বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

মাহি বললেন অবৈধ কিছু করিনি

যাযাদি ডেস্ক
  ২৭ মে ২০২৪, ০০:২০
ছবি সংগৃহিত

ঢাকায় চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি। তার কয়েকটি ছবি জনপ্রিয় হলেও বর্তমানে তার হাতে কোনো কাজ নেই। তিনি আবারও পুরোনো রূপে ফিরতে মরিয়া। কারন তার দ্বিতীয় বিয়ে ভেঙে গেছে। এমপি হতে গিয়ে সব হারিয়েছে। এবার আবার মনোযোগি হয়েছেন চ্চলচিত্রে ফিরতে। তবে আবারও ভুল করলেন এই অভিনেত্রী।

জানা যায়, ঢাকাই চলচ্চিত্রের বর্তমান প্রজন্মের নায়িকা মাহিয়া মাহি। বিচ্ছেদের পর সন্তানকে নিয়ে ফুরফুরে মেজাজে আছেন এই নায়িকা। বন্ধু-বান্ধবীদের সঙ্গে বেশ সুন্দর সময় কাটাচ্ছেন তিনি। শুধু তাই নয় নতুন উদ্যমে কাজেও ফিরেছেন তিনি। গেল ঈদে মুক্তি পাওয়া শাকিবের ‘রাজকুমার’ ছবিতে ক্যামিও চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের প্রশংসা পেয়েছেন। তবুও তার হাতে কোনো কাজ নেই।

আরও জানা যায়, কিছুদিন আগে ‘কই জানে না’ সিনেমার ‘আশিকি’ গানের সঙ্গে নাচের একটি ভিডিও প্রকাশ করে নেটাগরিকদের মনোযোগ কাড়েন তিনি। এক মিনিটেরর সে ভিডিওতে মাহির সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে অনেকেই ভাবছিলেন ফুরিয়ে যাননি তিনি। অনেকে তাকে এমন রূপে ফের পর্দায় দেখারও স্বপ্ন দেখছিলেন। এত কিছুর মাঝে এই নায়িকা জানালেন তিনি একটি অনলাইন জুয়া কোম্পানির শুভেচ্ছা দূত হয়েছেন।

খবরটি জানিয়ে নিজের ফেসবুক থেকে প্রকাশ করা এক ভিডিও বার্তায় মাহি বলেন, আমি মাহিয়া মাহি। আজকে আমি তোমাদের জন্য দারুণ একটি নিউজ নিয়ে এসেছি। আমি নতুন এক ফ্যামিলিতে যোগ দিতে যাচ্ছি। জয়েন হতে যাচ্ছি শুভেচ্ছাদূত হিসেবে। অনেক চমক নিয়ে আসব তোমাদের কাছে।

এদিকে বাংলাদেশের সংবিধান ও আইনে জুয়া খেলা একেবারেই নিষিদ্ধ। বাংলাদেশের সংবিধানের ১৮ (২) অনুচ্ছেদে নৈতিকতা রক্ষায় রাষ্ট্রের দায়িত্ব সম্পর্কে বলা হয়েছে, গণিকাবৃত্তি ও জুয়াখেলা নিরোধের জন্য রাষ্ট্র কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। ১৮৬৭ সাল থেকে চালু প্রকাশ্য জুয়া আইন অনুসারে, কেউ টাকার বিনিময়ে বাজি বা জুয়ার আসর বসালে এবং কেউ তাতে অংশ নিলে তা হবে দণ্ডনীয় অপরাধ। সুতরাং প্রচলিত আইন অনুসারে সব ধরনের জুয়া বাংলাদেশে সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ। বিষয়টি নিয়ে মাহি বলেন, চুক্তিতে স্পষ্টভাবে লেখা আছে ক্রিকেট রিলেটেড ইনফরমেটিভ প্ল্যাটফর্ম অ্যান্ড নট প্রমোটিং ক্যাসিনো।

আমি এভাবেই তাদের সঙ্গে চুক্তি করেছি। চুক্তিতে এটাও উল্লেখ আছে, আমি যদি কোনো বেটিং অ্যাপের সঙ্গে কাজ করতে চাই, সেটাও পারব না। আমি অবৈধ কোনো কিছু করিনি। আমাদের দেশের অনেকেই এ রকম চুক্তি করেছেন। আমি অবশ্যই বেটিং অ্যাপের সঙ্গে নেই, ভবিষ্যতেও থাকব না।

তিনি জিমে গিয়ে নিজেকে ফিট রাখছেন। নতুনভাবে নিজেকে দর্শকের সামনে হাজির করতে চাইছেন। এর আগে দেশ ও আন্তর্জাতিকভাবে নিষিদ্ধ এমন সাইটের বিজ্ঞাপন ও শুভেচ্ছাদূত হিসেবে নাম জড়িয়েছে জয়া আহসান, অপু বিশ্বাস ও নুসরাত ফারিয়ার। এর মধ্যে জয়া ও ফারিয়াকে শুধু বিজ্ঞাপনে পাওয়া গেলেও অপু কাজ করছেন শুভেচ্ছাদূত হিসেবে! আর তাদের বেশির ভাগেরই দাবি, ভুল তথ্যে তারা এগুলোতে জড়িয়ে পড়েছেন।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে