বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১

নিয়ামতপুরে বোরো মৌসুমের ধান বীজের হাট, ক্রেতাদের ভিড়

দাম বেশি হওয়ার কৃষক হতাশ! 
নিয়ামতপুর প্রতিনিধি
  ২১ নভেম্বর ২০২৩, ১৫:৩০
নিয়ামতপুরে বোরো মৌসুমের ধান বীজের হাট, ক্রেতাদের ভিড়

বাম হাতে ধান নিয়ে ডান হাতের মধ্যমা আঙ্গুল দিয়ে ভালোভাবে পরখ করছিলেন কৃষক আব্দুর রহমান । বোরো ধান আবাদের জন্য নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলা নিয়ামতপুর হাটে এসেছিলেন ধান বীজ কিনতে ।

গত সোমবার (২০ নভেম্বর ) হাট ঘুরে ক্রেতা বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতি বৃহস্পতিবার ও সোমবার এই হাট বসে। সকালে শুরু হয়ে দুপুরের মধ্যে শেষ হয়ে যায়। এ হাটে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে বীজ কেনার জন্য কৃষক আসে। হাটে এখন জিরাশাইল জাতের ধানই বিক্রি হচ্ছে। ধানের রং ও মানভেদে প্রতি মণ জিরাশাইল জাতের ধান ১৫০০-১৭০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানা যায়।

ধান বীজ কিনতে আসছে এমন কৃষকেরা জানালেন, ভালো ধান পেতে ভালো বীজের প্রয়োজন। তাই ভালো ধান বীজ কিনতে হলে ভালোভাবে পরখ করে নিতে হয়।

ধান বীজ কিনতে এসেছিলেন উপজেলার বাদপাড়া গ্রামের কৃষক আবুল কাসেম। তিনি জানালেন, এবার ১২ বিঘা জমিতে বোরো ধান আবাদ করবেন। এ জন্য হাটে বীজ কিনতে এসেছেন।

ধান বিক্রেতা মান্দা উপজেলার বিল করিল্যা গ্রামের আফজাল হোসেন বলেন, ১০ মণ ধান এনেছিলাম তার মধ্যে এখন পর্যন্ত ৬ মণ বিক্রি হয়েছে।

একই উপজেলার পাকুরিয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেন জানালেন, এখন জিরাশাইল জাতের ধান বেশি বিক্রি হচ্ছে। এই ধান আমাদের এলাকায় ভাদ্র মাসে হয়। আমরা সেই ধান এখন এই হাটে বিক্রি করতে আসি। আজকে ১৭ মণ ধান এনেছিলাম। তার মধ্যে ১১ মন বিক্রি করতে পেরেছি।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলা থেকে হাটে ধান কিনতে এসেছিলেন কৃষক মাইনুল ইসলাম। তিনি জানালেন, এই হাটে নাকি ভালো ধান বীজ পাওয়া যায়। তাই আজকে কিনতে এসেছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কামরুল হাসান বলেন, আর কিছু দিনের মধ্যে বীজতলা তৈরী করতে কৃষক ব্যস্ত হয়ে পড়বে। আগামী বোরো মৌসুমে বীজতলার লক্ষ মাত্রা হবে প্রায় ১১হেক্টোর আর আবাদ হবে প্রায় ২২ হাজার হেক্টোর।

যাযাদি/ এসএম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে