logo
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৯

শ্রীলংকা বধের সংকল্প যুবাদের

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সাফ অনূর্ধ্ব ১৮ চ্যাম্পিয়নশিপ মাঠে গড়িয়েছে শুক্রবার থেকে। নেপালের কাঠমান্ডুতে উদ্বোধনী দিনে গ্রম্নপ 'এ'র ম্যাচে স্বাগতিকদের মুখোমুখি হয়েছে মালদ্বীপ। বাংলাদেশের সাফ মিশনটা শুরু হচ্ছে আজ। কাঠমান্ডুর এপিএফ স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় ৩টা ২০ মিনিটে শ্রীলংকার মুখোমুখি হচ্ছে লাল-সবুজরা। যে ম্যাচে জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করতে চায় বাংলাদেশ দল।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের এবারের আসরে মোট আটটি দল দুটি গ্রম্নপে বিভক্ত হয়ে অংশ নিচ্ছে। গ্রম্নপ 'এ'তে আছে নেপাল, ভুটান ও মালদ্বীপ। গ্রম্নপ 'বি'তে বাংলাদেশ,ভারত ও শ্রীলংকা। শুক্রবার নেপাল বনাম মালদ্বীপের ম্যাচ দিয়ে উদ্বোধন হয়েছে অনূর্ধ্ব ১৮ সাফ। অন্যগ্রম্নপের ম্যাচ হলেও বাংলাদেশের কোচ ও খেলোয়াড়রা মাঠে গিয়েছেন ম্যাচটি দেখতে। কারণ গ্রম্নপ পর্ব পেরুতে পারলে সেমিফাইনালে অন্য গ্রম্নপের যে কোনো দলের সঙ্গে দেখা হবে বাংলাদেশের।

এর আগে ২০১৭ সালে রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে হয়েছে সাফের এই টুর্নামেন্ট। গ্রম্নপে ৫টি দল অংশ নিলেও ঐ বার শ্রীলংকা খেলেনি। ২০১৫ সালেও তারা অংশ নেয়নি। তাই সম্পূর্ণ অচেনা প্রতিপক্ষই শ্রীলংকা।

তবে টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে ঘরের মাটিতে প্রায় তিন সপ্তাহ অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল। অনূর্ধ্ব ১৮ দলে ডাক পাওয়া বেশিরভাগ খেলোয়াড় যেহেতু প্রিমিয়ার লিগে অংশগ্রহণ করেছেন। তাই সাফ টুর্নামেন্টে নিজেদের সেরাটা দিয়ে অন্তত সেমিফাইনালে পৌঁছে যেতে পারবে তারা সেই আত্মবিশ্বাস তাদের আছে। গ্রম্নপে তাদের খেলতে হবে মাত্র দুটি ম্যাচ।

বাংলাদেশ দলের হেড কোচ এ্যান্ড্রু পিটার টার্নার বলেছেন, 'আমাদের পরিকল্পনা হচ্ছে ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়া। সেই লক্ষ্যেই সবাই মাঠে নামে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ছেলেরা একসঙ্গে আছে। ফিজিক্যালি ও ট্যাকটিক্যালি তারা কতটা উন্নতি করেছে সেটি মাঠে প্রয়োগের জন্য তারা মুখিয়ে আছে। আগামী কালের (আজকের) ম্যাচের জন্য আমরা সম্পূর্ণ প্রস্তত আছি।'

কোচ জানান দলে তেমন কোন ইনজুরি সমস্যা নেই। একমাত্র রকিবুল ইসলামের হাটুতে সামান্য ইনজুরি আছে। সে ফিজিওর তত্ত্ব্বাবধানে আছে।

পরবর্তী ম্যাচ ২৫ সেপ্টেম্বর ভারতের বিপক্ষে। গ্রম্নপের সেরা ৪ দল সেমিফাইনাল ম্যাচ খেলবে ২৭ সেপ্টেম্বর। টুর্নামেন্টের ফাইনাল ২৯ সেপ্টেম্বর। একই দিনে অনুষ্ঠিত হবে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ। সেমিতে হেরে যাওয়া দুই দল মুখোমুখি হবে স্থান নির্ধারণী ম্যাচে।

২০১৫ সাল থেকে সাফের এই আসরটি হয়ে আসছে অনূর্ধ্ব ১৯ টুর্নামেন্ট নামে। প্রথম আসরে অংশ নিয়ে তৃতীয় হয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর ২০১৭ সালে রানার্সআপ হয় লাল-সবুজরা। চলতি বছর থেকে টুর্নামেন্টটি হচ্ছে সাফ অনূর্ধ্ব ১৮ চ্যাম্পিয়নশিপ নামে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে