মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

এটা খুশির ঈদ, শত্রুদের বিরুদ্ধে সাহস জোগানোর ঈদ : মমতা

যাযাদি ডেস্ক
  ১১ এপ্রিল ২০২৪, ২০:৫৩
ছবি সংগৃহিত

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় প্রতি ঈদে পশ্চিমবঙ্গে অনুষ্ঠিত মুসলিমদের বড় ঈদ জামায়াতে আসেন। বক্তব্য রাখেন। উজ্জীবত করেন সবাইকে। তিনি বলেন, আল্লাহ সবার দোয়া কবুল করেন না। তিনি যারা সৎ মানুষ তাদের দোয়াই শুধু কবুল করেন। আমরা একদিন না খেয়ে থাকলে ৩ দিন খেতে হয়। আর আপনারা পুরো এক মাস রোজা রাখলেন। এই ঈদ খুশির ঈদ, এই ঈদ সাহস জোগানোর ঈদ। শুত্রুদের মোকাবিলা করার ঈদ।

এদিন নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ), এনআরসি বা অভিন্ন দেওয়ানি বিধি কার্যকর করতে দেবেন না বলে আশ্বাস দিয়েছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। এ সময় তিনি বলেছেন, ‘আমি মৃত্যুকে ভয় পাই না, মৃত্যু আমায় ভয় পায়।’

আজ বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার রেড রোডের ঈদের জামাত পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন। প্রতিবারের মতো এবারো রেড রোডে ঈদের অনুষ্ঠানে যান তিনি।

সেখানে সিএএ এবং এনআরসি-বিরোধী বার্তা দিয়ে মমতা বলেন, ‘আমরা ঘৃণা করতে জানি না। আমরা ঘৃণাভাষণ চাই না। আমরা ভাগ বাঁটোয়ারা চাই না। জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) চাই না। আমরা নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন চাই না। আমরা চাই যে সকলে যেন এক সাথে থাকেন। আমরা জুলুম সহ্য করব না। আমরা এক সাথে থাকলে কেউ কিছু করতে পারবেন না। যতক্ষণ আমরা বেঁচে আছি, ততক্ষণ মৃত্যুতে কোনো ভয় নেই।’

মমতা এমন একটা দিনে সেই কথাগুলো বলেছেন, যে দিনটার মেরেকেটে এক সপ্তাহ পরে পশ্চিমবঙ্গ-সহ ভারতে লোকসভা নির্বাচন শুরু হতে চলেছে। আগামী ১৯ এপ্রিল প্রথম দফার ভোটগ্রহণ হবে। তারপর আরো ছয় দফায় ভোটগ্রহণ হবে পশ্চিমবঙ্গে। ভোটের বৈতরণী পার করতে তৃণমূল নিজেদের সংখ্যালঘু ভোটব্যাংক ধরে রাখতে মরিয়া বলে রাজনৈতিক মহলের মতামত।

রেড রোডে মমতার কী কী বললেন? তিনি বলেন, ‘এটা খুশির ঈদ। এটা শত্রুদের বিরুদ্ধে ঈদ। এটা সাহসের ঈদ। এটা জীবনে আপনাদের এগিয়ে যাওয়ার ইদ। এটা আমাদের সাহস জোগানোর ঈদ। এক মাস ধরে রোজা পালনের পরে এমনভাবে ঈদ উদযাপন, তা বড় দৃষ্টান্ত। আমাদের এক দিন উপবাস করলে তিন দিন খেতে হয়। আর আপনারা এক মাস ধরে রোজা করেন।’

মমতা বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম যে গতকাল (বুধবার) ঈদ হবে। আজ উত্তরবঙ্গে অনেক কর্মসূচি আছে। কিন্তু রেড রোডের নামাজের অনুষ্ঠানে না এসে আমি থাকতে পারি না। এটা আল্লাহর আশীর্বাদ। সকলেই আল্লাহের দোয়া চান। সকলের আল্লাহর দোয়া পাওয়ার সৌভাগ্য হয় না। যারা সৎ মানুষ, তারা আল্লাহের দোয়া পান। যারা সৎ মানুষ নন, তারা আল্লাহর দোয়া পান না।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশের জন্য রক্ত দিতে তৈরি আমরা। কিন্তু অত্যাচার সইতে রাজি নই। দেশের মানুষদের অত্যাচার করা হবে, সেটা আমরা মানব না। শুধু জুলুম আর জুমলাবাজি করে। আমি জানি, অনেকের মনে প্রশ্ন আছে যে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) কার্যকর হবে কিনা, জাতীয় নাগরিকপঞ্জি হবে কিনা। আবার অভিন্ন দেওয়ানি বিধি নিয়ে আসছে। আমরা মানব না। আমরা গায়ের জোরে মানব না। আবার বলছে যে আপনি নাগরিক কিভাবে হলেন? আগে ওদের বলুন যে আপনারা নাগরিক কিনা আগে বলুন। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে