বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১

নিরবতা ভাঙলেন পুজা, দামাকার জন্য চাইলেন সময়

বিনোদন রিপোর্ট
  ২৩ জুন ২০২৪, ১৩:২৬
ছবি-সংগৃহিত

ঈদুল আজহায় মুক্তি পেয়েছে পুজা চেরীর নতুন সিনেমা। ‘আগন্তুক’ নামের সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন সুমন ধর।

মুক্তির আগে সিনেমার প্রচারে দেখা না গেলেও মুক্তির পর থেকে বিভিন্ন হলে ঘুরে বেড়াচ্ছেন পুজা। দর্শকদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন আগন্তুক দেখার। কথা বলেছেন তার ক্যারিয়ার আর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে। একই সঙ্গে নতুন ধামাকা দেওয়ার জন্য সময় চেয়েছেন পুজা। হল ভিজিটে গিয়ে পুজা বলেন, ‘‘প্রতি ঈদে সিনেমা মুক্তি পাওয়া একজন শিল্পীর ভাগ্যের ব্যাপার। গত ঈদে আমার অভিনীত ‘লিপস্টিক’ মুক্তি পেয়েছে, এবার ‘আগন্তুক’। সাইকো থ্রিলার ঘরানার সিনেমা এটি। যারা সিনেমাটি দেখছে, তারাই প্রশংসা করছে।’’

ওয়েব ফিল্ম হিসেবে শুটিং শুরু হয়েছিল আগন্তুকের।

পরবর্তী সময়ে ওয়েব ফিল্মটি হয়ে যায় সিনেমা। এই বিষয়ে পুজা বলেন, ‘প্রাথমিক পর্যায়ে ওয়েব ফিল্মে অভিনয়ের জন্যই চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। শুটিং করার সময় হঠাৎ করেই আমাদের টিমের মনে হয়েছে এটা সিনেমা। অনেক সিনেমা হয়ে যায় ওয়েব ফিল্মের মতো। আমরা ওয়েব ফিল্ম বানাতে গিয়ে সিনেমা বানিয়ে ফেলেছি। সিনেমা হলো লার্জার দেন লাইফ। আগন্তুকে এমন কিছু আছে বিধায় এটি সিনেমা হয়েছে।’

হল ভিজিটে গিয়ে আগন্তুক নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেও সিনেমা মুক্তির আগে পুজা ছিলেন নীরব। নায়িকার নীরবতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল তখন। সেই প্রশ্নেরও উত্তর দিয়েছেন অভিনেত্রী। পুজা বলেন, ‘প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে কোনো সিনেমা মুক্তির ঘোষণার পর আমি নিজের জায়গা থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করি প্রচার করার।

তবে বিষয়টি নির্ভর করে প্রযোজক ও নির্মাতার ওপর। তারা যখন বলবেন প্রচারে নামতে, তখন আমরা প্রচার করতে পারব। তাই প্রচারের বিষয়টি শিল্পীদের ওপর নির্ভর করে না। আমি নিজের জায়গা থেকে প্রচার করতেই পারি। কিন্তু অনুমতির একটি বিষয় থাকে। যখন থেকে অনুমতি পেয়েছি, তখন থেকেই প্রচার শুরু করেছি। সোশ্যাল মিডিয়ায় সিনেমার পোস্টার শেয়ার করেছি। বিভিন্ন হলে গিয়ে দর্শকের সঙ্গে মতবিনিময় করছি।’

প্রতি ঈদে নিয়মিত সিনেমা মুক্তি পেলেও অনেক দিন ধরেই ব্যবসাসফল হচ্ছে না পুজার সিনেমা। ব্যক্তিগত বিষয় নিয়েও সমালোচিত হয়েছেন তিনি। সব মিলিয়ে পুজা চেরী তার ক্যারিয়ারের মন্দ সময় পার করছেন বলে অনেকের ধারণা। তবে পুজা এটা মানতে নারাজ। তিনি জানিয়েছেন, সাধ্যের পুরোটা দিয়েই কাজ করেন তিনি। কিন্তু সব সময় ধামাকা নাও হতে পারে। বড় ধামাকা দেওয়ার জন্য সময় চাইলেন সবার কাছে। পুজা বলেন, ‘আমি নিজের সর্বোচ্চটা দিয়েই কাজ করে যাচ্ছি। কখন কী হবে সেটা সৃষ্টিকর্তা ছাড়া কেউ জানেন না। আমার ওপর ভরসা রাখেন, শিগগির ধামাকা কিছু আসছে।

আমি সিনেমাজগতে লম্বা রেসের ঘোড়া হতে এসেছি। আমাকে সময় দেন, অবশ্যই সবাইকে ধামাকা দেব।’ মাত্র ১৪ বছর বয়সে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মালটিমিডিয়ার মাধ্যমে শিশুশিল্পী থেকে নায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন পুজা চেরী। প্রতিষ্ঠানটি থেকে ‘পোড়ামন-২’, ‘দহন’ ও ‘নূর জাহান’ সিনেমাগুলোর মুক্তি পায়। প্রথম তিন সিনেমা দিয়ে আলোচনা তৈরি করেছিলেন পুজা চেরী। পরে জাজ কর্ণধার আবদুল আজিজের সঙ্গে ব্যক্তিগত মনোমানিল্যের কারণে জাজ থেকে বেরিয়ে আসেন পুজা। অন্য প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে একাধিক সিনেমা করে যাচ্ছেন পুজা চেরী।

২৪ মার্চ রোববার মাকে হারিয়েছেন নায়িকা পুজা চেরী। পুজার মা ডায়াবেটিস রোগী ছিলেন। ডায়াবেটিসসহ দীর্ঘদিন ধরেই নানা অসুস্থতায় ভুগছিলেন তিনি। এ অবস্থায় অসুস্থ বেশি হলে তাকে বাসার পাশে মিরপুর ডেল্টা কেয়ারে ভর্তি করানো হয়। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে আইসিইউতে নেওয়া হয়।

সাতদিনের মতো আইসিইউতে থাকার পর কিছুটা সুস্থ হলে চার-পাঁচদিন কেবিনে রাখা হয়। তারপর হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। বাসায় ফেরার চারদিন পরেই হঠাৎ করে সবাইকে ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে যান তিনি। মায়ের মৃত্যুতে একেবারেই ভেঙে পড়েন এ নায়িকা। কারণ তার নায়িকা হওয়ার পেছনে তার মায়ের ভূমিকা ছিল অনেক।

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই এ অভিনেত্রীর সঙ্গে ছায়ার মতো জড়িয়েছিলেন তার মা। বিভিন্ন স্থানে শুটিং থেকে শুরু করে সিনেমাসংশ্লিষ্ট মিটিংয়ে মা ঝর্ণা রায়কে সঙ্গে রাখতেন পুজা। তবে মায়ের মৃত্যুর শোক কাটিয়ে আবারও কাজে মনোযোগী হয়েছেন পুজা।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে