগের নেতা লায়ন আলমগীর চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির, কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল ইসলাম রাসেল, স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্ধসঢ়;বায়ক জয়নাল হাজারী, মহিলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, পৌরসভার প্যানেল মেয়র মুজিবুল হক, ওয়ার্ড কমিশনার নুরুল আমিন ও ফারহানাসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ।

যাযাদি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে