প্রবাসীর স্ত্রী খুন :দেড় বছর পর এক আসামি গ্রেপ্তার

প্রবাসীর স্ত্রী খুন :দেড় বছর পর এক আসামি গ্রেপ্তার

গাজীপুরের কালীগঞ্জ পৌর এলাকায় এক প্রবাসীর স্ত্রী খুনের ঘটনার দেড় বছর পরে মো. পনির (৪০) নামের এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পনির কালীগঞ্জের বালিগাঁও এলাকার ইউনুছ আলীর ছেলে। বুধবার প্রথম প্রহরে গ্রেপ্তারের পর বিকালে গাজীপুর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার গাজীপুরের পিবিআই এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ওই তথ্য জানানো হয়েছে।

গাজীপুর পিবিআইয়ের পরিদর্শক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, সৌদিপ্রবাসী মোমেন মির্জার স্ত্রী প্রতিবেশী নাজমা বেগমের সঙ্গে টাকা-পয়সা লেনদেন ও জমিজমা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধকে কেন্দ্র করে পনির ও অন্য প্রতিবেশীদের বিরোধ সৃষ্টি হয়। এ বিরোধের জেরে খুনের সপ্তাহখানেক আগে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে লোকজনের সামনে নাজমা পনিরকে চড়ও মারেন। এতে পনির চরম অপমানিত বোধ করেন। পরে পনির তার অপমানের প্রতিশোধ নিতে যে কোনো উপায়ে নাজমাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা অনুয়ায়ী ২০২০ সালের ২৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যার পর খালি বাড়ির প্রবেশ মুখে পনির একটি লাঠি নিয়ে পাহারা দিতে থাকে এবং তার অপর দুইজন সহযোগী ঘরের ভেতর প্রবেশ করে গ্যাসের পরিত্যক্ত পাইপ দিয়ে এলোপাতাড়ি নাজমার মাথায় আঘাত করতে থাকে। নাজমা চিৎকার করতে চাইলে তারা তার মুখ চেপে শ্বাসরোধ করে হত্যা নিশ্চিত করে এবং ঘরে শোকেজের ওপর থাকা চাবি নিয়ে শোকেজ খুলে নগদ এক লাখ টাকা নিয়ে চলে যায়। পরে তারা লুণ্ঠিত টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নেয়।

পরদিন ২৬ ডিসেম্বর নাজমার ছেলে স্বপন মির্জা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ থানার মামলা করেন। থানা পুলিশ ৩ মাস তদন্ত করে কোনো রহস্য উদঘাটন করতে না পারায় মামলাটি তদন্তাধীন অবস্থায় পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স, গাজীপুর পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেয়। দীর্ঘ তদন্তের পর বুধবার প্রথম প্রহরে পনিরকে গ্রেপ্তার করে গাজীপুরের পিবিআই। গ্রেপ্তারের পর পনির প্রথমে পুলিশের কাছে এবং পরে আদালতে হত্যায় জড়িত থাকার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন এবং হত্যাকান্ডে জড়িতদের নাম প্রকাশ করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে