রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

মালয়েশিয়ায় ২৩ বাংলাদেশিসহ আটক ৮৬ প্রবাসী

যাযাদি ডেস্ক
  ২৩ মে ২০২৪, ১১:১৬
ছবি-সংগৃহিত

বিশ্ব এখন নানা সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। দেশে দেশে দেখা দিয়েছে অর্থনৈতিক সংকট। যার কারণে শ্রম বাজার সংকুচিত হচ্ছে। এর ফলে প্রবাসীদের জীবনে নেমে এসে নানা দুর্ভোগ। এদিকে মালয়েশিয়ার লাখ লাখ বাংলাদেশী প্রবাসী চাকরি করেন। এর মধ্যে অনেকে আছেন অবৈধ। যারা অবৈধভাবে মালয়েশিয়ার আছেন তারা ধরপাকড়ের শিকার হচ্ছেন।

জানা যায়, মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিকদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে মালয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। দেশটির জোহর রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় একযোগে তিন দিনের অভিযান চালায় তারা। এতে আটক করা হয় ৮৬ জন অভিবাসীকে। ২০ মে থেকে ২২ মে পর্যন্ত জোহর জুড়ে চলে এ অভিযান। পুলিশ ও ইমিগ্রেশন বিভাগ যৌথভাবে দেশটির সর্বত্র এই অভিযান চালায়।

তবে বেশি অভিযান পরিচালিত হয়েছে জোহর রাজ্যে। বুধবার (২২ মে) জোহর স্টেট অভিবাসনের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো. ফয়জল বিন শামসুদ্দীন এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, জোহর রাজ্য ও মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগের এনফোর্সমেন্ট ডিভিশনের অফিসারদের একটি দলের সাথে বাতু পাহাত শাখা এনফোর্সমেন্ট ইউনিট এবং সেগামাত শাখা এনফোর্সমেন্ট ইউনিট ৪২টি স্থানে অভিযান পরিচালনা করে।

বৈধ পাস নেই এবং পারমিট ছাড়া কাজ করছে এমন বিদেশিদের বিষয়ে অভিযোগ ছিল আগে থেকেই। তথ্যের ভিত্তিতে রাজ্যের হটস্পট এলাকায় অভিযান চালায় তারা।জোহর বাহরু জেলায় আটককৃতদের মধ্যে রয়েছে ইন্দোনেশিয়ার ৩১, মায়ানমারের ২২, বাংলাদেশের ৯, পাকিস্তানের ৪ ও ভারতের ১ জন।

এছাড়াও গ্রেফতার করা হয়েছে ৪৯ বছর বয়সী স্থানীয় এক ব্যক্তিকে।

অপরদিকে বাতু পাহাত জেলায় আটককৃতদের মধ্যে রয়েছে ২০ থেকে ৪৫ বছর বয়সী ১৪ জন বাংলাদেশি। আরেক শহর সেগামাতে আটককৃতদের মধ্যে আছে ৩ ইন্দোনেশিয়ান এবং ২ জন পাকিস্তানি। আটককৃতরা দেশটির ইমিগ্রেশন অ্যাক্ট ১৯৫৯/৬৩ (অ্যাক্ট ১৫৫) এর ধারা ৬(১)(সি) এর অধীনে মালয়েশিয়ায় বৈধ পাসপোর্ট বা পারমিট না থাকার অপরাধে অভিযুক্ত।

যদিও আটককৃত দুই স্থানীয় নাগরিক বিদেশীদের সুরক্ষার জন্য অভিবাসন আইন ১৯৫৯/৬৩ (অ্যাক্ট ১৫৫) এর ধারা ৫৬(১)(ডি) এর অধীনে অপরাধ করেছে। আটককৃতদের তদন্ত এবং পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য সেটিয়া ট্রপিকা ইমিগ্রেশন ডিপোতে রাখা হয়েছে।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে