মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের মাধ্যমে বিএনপি বিলুপ্ত হবে : কৃষিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, টাঙ্গাইল
  ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১৭:৩৮
আপডেট  : ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১৭:৩৯

আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য কৃষিমন্ত্রী ডক্টর আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, বিএনপি একটি বড় রাজনৈতিক দল। তারা বার বার ভুল করছে। তাদের দলের নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা-মোকদ্দমা রয়েছে। আদালত কর্তৃক তারা অনেকে অপরাধী। বেগম খালেদা জিয়াও এতিমের টাকা চুরি করাতে তারও শাস্তি হয়েছে। তারা মনে করে নির্বাচন হওয়া উচিত নয়। তারা নির্বাচনে এলে তো মাঠে দাঁড়াতে পারবে না। আন্তর্জাতিক মহলও পর্দার অন্তরাল থেকে বিএনপিকে নির্বাচন অংশ গ্রহণ করার জন্য বলছে। কিন্তু তারা নির্বাচনে আসছে না। এ দেশে মুসলিম লীগ নামে একটি দল ছিল- সেটি বিলুপ্ত হয়ে গেছে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে বিএনপিও বিলুপ্ত হবে।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) সকালে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীমা ইয়াসমীনের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, কোন ক্রমেই আওয়ামী লীগ আন্দোলন-সংগ্রামে ব্যর্থ হয় নাই। আগামি নির্বাচন আন্দেলনের একটি অংশ। আমরা এই নির্বাচনেও বিজয়ী হবো। অঅওয়ামীলীগের কিছু কিছু কর্মী আছে তারা নির্বাচন করতে চায়। তারা যদি স্বতন্ত্র নির্বাচন করে- সেটি তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। কিন্তু সাধারণ ভোটাররা ও আমাদের নেতাকর্মীরা দলের পক্ষে থাকবে- দলের জন্য কাজ করবে। আমি মনে করি যারা নির্বাচনে দাঁড়িয়েছে সারা সবাই শক্তিশালী প্রার্থী। জনগণ ভোট দিয়ে মূল্যায়ন করবে কে কতটা জনপ্রিয়। আমরা নির্বাচনের ভোটের দিন অর্থাৎ ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করি! আমরা দেখবো তারা কতটা জনপ্রিয়- এ বিষয়ে আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। আমি জয়ের ব্যাপারে ১০০ ভাগ আশাবাদী।

ডক্টর আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আপনারা জানেন ২০১৪ সালের নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে নির্বাচনে আনার জন্য ৩৮ মিনিট টেলিফোনে কথা বলেছিলেন। কিন্তু সে সময় বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দেননি। তিনি (খালেদা জিয়া) মনে করেছিল আন্দোলন, সন্ত্রাস, আগুন সন্ত্রাস, রেললাইন তুলে, বিদ্যুৎ লাইন কেটে, গাড়িতে আগুন, পুলিশ হত্যা করে আন্দোলন সফল করবে এবং তাদের ইচ্ছে মতো নির্বাচন কমিশন গঠন করে একটি ভূয়া নির্বাচন করে ক্ষমতায় আসবে। জাতি ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের সন্ত্রাস, আন্দোলনকে প্রত্যাখান করেছে। আবার ২০১৮ সালের নির্বাচন এসেছিল, সে নির্বাচনে তাদের ভরাডুবি হয়েছে। তাদের নেতা থাকে বিদেশে- দেশে আসার সৎসাহস নেই।

তিনি আরও বলেন, আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ ও সর্ব মহলে গ্রহণযোগ্য হবে। এই নির্বাচন সারা বিশ্বের কাছে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে।

যাযাদি/ এসএম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে