রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

পরিবেশ অধিদপ্তর দিনাজপুরের আয়োজনে শিল্প-কারখানার দূষণ নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক মতবিনিয় সভা

দিনাজপুর প্রতিনিধি
  ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১৮:২৭

পরিবেশ অধিদপ্তর দিনাজপুরের আয়োজনে শিল্প-কারখানার দূষণ নিয়ন্ত্রণ, উন্নত প্রযুক্তির ইটভাটা স্থাপন এবং ইটের বিকল্প ব্লক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধকরণ বিষয়ক মতবিনিয় সভার পরিবেশ অধিদপ্তর দিনাজপুর জেলা কার্যালয়ের আয়োজনে জেলা প্রশাসন দিনাজপুর এর সহযোগিতায় জেলা প্রশাসক, দিনাজপুর-এর সম্মেলন কেন্দ্রে শিল্প-কারখানার দূষণ নিয়ন্ত্রণ, উন্নত প্রযুক্তির ইটভাটা স্থাপন এবং ইটের বিকল্প ব্লক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধকরণ বিষয়ক এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খালেদ মোহাম্মদ জাকী, জেলা প্রশাসক, দিনাজপুর এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহ ইফতেখার আহমেদ, পিপিএম-সেবা, পুলিশ সুপার, দিনাজপুর জনাব সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, পরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর, রংপুর বিভাগীয় কার্যালয়, রংপুর। সভায় সভাপতিত্ব করেন জনাব মো: আনিচুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), দিনাজপুর।

সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য মতবিনিময় সভার সার্বিক বিষয়ে প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন পরিবেশ অধিদপ্তর, দিনাজপুর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ,কে,এম, ছামিউল আলম কুরসি।

এরপর উন্মুক্ত আলোচনার অংশ হিসেবে ইটভাটা মালিক সমিতি, চাউল কল মালিক  গ্রুপ, দিনাজপুর চেম্বার, ক্লিনিক ডায়াগনস্টিক সমিতি, হাসপাতাল, ইটিপি রয়েছে এমন প্রতিষ্ঠান, বেকারী, ডেইরী ফাম, জুট মিল, ফিড মিল, ফিলিং স্টেশন, পোল্ট্রি ফার্ম, জৈব সার, হোটেল/রেস্টুরেন্ট, বহুতল ভবন অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ আলোচনা করেন। আলোচনায় চাউল কল মালিক গ্রুপের সভাপতি জনাব মোসাদ্দেক হোসেন বলেন, আমরা আইন মেনেই চাউল কল পরিচালনা করতে চাই।

তবে তিনি নবায়ন গ্রহণ সহজীকরণ ইটিপি স্থাপনে সরকারের প্রনোদনার আশা ব্যাক্ত করেন। ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি মো: রেজাউল করিম বলেন, আমরা আমরা আইন মেনেই ইটভাটা পরিচালনা করতে চাই। তিনি প্রচলিত ইট প্রস্তুত ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ আইনের সংশোধনের উপর গুরুত্বারোপ করেন। দিনাজপুর চেম্বারের প্রতিনিধি শামীম রেজা চৌধুরী বলেন, রাইস মিলের ইটিপি স্থাপন অনেক ব্যয়বহুল আমাদের রাইস মিলের শতকরা ভাগ মালিকের ইটিপি স্থাপনের সক্ষমতা রয়েছে। তিনি বলেন, সরকার সহায়তা করলে আমরা ইটিপি স্থাপন করব। অন্যান্যদের মধ্যে চ্যানেল আই স্টাফ রিপোটার শাহ মো: শাহী পরিবেশ রক্ষায় গুরুত্বারোপ করে বলেন, আগে মানুষ বাচতে হবে, মানুষ বাচলে শিল্প কারখানা বাচবে।

বিশেষ অথিতি হিসেবে জনাব .শোয়াইবুর রহমান, অধ্যাপক, হাজী দানেশ বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বলেন, পরিবেশ সুরক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে সরকার সর্বোচ্চ আইন সংবিধানে তা সংযোজন করেন। পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়ের কারণে যদি কোন ক্ষতি হয়ে যায় এর দায় ভার পরিবেশ অধিদপ্তরকেই নিতে হবে। বিশেষ অথিতি হিসেবে জনাব সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, পরিচালক, পরিবেশ অধিদপ্তর, রংপুর বিভাগীয় কার্যালয়, রংপুর বলেন, আমাদের অফিসে স্বল্প জনবল নিয়ে আমরা আপনাদের সেবায় কাজ করে যাচ্ছি। সেবা সহজীকরণের উপরে আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, আপনাদেরকে সাথে নিয়ে দূষণ নিয়ন্ত্রণ করে

আমরা দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব।বিশেষ অতিথি হিসেবে শাহ ইফতেখার আহমেদ, পিপিএম-সেবা, পুলিশ সুপার, দিনাজপুর বলেন, সরকার উন্নয়ন চায় তবে আইন বিধিমালা মেনেই আমাদের উন্নয়ন করতে হবে।

তিনি বলেন পরিবেশ সুরক্ষাকে আমাদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে। প্রধান অতিথির আলোচনায়, জনাব খালেদ মোহাম্মদ জাকী, জেলা প্রশাসক, দিনাজপুর বলেন, ২০৪১ সালের যে ভিশন রয়েছে তা বাস্তবায়নে পরিবেশ সম্মতভাবে শিল্প কারখানা স্থাপন করে আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি ইটের বিকল্প ব্লক ব্যবহারে সবাইকে উদাত্ত্ব আহবান জানান এবং মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সমস্যার বিষয়ে অতি শীঘ্রই সমাধানের আশা ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আজকের মতবিনিময় সভার সুপারিশসমূহ আমরা যথাযথ কর্তর্ৃপক্ষকে অবহিত করব।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে সভাপতি হিসেবে জনাব মো: আনিচুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), দিনাজপুর সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি পরিবেশ সুরক্ষায় দূষণ নিয়ন্ত্রণ, আইন অনুযায়ী ইটভাটা পরিচালনা ব্লক ব্যবহারে সবাইকে আহবান জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

যাযাদি/মনিরুল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে