বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

নারায়ণগঞ্জে বেতনের দাবিতে বিদ্যুতের খুঁটি ফেলে সড়ক অবরোধ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
  ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১৮:০৪
নারায়ণগঞ্জে বেতনের দাবিতে বিদ্যুতের খুঁটি ফেলে সড়ক অবরোধ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বকেয়া বেতনের দাবিতে সড়কে বিদ্যুতের খুঁটি, কাঠের বাক্স ফেলে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ সহ পুলিশ শ্রমিকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইট পাটকেল নিক্ষেপ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এসময় উত্তেজিত শ্রমিকরা শিল্প পুলিশের ঝলকামান গাড়ি ভাঙচুর করে। আর পুলিশ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ সহ বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারগ্যাস ছোড়ে। এসময় কয়েকজন শ্রমিক গুলিবিদ্ধ সহ ১৫/২০ জন আহত হয়েছে। আর শ্রমিকদের সড়ক অবরোধের কারণে সকাল ৯ টা হতে বিকেল সাড়ে তিন পর্যন্ত ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ সড়কে যানচলাচল বন্ধ রয়েছে।

রোববার (২১ এপ্রিল) সকাল ৯টা থেকে ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কের ফতুল্লার শাসনগাঁও এলাকাস্থ অবন্তি কালার টেক্স লিমিটেডের শ্রমিকদের সাথে পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এদিকে বকেয়া বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের দীর্ঘ ৭ ঘটা সড়ক অবরোধের কারণে ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ সড়কের উভয় পাশে রাস্তায় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। প্রচণ্ড গরমের দাবদাহে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন পথচারী ও বিভিন্ন এলাকার লোকজন এবং বিভিন্ন পরিবহনের লোকজন।

তবে শ্রমিকরা বকেয়া বেতনের দাবিতে সকাল থেকে শান্তিপূর্ণ ভাবে অবরোধ কর্মসূচি করলেও কারখানার মালিক আসলাম সানী কোন ধরনের কর্ণপাত করেনি। বরং শ্রমিকদের সাথে কথা বলার জন্য আসলাম সানীকে কারখানার সিনিয়র কর্মকর্তারা বলার পর আসলাম সানী আমলে নেয়নি।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে ফতুল্লা থানা পুলিশ ও শিল্প পুলিশের একাধিক টিম সড়ক অবরোধ থেকে শ্রমিকদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু শ্রমিকরা তাদের নীতিতে অটল থাকায় শ্রমিক পুলিশের সাথে সংঘর্ষ বাধে।

শ্রমিকরা জানান, গত কয়েক মাস ধরে কারখানার মালিক শ্রমিকদের বেতনের টাকা দেয়া নিয়ে নানা ভাবে তালবাহানা করে আসছে। এক মাসের বেতন আরেক মাসের ২৬/২৭ তারিখ দিতো। এতে করে বাসা ভাড়া, দোকান বাকীর টাকার জন্য দোকানদার এবং বাড়ির মালিকদের জগড়া ফেসাদ লেগে থাকতো। বেতনের টাকা চাইতে গেলে মালিক পক্ষ চাকুরীচ্যুতের হুমকি দিতো। যার কারনে নিরীহ শ্রমিকরা মালিকের মনগড়া সময়ের মধ্যে বেতন গ্রহণ করা হতো। আর ঈদের আগে মার্চ মাসের বেতন সহ বোনাস দেয়ার কথা থাকলেও না দিয়ে কৌশল খাটিয়ে সকলের মোবাইলে টাকা ঢুকে যাবে এই কথা বলে ঈদের ছুটি দিয়ে দেয়। কিন্তু ঈদের আগে কোন শ্রমিককে বেতন বোনাস দেয়া হয়নি। ছুটি শেষে শ্রমিকরা যোগ দিলেও শ্রমিকদের বেতন দেয়ার কোন উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না। রোববার সকালে তিন দিনের ছুটির ঘোষণা দিয়ে সকল শ্রমিকের মোবাইলে এসএমএস পাঠানো হয়। এতে করে শ্রমিকরা রাজপথে নেমে সড়ক অবরোধ করে।

জানা যায়, ফতুল্লার শাসনগাঁও এলাকায় অবস্থিত অবন্তি কালার টেক্স লিমিটেডে প্রায় ৫/৬ হাজার শ্রমিক রয়েছেন। তারা মার্চ মাসের বেতন ভাতার দাবিতে সকাল ৯টা থেকে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন। এ কারখানাতে কয়েক মাস ধরে বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ চলছে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নূরে আজম জানান, শ্রমিকদের শান্ত করার চেষ্টা চলছে। একই সঙ্গে মালিকপক্ষের সঙ্গেও আলোচনা চলছে। শ্রমিকরা সকাল থেকে সড়ক অবরোধ করে রাখে। তারা সিমেন্টের তৈরি বিদ্যুৎের খুটি সহ কাঠের বাক্স রাস্তায় ফেলে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। তাদেরকে রাস্তা থেকে সরিয়ে যেতে বলা হলে শ্রমিকরা উত্তেজিত হয়ে উঠে। এসময় শ্রমিকরা শিল্প পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে শিল্প পুলিশ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে কয়েক রাউন্ড টিয়ারগ্যাস ছোড়ে। এতে কয়েকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, শিল্প পুলিশের ডিআইজি মহোদয় সহ আমাদের জেলা পুলিশের সিনিয়র অফিসার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সিনিয়র স্যারদের কথা মোতাবেক আমরা এবং শিল্প পুলিশ কাজ করছি।

যাযাদি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে