শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১

বিপিএলে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন শোয়েব মালিক

যাযাদি ডেস্ক
  ২৭ জানুয়ারি ২০২৪, ১০:১৮

মাঠে ও বাইরে বেশ কঠিন সময়ই পার করছেন পাকিস্তানের তারকা অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক। নিজের তৃতীয় বিয়ে নিয়ে পারিবারিকভাবে বিরূপ পরিস্থিতিতে আছেন তিনি। এর বাইরে বিপিএলে তার বিরুদ্ধে ফিক্সিংয়েরও অভিযোগ উঠেছে। যা স্বাভাবিকভাবেই আরও বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলেছে শোয়েবকে। ফিক্সিংয়ের গুজবকে প্রত্যাখ্যান করেছেন তিনি।

বিপিএলের ঢাকা পর্বে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে ফরচুন বরিশালের হয়ে এক ওভারে তিনটি নো বল করেছিলেন পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েব মালিক। একজন স্পিনারের একই ওভারে তিনবার ওভার স্টেপিং খুব একটা দেখা যায় না। তাই অনেকেই শোয়েবের এই ঘটনার সঙ্গে ফিক্সিংয়ের গন্ধ খোঁজার চেষ্টা করছেন। তবে এমন গুজব উড়িয়ে দিয়েছেন বরিশালের মালিক মিজানুর রহমান।

তিনি একটি ভিডিও বার্তায় বলেছেন, শোয়েব তার সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। ক্রিকেটে খারাপ সময় যেতেই পারে, এই সময়ে দল শোয়েবের পাশেই আছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এমনকি এই পাকিস্তানি ক্রিকেটারকে ঘিরে এসব গুজব বন্ধের আহবান করেছেন মিজান।

শুক্রবার এক ভিডিও বার্তায় মিজান বলেন, ‘আসসালামুআলাইকুম, ধন্যবাদ জানাচ্ছি ফরচুন বরিশালের সকল দর্শকদের এবং সমর্থকদের। শেষ কিছুদিন শোয়েব মালিককে নিয়ে অনেক কথা শুনেছি, আমি এটার (শোয়েব মালিককে নিয়ে ফিক্সিংয়ের গুঞ্জন) তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। শোয়েব মালিক একজন ভালো খেলোয়াড় ও তার সর্বোচ্চটাই আমাদের দিয়েছেন। এটা নিয়ে আমরা আর আলোচনা না করি।’

নিজেদের পরের ম্যাচগুলোতেই আপাতত নজর বরিশালের। এ প্রসঙ্গে মিজান বলেন, ‘আমরা যেহেতু পরপর দুটো ম্যাচ হেরেছি, আমাদের উচিত আমাদের পরবর্তী ম্যাচগুলোর দিকে নজর দেওয়া এবং আমরা যেন ভালো খেলতে পারি এ জন্য আমি সবার কাছে দোয়া চাচ্ছি। আমরা যেন পরবর্তী ম্যাচ জিততে পারি এবং ফাইনাল খেলতে পারি। ধন্যবাদ ফরচুন বরিশালের সঙ্গে থাকার জন্য।’

ফিক্সিংয়েরও অভিযোগে স্বাভাবিকভাবেই বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলেছে শোয়েবকে। ফলে অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক অ্যাকাউন্টে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পাকিস্তানি এই ক্রিকেটার লিখেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে বরিশালের হয়ে খেলা নিয়ে আমার বিরুদ্ধে যে গুজব উঠেছে, তা প্রত্যাখ্যান করছি। আমি আমার অধিনায়ক তামিম ইকবালের সঙ্গে ওই সময় আলোচনাও করেছি, পরে কি করতে হবে সেটাও পরিকল্পনা করি। পরবর্তীতে দুবাইয়ে আমার আগে থেকে নির্ধারিত কাজ থাকায় বাংলাদেশ ছেড়ে আসতে হয় আমাকে।’

এরপর বরিশালের জন্য শুভ কামনাও জানান শোয়েব মালিক, ‘বরিশালের আসন্ন ম্যাচগুলোর জন্য শুভকামনা, যদি প্রয়োজন হয় আমি অবশ্যই তাদের যেকোনো সমর্থন দেওয়ার চেষ্টা করব। মাঠের ক্রিকেটে আমি সবসময় আনন্দ পাই এবং সুযোগ পেলে আবারও সেটি চালিয়ে নিতে চাই।’

প্রসঙ্গত ২২ জানুয়ারি মিরপুরে ফরচুন বরিশালের হয়ে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে সেই ম্যাচে তিনটি নো বলসহ এক ওভারে ১৮ রান দেন শোয়েব। যার কারণে মাঠেই বিরক্তি প্রকাশ করতে দেখা যায় বরিশাল অধিনায়ক তামিম ইকবালকে। পরে শোয়েবকে আর বোলিংয়ে আনেনি তামিম। পরবর্তীতে তার নো বলের সেসব ডেলিভারির ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সেখান থেকেই মূলত গুজবের সৃষ্টি হয়। শোয়েবকে নিয়ে বিপিএলে এখনো আলোচনা-সমালোচনা হলেও আপাতত তিনি আছেন দুবাইয়ে। ঢাকা পর্বের খেলা শেষেই ব্যক্তিগত কাজে গিয়েছিলেন দুবাই। কথা ছিল সিলেট পর্বে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। তবে এরপর সিদ্ধান্ত বদলেছেন। এবারের আসরে আর খেলা হবে না তার।

যাযাদি/ এসএম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে