logo
রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

  বিনোদন রিপোর্ট   ১৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

ভিন্ন চরিত্রে তিশা

ভিন্ন চরিত্রে তিশা
নুসরাত ইমরোজ তিশা
ঈদের বিশেষ টেলিফিল্ম 'ঝড়ের শেষে পাহাড় আমি'তে ভিন্ন ঘরানার একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। মেজবাহ উদ্দীন সুমনের রচনায় টেলিফিল্মটি পরিচালনা করেছেন তরুণ পরিচালক সাজ্জাদ সুমন। এতে তিশার বিপরীতে অভিনয় করেছেন শহিদুজ্জামান সেলিম, লুৎফুর রহমান জর্জ, সুজাত শিমুল প্রমুখ। এটি চ্যানেল আইতে প্রচার হবে।

এখানে তিশা অভিনয় করেছেন অনিমিতা নামের একটি বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া মেয়ের চরিত্রে। পড়াশোনায় অনিমিতা বেশ ভালো ছাত্রী। স্যারদের খুবই প্রিয়পাত্রী সে। ভার্সিটিতে সবাই তাকে বেশ পছন্দ করে। পরিবারেও সে মধ্যমণি। রুদ্রর সাথে অনিমিতা লুকিয়ে লুকিয়ে প্রেম করে। পড়াশোনা প্রেম আর পরিবার এ নিয়ে ভালোই চলে যাচ্ছিল অনিমিতার জীবন। হঠাৎই হয় ছন্দপতন। অনিমিতা মাঝে চিকনগুনিয়ায় আক্রান্ত হয়। কয়েকদিন ক্লাস করতে পারে না। এর মাঝে কিছু পরীক্ষা নিয়ে ফেলে জামাল স্যার। সুস্থ হয়ে ফিরে এসে অনিমিতা পরীক্ষাগুলো দিতে চায়। জামান স্যার হাসিমুখে বলেন, তাইলে আমার রুমে এসো। আমি পরীক্ষা নিব। জামান স্যার খুবই হাসিখুশি মানুষ। ক্লাসের সবাই তাকে খুবই পছন্দ করেন। অনিমিতাও স্যারকে খুবই পছন্দ করে। অনিমিতা স্যারের কাছে যান। এ কথা সে কথার মাঝে অনিমিতার শরীরের স্পর্শকাতর অংশ স্পর্শ করে বসেন স্যার। অনিমিতা যেন বজ্রাহত হয়। কোনোমতে স্যারের কাছ থেকে পালিয়ে বাঁচে। কিন্তু কাউকে কিছু বলতেও পারে না। স্যার ধীরে ধীরে নানাভাবে অনিমিতাকে বস্ন্যাকমেইল করার চেষ্টা করে। তাকে মেসেজ পাঠায়। ফোন দেয়।

স্যারের এক কথা, কিছু পেতে হলে তো কিছু হারাতে হয়। মানসিকভাবে অনিমিতা স্যারের এই আচরণ মেনে নিতে পারে না। আবার সে কাউকে বলতেও পারছে না। কেউ তার কথা বিশ্বাস করবে না। অনিমিতা আরও মুষড়ে যায়। সে কোনোমতে তার বয়ফ্রেন্ডকে শেয়ার করে। কিন্তু অবাক ব্যাপার হলো বয়ফ্রেন্ড তাকেই দোষারোপ করে। তাকেই নানা দোষ দেয়। অনিমিতা অবাক হয়ে যায়। এভাবে ক্রমেই গল্প মোড় নেয় অন্যদিকে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে