logo
বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৩ মে ২০২০, ০০:০০  

সাক্ষাৎকার

ঈদ হোক আনন্দের

মমতাজ বেগম। দেশের আপামর গানপিপাসু শ্রোতাদের কাছে ফোক সম্রাজ্ঞী নামে পরিচিত। বর্তমানে রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও গান ছাড়া তিনি নিজেকে কল্পনা করতে পারেন না। মনের টানেই গান গাইতে হয় তাকে। গান যেন তার শিরা-উপশিরায় মিশে রয়েছে। সময় পেলেই গানের নেশায় ছুটে যান তিনি। প্রতি ঈদের মতো এবারও চাঁদ রাতে তাকে নিয়ে একক সংগীতানুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাভিশন। এবারও এর ব্যতিক্রম হচ্ছে না। বরাবরের মতো এবারও মায়ের সঙ্গে গ্রামে কাটবে তার ঈদ। কথা হলো তার সঙ্গে...

ঈদ হোক আনন্দের
মমতাজ
চাঁদনী রাতে...

বেশ কয়েক বছর ধরে ঈদের আগের দিন রাতে বাংলাভিশনে লাইভ অনুষ্ঠান করে আসছি। এটি দুই ঈদেই হয়ে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় এবারও ইফতারের দর্শকশ্রোতাদের গান শোনাব। প্রতিবারই এই অনুষ্ঠানের একটি নতুন নাম রাখা হয়। এবারের পর্বের নাম রাখা হয়েছে 'হাতে লয়ে প্রেমের পুতুল'।

হাতে লয়ে প্রেমের পুতুল...

করোনার এই সময়কালে আমার অনেক পুরানো অ্যালবামের গান নতুন করে শোনার সুযোগ হয়েছে। সত্যি বলতে কী সেসব গানও কখনো সরাসরি কোনো অনুষ্ঠানে কিংবা স্টেজ শোতে পরিবেশন করার সুযোগ হয়ে উঠেনি। সেখান থেকে কিছু গান এবারের চাঁদ রাতের শোতে গাইবো। এছাড়া আধ্যাত্মিক গান, ভাব গানের পরিবেশনা থাকবে।

দর্শকপ্রিয় একটি অনুষ্ঠান...

এই শোটি দর্শকপ্রিয়তার পর বেশ কয়েকটি চ্যানেল আমাকে তাদের চ্যানেলে চাঁদ রাতে সংগীত পরিবেশন করার প্রস্তাব দিয়েছেন। কিন্তু আমি তাদের বিনয়ের সঙ্গে না করে দিয়েছি। কারণ বাংলাভিশনের সঙ্গে এই অনুষ্ঠানের কারণে আমার একটি চমৎকার সমন্বয় হয়েছে। তারা তাদের মতো করে আমাকে স্বাধীনতা দিয়ে আয়োজনটি সফল করার চেষ্টা করে। তাছাড়া এই অনুষ্ঠানটি এখন অনেক দর্শকপ্রিয় একটি অনুষ্ঠানও বটে।

ঈদের দিন...

মানিকগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে আমার মা রয়েছেন। ঈদের দিন সকালে সন্তানদের নিয়ে সেখানে যাব। সারাদিন সেখানে থাকব। প্রতিবারই তাই করা হয়।

ছোটবেলার ঈদে...

ছোটবেলা থেকেই বাবার সঙ্গে গান গেয়ে বেড়াতাম। তিনিই আমার গানের প্রথম গুরু। ঈদের দিনটাও বাবার সঙ্গে কেটে যেত। গ্রামে-গঞ্জে কেটেছে আমার ছোটবেলার ঈদ। বাবার হাত ধরে ঈদগাহে যাওয়া, বন্ধুদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করা, ঈদের নতুন জামা- এসব নিয়ে এখন ভাবতে ভালোই লাগে।

ঈদের শুভেচ্ছা...

মহামারি করোনার প্রভাবে বিশ্বজুড়ে অস্থিতিশীল অবস্থা বিরাজ করছে। তাই এবারের ঈদটা সবার জন্য একটু অন্যরকম। সচেতনতার জন্য অন্যবারের মতো আনন্দটা হবে না। সচেতনতার মধ্যেই আমরা যে যেখানে, যে অবস্থায়ই থাকি না কেন ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে চাই। আমার ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ঈদের শুভেচ্ছার পাশাপাশি বলব আপনারা সচেতন থাকুন। দ্রত এই অবস্থার পরিবর্তন হবে ইনশালস্নাহ।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে