শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ : পুতিন-মোদি আরও কাছাকাছি

যাযাদি ডেস্ক
  ০৯ জুলাই ২০২৪, ১১:৫২
ছবি-সংগৃহিত

পাঠকদের মনে থাকার কথা, রাশিয়া যখন ইউক্রেন হামলা করে তখন পাকিস্তানের তখনকার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তখন ছিলেন রাশিয়ায়। আর সে সফর শেষ করে দেশে ফেরার পরপর তার সরকারের পতন। এখন তিনি কারাগারে।

ইমরানের পতন ও কারাগারে যাবার পেছনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাত রয়েছে বলে ইমরান খান নিজেই অভিযোগ করেছেন। এবার সে পথে হাটলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

জানা যায়, রাশিয়ার সাথে ভারতের বন্ধুত্ব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আর এই বিষয়ে ওয়াশিংটন এমন এক সময়ে বার্তা দিলো, যখন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মস্কো সফরে গিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গতকালই মস্কোতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে দেখা করেন মোদি। দুই রাষ্ট্রনেতার সাক্ষাতেই মোদিকে আলিঙ্গন করেন পুতিন। দুই দেশেই এবছর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাশিয়ার পুতিন বিপুল ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন। আর ভারতে রেকর্ড তৃতীয়বারের জন্যে সরকার গঠন করতে সক্ষম হয়েছেন মোদি। পুনর্নিবাচিত হওয়ার পর এই ছিল মোদি ও পুতিনের প্রথম সাক্ষাৎ। গতকাল রুশ প্রেসিডেন্টের বাসভবনে রাজকীয় নৈশভোজেও অংশ নেন মোদি।

আর এই সবের মাঝেই মোদি-পুতিন বন্ধুত্বে উদ্বেগ প্রকাশ করল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মোদির রাশিয়া সফর নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার বলেন, 'রাশিয়া সফরে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কী বক্তব্য রাখছেন, সেই বিষয়ে আমরা নজর রাখব। তবে আমরা জানাতে চাই, ভারতের সাথে রাশিয়ার বন্ধুত্বের বিষয়ে ওয়াশিংটন ইতিমধ্যেই নিজেদের উদ্বেগের কথা জানিয়েছে দিল্লির কাছে।' পাশাপাশি মিলর বলেন, 'আমেরিকা আশা করে, ভারত বা যেকোনো দেশ যখন রাশিয়ার সাথে সম্পর্ক রাখছে, তখন তারা মস্কোকে জাতিসঙ্ঘ সনদ মেনে চলার কথা মনে করিয়ে দেবে।'

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া। এরপর বিগত ২ বছর ধরেই রাশিয়ার সাথে ভারতের সম্পর্ক নিয়ে দিল্লির ওপর চাপ বাড়িয়ে চলেছে ওয়াশিংটন। তবে আমেরিকার চাপের কাছে ভারত মাথা নত করেনি। উল্টা রাশিয়ার থেকে এই দুই বছর ধরে কম দামে জ্বালানি তেল কিনে চলেছে ভারত। সেই তেল আবার ভারতে শোধন করে আমেরিকা এবং ইউরোপে রফতানি করে মোটা টাকা মুনাফা করছে ভারত।

রাশিয়ার সাথে ভারতের ঐতিহাসিক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে মার্কিন হস্তক্ষেপে আপত্তি জানিয়েছে দিল্লি। এরই সাথে জাতিসঙ্ঘের বিভিন্ন প্রস্তাবে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ভোট দেয়া থেকে বিরত থেকেছে ভারত। তবে বার বারই আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ ভাবে ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের আহ্বানও জানিয়ে এসেছে দিল্লি। এই সবের মাঝেই তিন বছর পর ফের রাশিয়া সফরে গিয়েছেন মোদি। পুতিনের সাথে সাক্ষাতের পরে নিজের এক্স হ্যান্ডেলে সেই ছবি পোস্ট করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এই সফরকালে ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের পর্যালোচনা এবং ভবিষ্যতের সহযোগিতার জন্য একটি রোডম্যাপ তৈরি করতে দীর্ঘ আলোচনা করার কথা মোদির।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে