ফুলবাড়ীতে ছেলের নির্যাতনে হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন মা ভয়ে ঘরছাড়া বাবা

ফুলবাড়ীতে ছেলের নির্যাতনে হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন মা ভয়ে ঘরছাড়া বাবা

নিজ গর্ভের ছেলের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়ে হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছেন গর্ভধারিণী মা। ছেলের নির্যাতনের ভয়ে গৃহছাড়া হয়ে পড়েছেন জন্মদাতা পিতাও। এই হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার খয়েরবাড়ী ইউনিয়নের কিসমতলালপুর গ্রামে।

বৃহস্পতিবার সকালে ছেলের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে এখন চিকিৎসাধীন বৃদ্ধ মা জহুরা বেগম। নির্যাতনে শিকার জহুরা বেগম (৬০) কিসমত লালপুর গ্রামের তইজ উদ্দিনের স্ত্রী।

তইজ উদ্দিন জানান, জমি ভাগের কম-বেশি হওয়ায় তার ছেলে নবীউল ইসলাম গত বুধবার বিকালে তার মা জহুরা বেগমকে গালমন্দসহ শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। এই ঘটনা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সাংবাদিকদের কাছে জানাজানি হলে, নবীউল ইসলাম আরও ক্ষিপ্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে জহুরা বেগমকে বেধড়ক মারপিট করে। এতে জহুরা বেগম গুরুতর আহত হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

জহুরা বেগম ও তার স্বামী তইজ উদ্দিন আরও জানান, তার বাড়ির ভিটাসহ ১৫৯ শতক জমি তার তিন ছেলে ও এক মেয়েকে হেবা করে দেন, কিন্তু হেবা করার সময় মেয়ের নাম দেওয়াকে কেন্দ্র করে ছেলে নবীউল ইসলাম তাদের উপর অত্যাচার শুরু করেন। গত বুধবার তাদের বাড়ি-ঘরে ভাংচুর চালান, এতে বাধা দিতে গেলে বাবা-মাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। তইজ উদ্দিন বলেন, তার স্ত্রী হাসপাতালে থাকলেও তিনি বাড়িতে যেতে পারছেন না ছেলের ভয়ে। তাকে পেলেও তার স্ত্রীর মতো মারপিট করবে। এ কারণে তিনি এখন গৃহছাড়া হয়ে পড়েছেন।

এই ঘটনায় নির্যাতনকারী নবীউল ইসলাম জানায়, বাবা-মা মেয়েকে জমি দিয়েছে। সেখানে চলে যেতে হবে, এই বাড়িতে তাদের থাকার প্রয়োজন নেই।

এ বিষয়ে খয়েরবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক বলেন, কয়েক দফা বিচার করেও বিষয়টি সমাধান করা যায়নি। তিনি বলেন বিচার করার পরেও নবীউল ইসলাম ও তার ভাইয়েরা বাড়িতে গিয়ে তাদের পিতা-মাতার উপর অত্যাচার করে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে