যুক্তরাষ্ট্রে ঐক্য ফেরানোর প্রত্যয় কমলার

যুক্তরাষ্ট্রে ঐক্য ফেরানোর প্রত্যয় কমলার

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনের সঙ্গে দেশটির ইতিহাসে প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে বুধবার শপথ নিয়েছেন কমলা হ্যারিসও। দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় হিসেবেও এই পদে তিনিই প্রথম। আগামীদিনে দেশটির দায়িত্বের অনেকাংশ তার বলিষ্ঠ কাঁধেই থাকবে। শপথের পর দেওয়া ভাষণে

নতুন দিনের স্বপ্ন এঁকে কমলা বলেন, 'দেশকে ঐক্যবদ্ধ করতে জো বাইডেনের সঙ্গে আমি কাজ করবো। বর্তমান সমস্যাগুলোর মোকাবিলা করব। দেশকে নতুন করে গড়ে তোলার শপথ পূরণ করব।' সংবাদসূত্র : বিবিসি, আল-জাজিরা

দেশটির পার্লামেন্ট ভবন 'ক্যাপিটল হিল'র সামনে ঐতিহ্যবাহী ওয়াশিংটন স্মৃতিসৌধের দিকে তাকিয়ে দুই যুগল। পাশাপাশি তবুও নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব। করোনাকালে শপথ গ্রহণের ঠিক আগে এই ছবিটি টুইট করে ঐক্যের বার্তা দিয়েছেন দেশটির নতুন এ ভাইস প্রেসিডেন্ট। ছবিটি সস্ত্রীক জো বাইডেন এবং স্বামীর সঙ্গে কমলার।

বছরটা মহামারির। করোনায় শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রে চার লাখের বেশি মানুষ মারা গেছে। তবুও জীবন থেমে থাকার নয়। নতুন করে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য তাই কমলার বার্তা, 'শারীরিক দূরত্ব থাকলেও, আমাদের মধ্যে আত্মিক যোগ রয়েছে। সবাইকে একসঙ্গে লড়াই করতে হবে।'

করোনার ব্যাপারে দেশবাসীকে সান্ত্বনা দিয়েছেন কমলা। এর আগের একটি টুইটে বলেন, 'এখনো মানতে পারি না যে তারা আর নেই। কারও দাদা, দাদি, যারা আমাদের মাঝে ছিলেন। কারও বাবা-মা, কারও সঙ্গী, ভাই-বোন বা বন্ধু। কোভিডে যাদের হারিয়েছি, আজ তাদের শ্রদ্ধা জানানোর দিন। একসঙ্গে সেই কষ্ট ভাগ করে নেব। সেরে উঠবো আমরা।'

টুইটারে মানুষকে বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি এদিন ইনস্টাগ্রামে দিনভর স্মৃতিচারণ করেছেন কমলা। সামাজিক মাধ্যমে জানিয়েছেন নিজের জীবনের গল্পও। মায়ের দেখানো পথেই যে বরাবর চলেছেন, সে কথাও লিখেছেন তিনি। মা ও বোনের সঙ্গে নিজের তিনটি পুরনো পারিবারিক ছবিও পোস্ট করেছেন।

কমলা বলেন, 'আমার বাবা জামাইকান, মা ভারতীয়। পৃথিবীর দুই প্রান্তের বাসিন্দা। অন্য অনেকের মতো তারাও যুক্তরাষ্ট্রে নিজেদের স্বপ্ন খুঁজতে এসেছিলেন। সেই স্বপ্নটা ছিল নিজেদের, আমি আর আমার বোন মায়াকে নিয়ে।'

মা শ্যামলা গোপালন হ্যারিসের যুক্তরাষ্ট্রে আসার গল্প, বার্কলের ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটিতে প্রথম অশ্বেতাঙ্গ বিজ্ঞানী হিসেবে শ্যামলার লড়াই সবকিছু একটু একটু করে তুলে ধরেছেন তিনি। লিখেছেন, 'মা সব সময় বলতেন, শুধু বসে থেকে কোনো কিছু নিয়ে অভিযোগ করো না। বরং নিজে কিছু করো। আমি নিয়মিত নিজের জীবনে সেটা অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলার চেষ্টা করি।'

চলার পথে যেসব মানুষ, জায়গা আর মুহূর্তরা তার জীবনে ছাপ ফেলে গেছে, অনুরাগীদের কাছে সেইসব গল্প শোনানোর প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছেন কমলা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে