শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

সাকিবকে নিয়ে নিন্দার ঝড়

যাযাদি ডেস্ক
  ০৭ নভেম্বর ২০২৩, ০৯:২৫

লংকান ক্রিকেটার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের টাইমড আউটের ঘটনায় আলোচনা হচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটজুড়েই। নির্ধারিত সময় বোলারের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত ছিলেন না লংকান অলরাউন্ডার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। দুই দফায় হেলমেট পাল্টাতে গিয়ে তিনি তিন মিনিটেরও বেশি সময় বিলম্ব করে টাইমড আউট হয়েছেন। পরে বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের আবেদনের ভিত্তিতে ম্যাথুসকে আউট দিয়েছেন আম্পায়াররা। যা নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে বিতর্কে নেমেছেন নেটিজেনরা। টুইট করেছেন সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার ডেইল স্টেইন।

আইসিসি’র নিয়মে টাইমড আউট থাকলেও এর প্রয়োগ হয়নি এতদিন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম আউটের ঘটনা ঘটেছে দিল্লির অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস দুই মিনিটের মধ্যে বল খেলতে না পারায় সাকিব আম্পায়ারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। আম্পায়ার ম্যাথুসকে আউট ঘোষণা করেন।

ম্যাথুস খানিকটা ধীরগতিতে ক্রিজে এসে স্ট্যান্স নিয়েছিলেন। সাকিব বল হাতে প্রস্তুত ছিলেন। ওই সময় ম্যাথুস তার হেলমেটে অসঙ্গতি অনুভব করেন। ড্রেসিংরুমে হেলমেট আনার ইঙ্গিত দেন। এতে দুই মিনিটের বেশি সময় চলে যায়। সাকিব আম্পায়ারের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে আম্পায়ার আউট দেন। ম্যাথুস বারবার বোঝাচ্ছিলেন তিনি প্রস্তুত ছিলেন, হেলমেটের জন্যই এই বিলম্ব।

ম্যাথুস আউট হয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরলেও কমেন্ট্রি বক্সে চলছিল আলোচনা। ওয়াকার ইউনিস, রাসেল আরনল্ডরা সাকিবকে পরোক্ষভাবে সমালোচনাই করেছেন। তারা বলেছেন, ‘এ রকম অখেলোয়াড়িসুলভ আচরণ দেখেননি কখনো।’ এ ছাড়া সোশ্যাল মিডিয়ায় সাকিবকে নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্স-এ (সাবেক টুইটার) নিজের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টে সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান ডেল স্টেইন সাকিবের এমন আবেদনের পরোক্ষ বিরোধিতা করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘বেশ, এটি মোটেও শোভনীয় (কুল) নয়।’

অন্যদিকে ইএসপিএন ক্রিকইনফোর এক ভিডিওতে ক্রিকেট বিশ্লেষক স্টিভ হারমিসন বলেছেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এ ধরনের ঘটনা প্রথম। এটি বেশ অভাবনীয় যে, ম্যাথুস তার হেলমেটটাও দেখে আনলেন না। তিনি এটি কীভাবে করলেন! প্লেয়িং কন্ডিশন ও নিয়ম অনুযায়ী সাকিবের সিদ্ধান্ত সঠিক, আমার অবস্থানও তার পক্ষে।’

মোটামুটি ক্রিকেট মহলের আলোচনায় যে এ ঘটনা জায়গা করে নিয়েছে, সেটি বলাই যায়! এ নিয়ে এখন পর্যন্ত স্বীকৃত কোনো ক্রিকেটার আর কথা বলেননি। তবে সাধারণ ভক্তরা পক্ষে-বিপক্ষে নানা মন্তব্য করে যাচ্ছেন। তাদের কেউ কেউ সাকিবের কড়া সমালোচনা করছেন, আবার কারও মতে টাইগার অধিনায়কের সিদ্ধান্ত নিয়ম মেনে অবশ্যই বৈধ!

একজন লিখেছেন, ‘বাংলাদেশ হয়তো ম্যাচটি জিততে পারে। কিন্তু তারা একটি নোংরা কাজ করেছে। এটি সম্মানের যোগ্য নয়। সাকিবের সিদ্ধান্ত ক্রিকেটের স্পিরিট নষ্ট করেছে।’

অনেকে আবার সাকিবের বুদ্ধিমত্তার প্রশংসাও করেছেন। আইনে টাইমড আউটের বিধান রয়েছে, সাকিব সেটার প্রয়োগ করেছেন। গতকালের ম্যাচটি ছিল বাংলাদেশ এবং শ্রীলংকা উভয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে সাকিবের এই আবেদনকে অনেকে অত্যন্ত প্রশংসায় ভাসিয়েছেন।

আবার অনেকের দৃষ্টিতে, ম্যাথুসকে হেলমেটের জন্য দুই মিনিট অতিরিক্ত দিলে কোনো কিছুই হতো না।

বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যেও এ নিয়ে চলছে দ্বিধাদ্বন্দ্ব। অনেকে সাকিবকে প্রশংসায় ভাসিয়ে বলছেন, ‘সাকিব বুদ্ধিদীপ্ত ক্রিকেটার, এটা সেটারই প্রমাণ।’

বাংলাদেশের অনেকেই আবার সাকিবের চরম সমালোচনা করেছেন। এভাবে আউট করে সুবিধা নেওয়াকে নিজেদের দুর্বলতা হিসেবে দেখছেন।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে