রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

ইন্দুরকানীতে রেমালের তান্ডবে শত শত বাড়ি-ঘর বিধস্ত 

ইন্দুরকানী (পিরোজপুর) প্রতিনিধি
  ২৮ মে ২০২৪, ১৬:৫৩
ছবি-যায়যায়দিন

ইন্দুরকানীতে ঘূৃণিঝড় রেমাল স্মরণকালের সর্বশ্রেষ্ঠ ভয়াবহ তান্ডব চালিয়ে শত শত বাড়ি-ঘর বিধস্ত সহ ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির চিহ্ন রেখেগেছে।

গত দুইদিন ধরে রেমালের তান্ডব ও প্রবল বর্ষণ ও স্বাভাবিকের চেয়ে ১০/১২ ফুট পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় এ উপজেলার ৫ ইউনিয়নে গাছ পড়ে ও পানির তোরে শত শত বাড়িঘর বিধ্বস্ত, রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্ত সহ হাজার হাজার গাছপালার উপরে পড়েছে।

জলাবদ্ধতায় উপজেলার অনেক রাস্তাঘাট এখনও ডুবে রয়েছে এবং লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। এছাড়া মৌসুমী ফল ও কৃষি ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

৩ দিন ধরে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন, মোবাইল নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন হওয়ায় চরম ভোগান্তিতে রয়েছে উপজেলাবাসী। ঝড়ে গাছ পড়ে উপজেলার কয়েক শত বাড়ি ঘর একেবারে বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। বন্যা পরবর্তী সময়ে বাসিন্দারা বিশুদ্ধ পানি ও খাবার সংকটে পড়েছেএবং পয়নিস্কাশনের রয়েছে বিরামবনা।

অধিকাংশ বসতঘর ও রান্নাঘরে পানি ঢুকে যাওয়ায় রান্না করতে না পেরে অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে আনেক পরিবার। বসতঘর বিধ্বস্ত হওয়া পরিবারগুলো দিশেহারা হয়ে পড়েছে। দক্ষিণ ইন্দুরকানী গ্রামের বাসিন্দা হতদরিদ্র বিধবা আকলিমা বেগম জানান, প্রতিবেশীর দুটি গাছ পড়ে আমার ছোট ঘরটি ভেঙ্গে চুরমার হয়ে গেছে। এখন আমার থাকার মত কোন ঘর নেই। ছোট্ট শিশু নাতনি ও মেয়েকে নিয়ে কোথায় যাব কি করব বুঝতেছি না।

এরকম হাজারও অসহায় মানুষের আহাজারি শুনা যাচ্ছে। ঘর হারিয়ে এমন আর্তনাদ করছেন উপজেলার শত শত পরিবার। এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুবকর সিদ্দিকী জানান, রেমালের প্রভাবে এ উপজেলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অনেক বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে। এবিষয়ে আমাদের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

যাযাদি/ এম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে