সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১

ফরিদপুরে বাবাকে হত্যার অপরাধে মেয়ের ফাঁসি

যশোরে স্বামীর যাবজ্জীবন
স্বদেশ ডেস্ক
  ২৬ মে ২০২৩, ০০:০০
ফরিদপুরে বাবাকে হত্যার অপরাধে মেয়ের ফাঁসি

যশোরে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন ও ফরিদপুরে বাবা হত্যার দায়ে এক মেয়ের ফাঁসি, স্ত্রী ও ওপর মেয়ের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর জানান, যশোর শহরতলীর আরবপুর মাঠপাড়ার গৃহবধূ শিরিনা বেগমকে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে ঘাতক স্বামী জুয়েল সরদারকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও অর্থদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার নারী ও শিশু নির্যানত দমন ট্রাইবু্যনাল-১ এর বিচারক গোলাম কবির এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত জুয়েল সরদার আরবপুর মাঠপাড়ার মৃত মিজানুর রহমানের ছেলে। তিনি কারাগারে আটক আছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশেষ পিপি সেতারা খাতুন।

ফরিদপুর প্রতিনিধি জানান, দ্বিতীয় বিবাহের কারণে প্রথম স্ত্রী ও দুই মেয়ে মিলে বাবাকে গলা কেটে হত্যার দায়ে এক মেয়ের ফাঁসি ও আরেক মেয়ে এবং স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সময় প্রত্যেককে বিশ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক অশোক কুমার দত্ত এ রায় প্রদান করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন মেয়ে নিলুফা আক্তার, (মৃতু্যদন্ড), স্ত্রী সাহিদা পারভিন ও মেয়ে হাফিজা বেগম (যাবজ্জীবন)।

জানা যায়, জেলার সালথার উপজেলার খোয়ারাগট্টি এলাকার হাফেজ আবুল বাশার দ্বিতীয় বিবাহ করায় প্রথম স্ত্রী ও সন্তানদের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না। এরই জের ধরে ২০১৬ সালে ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে প্রথম স্ত্রী ও দুই মেয়ে মিলে বাবাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে রাতে গলা কেটে হত্যা করে। ঘটনার পরের দিন ফরিদপুর কোতয়ালি থানায় নিহতের ভাই লোকমান ফকির বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে