logo
রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

ভারত থেকে সব বিদেশি তাড়ানো হবে :অমিত

ভারত থেকে সব বিদেশি তাড়ানো হবে :অমিত
অমিত শাহ
২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) বাস্তবায়ন করে সব অনুপ্রবেশকারীকে ভারত থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। মঙ্গলবার ঝাড়খন্ডে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়ে তিনি এই হুঁশিয়ারি দেন। প্রথমবারের মতো অনুপ্রবেশকারীদের দেশ থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার সময়সীমা উলেস্নখ করে অমিত শাহ বলেন, ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগেই সারা ভারতে এনআরসি তৈরি করে প্রত্যেক অনুপ্রবেশকারীকে চিহ্নিত করা হবে। সংবাদসূত্র : এবিপি নিউজ

বিদেশি তকমা দিয়ে বিতাড়নের এই উদ্যোগ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করায় সাবেক কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন অমিত শাহ। বিদেশি আখ্যা দিয়ে ভারত থেকে মানুষকে তাড়ানোর প্রশ্নে কিছু মানবিক প্রশ্ন তুলেছেন রাহুল। এ জন্য তাকে বিদ্রূপ করে চক্রধরপুর ও বহরাগোড়ার সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, 'রাহুল বাবা বলেন, তাদের তাড়াবেন না। তারা কোথায় যাবে? কী খাবে? কেন তাড়াব না? তারা কি আপনার চাচাতো ভাই?' একই সঙ্গে অমিতের হুঙ্কার, 'আপনারা নিশ্চিত থাকুন ২০২৪ সালের ভোটের আগে সব অনুপ্রবেশকারীকে চিহ্নিত করে তাড়িয়ে দেওয়া হবে।'

সারা ভারতে এনআরসির ভাবনা নিয়ে গোড়া থেকেই তীব্র বিরোধিতা করছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্প্রতি মমতার আপত্তি খারিজ করে তার উপস্থাপিত যুক্তি কার্যত উপেক্ষা করে চলার বার্তা দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। মমতার প্রশ্ন, স্বাধীনতার পর থেকে দেশে এতদিন যারা ভোট দিলেন, সরকার গড়লেন, তাদের কেন নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে হবে?

মমতার এমন প্রশ্নের জবাবে অমিত শাহ বলেন, মুখ্যমন্ত্রী বা তৃণমূল নেত্রী হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেকোনো অবস্থান নিতে পারেন, তাতে সারা ভারতে এনআরসি তৈরির কাজ আটকে থাকবে না। এটা হবেই।

পশ্চিমবঙ্গের শাসনক্ষমতা দখলের লক্ষ্যে আসামে এনআরসির কাজ চলার সময় থেকেই বিজেপি বলতে শুরু করেছিল, এবার পশ্চিমবঙ্গেও এনআরসি হবে। দলের নেতারাই এখন মানছেন, এ জন্যই ধাক্কা খেতে হয়েছে রাজ্যের তিন বিধানসভার আসনের উপনির্বাচনে। দলের নেতারা বলছেন, এনআরসি নিয়ে আতঙ্ক দূর করতে পারেনি বিজেপি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে