বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

যুদ্ধের ভিন্ন মাত্রা, বেলারুশে পরমাণু অস্ত্র মোতায়েন 

যাযাদি ডেস্ক
  ২৬ মে ২০২৩, ০৯:০৫
যুদ্ধের ভিন্ন মাত্রা, বেলারুশে পরমাণু অস্ত্র মোতায়েন 

রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধ অন্যরকম মাত্রা নিতে যাচ্ছে। রাশিয়া এবার বেলারুশে নিজেরদের পরমাণু অস্ত্র মোতায়েন শুরু করেছে। এই অস্ত্র মোতায়েনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র হুশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। অন্যদিকে ইউক্রেনের মিত্ররাও এই পরমাণু অস্ত্র মোতায়েনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হচ্ছে।

বেলারুশ রাশিয়ার প্রতিবেশি। যুদ্ধ শুরু পর থেকে বেলারুশ রাশিয়ার পক্ষে কাজ করছে এবং রাশিয়ার জয় চাই বেলারুশ। কারন রাশিয়ার মিত্র হিসেবে কাজ করছে বেলারুশ।

গতকাল বৃহস্পতিবার মিত্র বেলারুশে পরমাণু অস্ত্র মোতায়েন শুরু করেছে রাশিয়া। দেশটির প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেনকো বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাশিয়া ও বেলারাস মস্কোর কৌশলগত পরমাণু অস্ত্র মোতায়েনের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক চুক্তির পর এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। তবে অস্ত্রগুলোর নিয়ন্ত্রণ ক্রেমলিনের হাতেই থাকবে।

লুকাশেনকো এক সরকারি ভিডিওতে বলেন, 'পরমাণু অস্ত্র হস্তান্তর শুরু হয়ে গেছে।'

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মার্চে বেলারাশে স্বল্প পাল্লার অস্ত্র মোতায়েনের কথা ঘোষণা করেছিলেন। এটি ছিল ইউক্রেনে সামরিক সহায়তা জোরদার করার পাশ্চাত্যের প্রয়াসের প্রতি একটি সতর্কবার্তা। তবে ওই সময় বলা হয়নি, কখন এসব অস্ত্র মোতায়েন করা হবে। কিংবা কতগুলো অস্ত্র মোতায়েন করা হবে, সে কথাও বলা হয়নি।

তবে যুক্তরাষ্ট্র মনে করে যে রাশিয়ার হাতে প্রায় দুই হাজার কৌশলগত পরমাণু অস্ত্র আছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে বিমানে বহনযোগ্য, স্বল্পপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রও।

কৌশলগত পরমাণু অস্ত্র যুদ্ধক্ষেত্রে শত্রু সৈন্য ও অস্ত্র ধ্বংসে ব্যবহৃত হয়। অবশ্য এগুলোর পাল্লা হয় স্বল্প। এগুলো পরমাণু অস্ত্রের চেয়ে কম ধ্বংস করতে পারে।

রাশিয়া ও বেলারাস ঘনিষ্ঠ মিত্র। রাশিয়া ভর্তুকি মূল্যে বেলারাসকে তেল ও গ্যাস দিয়ে থাকে। তাছাড়া বিভিন্ন ধরনের সহায়তাও করে। ইউক্রেনে হামলা চালাতে বেলারাসের ভূখণ্ড ব্যবহার করছে রাশিয়া। সূত্র : ডেইলি সাবাহ

যাযাদি/এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়